Friday, May 24, 2024
spot_img
Homeবিশেষ প্রতিবেদনশেষ হল বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২৩

শেষ হল বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট ২০২৩

শেষ হল বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট (বিগ) ২০২৩ এর ৩দিনব্যাপী আয়োজিত বুটক্যাম্প। গত ৯ জুন থেকে শুরু হওয়া এই বুটক্যাম্পটি বিগ ২০২৩ এর প্রাইমারি স্ক্রিনিং এবং অনলাইন পিচিং থেকে নির্বাচিত স্টার্টআপদের নিয়ে শুরু হয়। এই বুটক্যাম্পে ১০৩টি স্টার্টআপ অংশ নেন। ফিজিবিলিটি, বিজনেস স্ট্র্যাটেজি, স্টার্টআপ কনসেপ্ট, টেকনোলজি ও টিম ম্যানেজমেন্টসহ ১০টি সেশনে বুটক্যাম্পে অংশগ্রহণকারী স্টার্টআপরা মেন্টরিং গ্রহণ করেন।

তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের আওতায় বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিলের অধীনে উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমী প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প (আইডিয়া) কর্তৃক আয়োজিত বিগ ২০২৩ এর বুটক্যাম্পের সমাপনী অনুষ্ঠানটি ১১ জুন ২০২৩ রবিবার অনুষ্ঠিত হয়। যশোরে শেখ হাসিনা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে আয়োজিত এই সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব মোঃ সামসুল আরেফিন। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) এর নির্বাহী পরিচালক (গ্রেড-১) রণজিৎ কুমার। অনুষ্ঠানটিতে সভাপতিত্ব করেন আইডিয়া প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ও যুগ্ম সচিব মোঃ আলতাফ হোসেন। বিগ ২০২৩ এর মুখ্য সমন্বয়ক ও আইডিয়া প্রকল্পের জ্যেষ্ঠ পরামর্শক সিদ্ধার্থ গোস্বামী এর সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন আইডিয়া প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক ও উপসচিব ড. মিজানুর রহমান। এছাড়া, যশোর জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোছাঃ খালেদা খাতুন রেখা এবং বেটার স্টোরিজ লিমিটেডের চিফ স্টোরি টেলার মিনহাজ আনোয়ার উক্ত অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের সচিব মোঃ সামসুল আরেফিন বলেন যে, সরকারের কাজ হল সুযোগ ও সুবিধা তৈরি করে দেওয়া। স্টার্টআপ বা উদ্যোক্তাদের উচিৎ হবে সেই সুবিধাগুলো গ্রহণ করে নিজেদেরকে সফলতার দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়া। সবশেষে, তিনি এভাবেই নিজেদের দক্ষতা বৃদ্ধি ও উন্নয়নের মাধ্যমে বাংলাদেশকে আরো সমৃদ্ধির পথে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য উদ্যোক্তাদের আহ্বান জানান।

বুটক্যাম্পের সমাপনী অনুষ্ঠানে বিসিসি এর নির্বাহী পরিচালক (গ্রেড-১) রণজিৎ কুমার বলেন যে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা স্মার্ট বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে কাজ করার নির্দেশনা দিয়েছেন এবং এর গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয় হল স্মার্ট সিটিজেন বা জনগন। তিনি আরো বলেন যে, দক্ষ ও স্মার্ট মানব সম্পদ হিসেবে আমাদের জনসাধারণকে জনশক্তিতে পরিণত করে বাংলাদেশকে আরো এগিয়ে নেওয়া সম্ভব।

অনুষ্ঠানের সভাপতি আইডিয়া প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক ও যুগ্ম সচিব মোঃ আলতাফ হোসেন বলেন যে বুটক্যাম্পের এই ১০৩টি স্টার্টআপের মধ্য থেকেই নির্বাচন করা হবে সেরা ৫১ স্টার্টআপ। তিনি বলেন, বিগ ২০২৩ এর পুরস্কার হিসেবে সেরা একটি স্টার্টআপকে গ্র্যান্ট হিসেবে ১ কোটি টাকা অনুদান প্রদান করা হবে। বাকি নির্বাচিত তালিকার সেরা ৫০ স্টার্টআপ এর প্রত্যেককে দেওয়া হবে ১০ লক্ষ টাকা করে অনুদান। তিনি আরো বলেন, স্টার্টআপদের জন্য রয়েছে বিনিয়োগ পাবার সুবিধাসহ নানা সুযোগ। এটা নিশ্চয়ই স্টার্টআপদের আরো অনুপ্রাণিত করবেন বলে আশা ব্যক্ত করেন আইডিয়া প্রকল্প পরিচালক।

যশোর জেলার অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (শিক্ষা ও আইসিটি) মোছাঃ খালেদা খাতুন রেখা স্টার্টআপদের অনুপ্রাণিত করে বলেন যে উদ্যোক্তা বা স্টার্টআপদের আছে অবাধ স্বাধীনতা, আপনারাই ইনোভেটর বা উদ্ভাবক। স্টার্টআপরা চাইলেই তাদের মেধা ও ইচ্ছাশক্তিকে কাজে লাগিয়ে, সর্বত্র বিচরণ করার মাধ্যমে দেশকে সমৃদ্ধ করতে পারেন।

অনুষ্ঠানের স্বাগত বক্তব্যে আইডিয়া প্রকল্পের উপ-প্রকল্প পরিচালক ও উপসচিব ড. মিজানুর রহমান বলেন যে বঙ্গবন্ধু ইনোভেশন গ্র্যান্ট একটি অনুদানই নয়, এটি একটি বিনিয়োগ, যার মাধ্যমে লাভ হবে আমাদের এই দেশের। তিনি আরো বলেন যে, আমাদের রয়েছে ম্যানপাওয়ার এবং এদেরকে দক্ষ ম্যানপাওয়ারে পরিণত করতে পারি আমরা। আমরা চাই যে আপনাদের স্টার্টআপদের মধ্য থেকেই এমন স্টার্টআপ দাড়িয়ে যায় যেন আপনারা একাই এগিয়ে নিয়ে যেতে পারেন আমাদের এই দেশকে উন্নত স্মার্ট বাংলাদেশের দিকে।

বিগ বুটক্যাম্প শেষে অংশগ্রহণকারী স্টার্টআপদের হাতে সনদ তুলে দেন আইডিয়া কর্তৃপক্ষ। উল্লেখ্য, উক্ত বুটক্যাম্পে অংশগ্রহণকারী স্টার্টআপরা অংশ নিবেন বিগ ২০২৩ এর চূড়ান্ত রাউন্ডে। রাউন্ড। এই চূড়ান্ত পর্ব থেকে অভিজ্ঞ বিচারকদের সমন্বয়ে গঠিত সিলেকশন প্যানেলের মাধ্যমে নির্বাচন করা হবে বিগ ২০২৩ এর চূড়ান্ত ফলাফল।

spot_img
আরও পড়ুন
- Advertisment -spot_img

সর্বাাধিক পঠিত

spot_img