Monday, April 22, 2024
spot_img
Homeগ্যাজেটসনতুন পন্যকোকা-কোলা রিয়েলমি

কোকা-কোলা রিয়েলমি

তরুণদের পছন্দের স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি সবসময়ই ট্রেন্ডি ও উদ্ভাবনী কিছু নিয়ে আসতে চেষ্টা করে। এরই ধারাবাহিকতায় সম্প্রতি বিশ্বখ্যাত কার্বোনেটেড সফট ড্রিংক ব্র্যান্ড কোকা-কোলার সাথে যৌথভাবে বিশ্ববাজারে নিয়ে এসেছে রিয়েলমি ১০ প্রো ফাইভজি কোকা-কোলা এডিশনের স্মার্টফোন।

‘ডেয়ার টু লিপ’ মূলমন্ত্র দ্বারা অনুপ্রাণিত রিয়েলমি বিশ্বের অন্যতম আইকনিক ব্র্যান্ড কোকা-কোলার সাথে যৌথভাবে বাজারে নিয়ে এসেছে লিমিটেড এডিশনের এই নতুন ও দুর্দান্ত স্মার্টফোন।

স্মার্টফোনের ডিজাইনে ব্যবহার করা হয়েছে কোকা-কোলার ক্লাসিক লাল-কালো রঙ। ডিভাইসটির ৭০/৩০ অ্যাসিমেট্রিকাল ব্যাক ডিজাইনে ৩ ভাগে কালো রঙ ও বাকি ৭ ভাগে লাল রঙ ব্যবহার করা হয়েছে। ডিজাইনে কোকা-কোলার লোগো নিখুঁতভাবে ফুটিয়ে তোলা হয়েছে যেন তা সহজেই সবার চোখে পড়ে। কোকের লাল রঙ আপনার মধ্যে তৈরি করবে তারুণ্যের ইতিবাচক অনুভূতি। কোকা-কোলার বোল্ড ও বাঁকানো ক্লাসিক লোগোটি ক্রপ করে বসিয়ে স্মার্টফোনের ডিজাইনকে নিয়ে যাওয়া হয়েছে অনন্য উচ্চতায়। এটির ব্যাক ডিজাইনে ম্যাট ইমিটেশন মেটাল প্রসেস ব্যবহার করা হয়েছে যেন স্ক্র্যাচ বা ফিঙ্গারপ্রিন্টের দাগ না পড়ে। ডিভাইসটি তরুণদের ফ্যাশনে নতুনত্ব নিয়ে আসবে।

স্মার্টফোনটির আরেকটি অনবদ্য ফিচার হচ্ছে এর কাস্টমাইজড ইউআই সিস্টেম। ব্যবহারকারীর প্রতিটি মুহুর্ত আনন্দদায়ক করে তুলতে লক স্ক্রিন থেকে শুরু করে চার্জিং ইফেক্ট সবকিছুই কোকের লাল রং ও কোকা-কোলার বাবল এলিমেন্টের ওপর নির্ভর করে ডিজাইন করা হয়েছে। কাস্টমাইজড অভিজ্ঞতা নিশ্চিত করার জন্য এই ফোনে আছে কোকা-কোলা রিংটোন ও কোকা-কোলার বুদবুদ আওয়াজের (ফিজলিং লিকুইড বাবল) মতো নানা দুর্দান্ত সুবিধা। ডিভাইসটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ৮০’র দশকের কোলা ফিল্টারের মতো একই রকম স্পেশাল এডিশনের শাটার সাউন্ড। যার ফলে স্মার্টফোনে ছবি তোলার সময় সত্যিকারের কোক খোলার মতো আওয়াজ হবে।

রিয়েলমি ১০ প্রো ফাইভজি কোকা-কোলা এডিশনে এই সেগমেন্টের সেরা ফিচারগুলো ব্যবহার করা হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে- স্ন্যাপড্রাগন ৬৯৫ ফাইভজি প্রসেসর; ৫,০০০ মিলিঅ্যাম্পিয়ারের সুবিশাল ব্যাটারি ও ১০৮ মেগাপিক্সেল প্রোলাইট ক্যামেরা। এছাড়া, ক্যামেরার সাথে রয়েছে আপডেটেট স্ট্রিট ফটোগ্রাফি মোড ৩.০। ভৌগলিক অবস্থানের ওপর ভিত্তি করে আলাদা সিটি ফিল্টার ব্যবহারের সুযোগ পাবেন ডিভাইসটির ব্যবহারকারীরা। এছাড়াও, ছবি তোলার অভিজ্ঞতা সমৃদ্ধ করতে সুপার গ্রুপ পোর্ট্রেইট ও ওয়ান টেক-এর মতো আরও অনেক অনন্য ফিচার রয়েছে এই স্মার্টফোনে।

ব্যবহারকারীরা যেন তাদের মধুর স্মৃতি সংরক্ষণ করতে পারেন সেজন্য ডিভাইসটিতে রয়েছে ৮জিবি+৮জিবি ডায়নামিক র‍্যাম ও ১ টেরাবাইট পর্যন্ত এক্সটার্নাল মেমোরি সুবিধা। ব্যবহারকারীদের অভিজ্ঞতায় নতুন মাত্রা যোগ করতে বাজারে নিয়ে আসা হয়েছে সম্পূর্ণ নতুনভাবে কাস্টমাইজড করা এই কোকা-কোলা এডিশনের স্মার্টফোন।

spot_img
আরও পড়ুন
- Advertisment -spot_img

সর্বাাধিক পঠিত

spot_img