Monday, May 20, 2024
spot_img
Homeবিশেষ প্রতিবেদনতথ্যপ্রযুক্তি খাতে জাপানি ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান বেসিস সভাপতির

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে জাপানি ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগের আহ্বান বেসিস সভাপতির

বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের দ্রুত প্রবৃদ্ধির কথা উল্লেখ করে জাপানি তথ্যপ্রযুক্তি ব্যবসায়ীদের বাংলাদেশে বিনিয়োগে আহ্বান জানান বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়ার ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এর সভাপতি রাসেল টি আহমেদ। বুধবার এশিয়ার তথ্যপ্রযুক্তিবিদদের মিলনমেলা হিসেবে খ্যাত জাপানের টোকিও বিগ সাইটে অনুষ্ঠিত জাপান আইটি উইক ২০২৩-এ ‘ডিজিটাল বাংলাদেশ: আপনার আইটি গন্তব্য’ শীর্ষক আয়োজিত একটি সেমিনারে এ আহ্বান জানান তিনি।

বেসিস সভাপতি রাসেল টি আহমেদ বলেন, “তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে বিনিয়োগকারিদের জন্য পরবর্তী গন্তব্য হলো বাংলাদেশ। বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি কোম্পানিগুলো যেকোনো আন্তর্জাতিক চাহিদা অনুযায়ী পণ্য ও সেবা প্রদানে সক্ষম। আন্তর্জাতিক সফটওয়্যার ও অ্যাপ মার্কেটেও বাংলাদেশের সাফল্য ঈর্ষণীয়। ২০৪১ সাল নাগাদ প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার স্মার্ট বাংলাদেশ রূপকল্প বাস্তবায়নে সঠিক পথেই হাঁটছে বাংলাদেশ এবং সরকারের সহযোগী হয়ে কাজ করছে বেসিস। ‘স্মার্ট বাংলাদেশ’ বাস্তবায়নে অর্থনৈতিক উন্নতির জন্য প্রযুক্তির ব্যবহার জানা যুগোপযোগী দক্ষ মানবসম্পদ তৈরি বেসিসের অন্যতম প্রধান লক্ষ্য।”

তিনি আরো বলেন, “স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণে এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি খাতের প্রকৃত উন্নয়নে বেসিস জাপানের আইটি মার্কেট অন্বেষণ এবং বাংলাদেশে জাপানি বিনিয়োগের সুবিধার্থে কয়েক বছর ধরে কাজ করছে। বাংলাদেশের দ্রুতগতির আইটি বা আইটিইএস সেক্টর জাপানি আইসিটি উদ্যোক্তা এবং বিনিয়োগকারীদের জন্য নতুন সম্ভাবনার দ্বার খুলে দিতে প্রস্তুত। জাপান এবং বাংলাদেশের মধ্যে রয়েছে গভীর ভ্রাতৃত্ববোধ। তথ্যপ্রযুক্তি ক্ষেত্রে বাংলাদেশের রয়েছে দক্ষ জনবল আর জাপানের রয়েছে উন্নত তথ্যপ্রযুক্তি। এইক্ষেত্রে বাংলাদেশ ও জাপান দুইদেশের দক্ষতাকে সর্বোচ্চ ব্যবহার করে একসাথে কাজ করলে উভয় দেশই লাভবান হবে আমি আশা করি।”

সেমিনারে মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন বেসিসের পরিচালক এ কে এম আহমেদুল ইসলাম বাবু। তিনি বলেন, “গত কয়েক বছরে জাপান আইটি উইকে অংশগ্রহণ করে বাংলাদেশি আইটি কোম্পানিগুলো ভালো সাড়া পেয়েছে। উভয় দেশের মধ্যে দ্বিপাক্ষিক বাণিজ্য সম্পর্ক জোরদার করণে সম্ভব্য সব রকম সহযোগিতার জন্য বেসিস জাপান ডেস্ক সর্বদা প্রস্তুত।”

এছাড়াও, জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের দূতাবাসের কমার্শিয়াল কাউন্সিলর আরিফুল হক প্রবন্ধ উপস্থাপন করেন। সেমিনারে স্বাগত বক্তব্য প্রদান করেন জাপানে নিযুক্ত বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত শাহাবুদ্দিন আহমদ।

এশিয়ার তথ্যপ্রযুক্তিবিদদের মিলনমেলা হিসেবে খ্যাত ৫-৭ এপ্রিল, ২০২৩ জাপানের টোকিওবিগ সাইটে অনুষ্ঠিত জাপান আইটি উইকে বেসিসের প্রতিনিধিত্বে ১৫টি তথ্য প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান থেকে সর্বমোট ২৭ সদস্যবিশিষ্ট একটি প্রতিনিধিদল এই মেলায় অংশগ্রহণ করছে। প্রতিনিধি দলটির নেতৃত্ব দিচ্ছেন বেসিস সভাপতি রাসেল টি আহমেদ।

এবারের জাপান আইটি উইকে বেসিসের সদস্য ১১টি তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে নিজেদের সেবা প্রদর্শন করবে। প্রতিষ্ঠান গুলো হলোঃ লিডসফট বাংলাদেশ লিমিটেড, ন্যাসেনিয়া, ব্রেইন স্টেশন ২৩, কাওয়াই অ্যাডভান্সড টেকনোলজি অ্যান্ড সলিউশন লিমিটেড, বিজেআইটি লিমিটেড, ড্রিমঅনলাইন লিমিটেড, এ্যাট্রাবিট আইসিটি সলিউশন, এডুসফট কনসালট্যান্টস লিমিটেড, ই-ট্রাকার সলিউশন, দেশলিংক লিমিটেড এবং এক্সিড বাংলাদেশ লিমিটেড।

ভিজিটর হিসেবে অংশ নিচ্ছেন বেসিসের চারটি সদস্য প্রতিষ্ঠান। সেগুলো হলোঃ লিংক ভিশন সফটওয়্যার সলিউশন, আর্কলাইট সিষ্টেমস লিমিটেড, ট্রায়াঙ্গল সার্ভিসেস লিমিটেড এবং পোলাক্স টেকনোলজি সলিউশনস।

জাপান আইটি উইকে অংশগ্রহণকারি বেসিস সদস্যরা বিভিন্ন দেশের সঙ্গে ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য বিভিন্ন সম্মেলন, সেমিনার, কর্মশালা এবং বিটুবি মিটিংয়ে অংশগ্রহণ করবে। মেলায় বেসিস সদস্যদের সেবা সম্পর্কে জানানো এবং বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের ব্র্যান্ডিং করার মাধ্যমে বাংলাদেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের সক্ষমতা তুলে ধরা হবে। পাশাপাশি বিনিয়োগকারি-তথ্যপ্রযুক্তিবিদদের মধ্যে মেলবন্ধন তৈরিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে এই মেলা।

উল্লেখ্য, জাপান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তির ক্ষেত্রে একটি শক্তিশালী অর্থনৈতিক রাষ্ট্র এবং তারা প্রতিবছর প্রযুক্তি ক্ষেত্রে বাণিজ্য এবং উদ্ভাবনকে উন্নীত করার জন্য জাপান আইটি উইক নামে একটি মেগা কনভেনশনের আয়োজন করে। তথ্যপ্রযুক্তি খাতে বিভিন্ন দেশের সাথে ব্যবসা সম্প্রসারণের জন্য বিভিন্ন দেশ, বৈশ্বিক প্রযুক্তি ব্র্যান্ড, ব্যবসায়ী নেতা এবং উদ্ভাবকরা তাদের প্রযুক্তিগত সক্ষমতা প্রদর্শনের জন্য, জাপান আইটি উইকে অংশগ্রহণ করে।

spot_img
আরও পড়ুন
- Advertisment -spot_img

সর্বাাধিক পঠিত

spot_img