শক্তিশালী গেমিং স্মার্টফোনের ঘোষণা ইনফিনিক্সের

Infinix

স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স তাদের নতুন ডিভাইস ‘হট ১১এস’ বাজারে আনার কথা জানিয়েছে। অভিনব এই মোবাইল ফোন ব্র্যান্ডটির জন্য দেখা হচ্ছে বড় সাফল্য হিসেবে এবং স্মার্টফোনের বাজারে এটি ইতোমধ্যেই বেশ সাড়া ফেলেছে। ইনফিনিক্সের ‘হট ১১এস’ হচ্ছে প্রথম সারির স্মার্টফোনগুলোর একটি যেটিতে মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৮ ডুয়েল-চিপ গেমিং প্রসেসর, ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট সম্বলিত ৬.৭৮” এফএইচডি+ ডিসপ্লে এবং ৫০ মেগাপিক্সেল আল্ট্রা নাইট ক্যামেরা সংযুক্ত রয়েছে। ভারসাম্যপূর্ণ ও সর্বাধুনিক প্রযুক্তির এসব ফিচার সাথে নিয়ে-ই হট সিরিজ স্লোগান তুলছে ‘গেম অন’।

মূলতঃ মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৮’কে বিবেচনা করা হয় উচ্চ-পারফরম্যান্সের একটি চিপসেট হিসেবে এবং এটির মাধ্যমে দুর্দান্ত গেমিং অভিজ্ঞতা পেতে পারেন গেমিংভক্তরা। এই স্মার্টফোনের শক্তিশালী হেলিও জি৮৮ ডুয়েল-চিপ প্রসেসর দুটি আর্ম কর্টেক্স-এ৭৫ সিপিইউ এর মাধ্যমে মোবাইলের সক্ষমতা বৃদ্ধি করে সর্বোচ্চ ২গিগাহার্টজ পর্যন্ত এবং দ্রুত অ্যাপ লোডিং ও ক্যামেরায় ছবি তোলার ক্ষেত্রে এটিকে আরো ‘রেসপন্সিভ’ অর্থাৎ দ্রুত কর্মক্ষম করে তোলে। ডিভাইসটির অক্টা-কোর গেমারদের স্বাচ্ছন্দ্যে দ্রুত গতির গেম খেলার সুযোগ করে দিচ্ছে। সম-মূল্যের অন্য প্রসেসরগুলোর তুলনায় মিডিয়াটেক হেলিও জি৮৮ এটির পারফরম্যান্সের ভিত্তিতে করা ‘অন্তুতু’ সূচকে সর্বোচ্চ স্কোরের অধিকারী।

ইনফিনিক্স হট ১১এস এর বাংলাদেশি ভার্সনে রয়েছে ৯০ হার্টজ রিফ্রেশ রেট সম্বলিত ৬.৭৮” এফএইচডি+ আলট্রা স্মুথ ডিসপ্লে। এটির ৯০ হার্টজ আলট্রা স্মুথ ডিসপ্লে ফোনটিকে টেকপ্রেমীদের কাছে আরো আকর্ষণীয় করে তুলেছে। কারণ এই বৃহৎ আকারের ডিসপ্লের স্পর্শে কমনীয় অনুভূতি পাওয়া যায় ও পাশাপাশি কোনো ‘ল্যাগিং’ অর্থাৎ ‘ত্রুটি’ অথবা ফ্রেম ড্রপ পরিলক্ষিত হয় না। এছাড়া, স্মার্টফোনের ১৮০ হার্টজ ‘টাচিং স্যাম্পলিং রেট ক্যাপাবিলিটি’ ডিসপ্লেতে আঙুলের উপস্থিতি সহজেই নির্ণয় করতে পারে এবং দ্রুত কাজ করা কিংবা গেমিং এর ক্ষেত্রে স্ক্রিনে আঙুলের অবস্থান সহজে চিহ্নিত করতে সক্ষম হয়।

নতুন আঙ্গিকে আসা ‘হট ১১এস’ এ আরো রয়েছে ৫০ মেগাপিক্সেল ট্রিপল এআই নাইটস্কেপ ক্যামেরা। প্রাইমারি ক্যামেরায় রয়েছে এফ ১.৬ ওয়াইড-অ্যাপারচার সমৃদ্ধ ৫০ মেগাপিক্সেল ট্রিপল লেন্স সক্ষমতায় ছবি তোলার সুযোগ। এর ফলে ব্যবহারকারীরা কম আলোতেও দিন অথবা রাতে যেকোনো সময়ে অসাধারণ সব ছবি ক্যামেরায় বন্দি করতে পারবেন। অপরদিকে স্মার্টফোনের ফ্রন্টে সেলফি তোলার জন্য আছে ডুয়েল এলইডি ফ্ল্যাশ সম্বলিত ৮ মেগাপিক্সেল ওয়াইড-অ্যাঙ্গেল বিশেষ ক্যামেরা। এছাড়া সামনে ও পেছনে উভয় ক্যামেরায় রয়েছে এআই ফিচার। এই উন্নত প্রযুক্তি ভালো মানের ছবি তুলতে সাহায্য করবে।

ইনফিনিক্সের বহুল আলোচিত এই ‘হট ১১এস’ স্মার্টফোনে আরো আছে ৫০০০ এমএএইচ ব্যাটারি, যেটির সাহায্যে একনাগাড়ে ১৩ ঘণ্টা গেম খেলা যাবে এবং এটি একইসঙ্গে ৬০ দিন ‘স্ট্যান্ডবাই টাইম’ অর্থাৎ টানা চলতে পারবে। ব্যাটারির ‘পাওয়ার ম্যারাথন টেকনোলজি’র কারণে মাত্র ৫ শতাংশ চার্জেও মোবাইলটিতে কথা বলা যাবে অতিরিক্ত দুই ঘণ্টা। ‘হট ১১এস’ স্মার্টফোনে ১৮ওয়াট ফাস্ট চার্জের ব্যবস্থা রয়েছে ও এটি টাইপ-সি চার্জার ব্যবহার উপযোগী। নিরাপদ প্রযুক্তির নমুনা হিসেবে ইনফিনিক্সের এই স্মার্টফোনটি শতভাগ চার্জ গ্রহণের পর স্বয়ংক্রিয়ভাবে বন্ধ হয়ে যায়।

অত্যাধুনিক এই ডিভাইসটির ৪জিবি র‌্যাম এবং ৬জিবি র‌্যাম এর দুটি ভার্সন আছে এবং উভয় ভার্সনেই রয়েছে ১২৮জিবি রম। গত কয়েক সপ্তাহ ধরেই ইনফিনিক্স ১১এস নিয়ে টেকপাড়ায় গুঞ্জন শোনা যাচ্ছে। এ নিয়ে দেশের ক্রমবর্ধমান স্মার্টফোন ব্যবহারকারী বিশেষ করে গেমিংভক্তদের মাঝে কৌতূহল দেখা দিয়েছে।

এবার সব রহস্যের ইতি টেনে জানা যাচ্ছে, ইনফিনিক্স ‘হট ১১এস’ এর ৪জিবি র‌্যাম ভার্সনটির দাম মাত্র ১৪,৯৯০/= টাকা ও ৬জিবি র‌্যাম ভার্সনটির দাম নির্ধারিত হয়েছে ১৫,৯৯০/= টাকা। গ্রাহকরা গ্রিন ওয়েভ এবং পোলার ব্ল্যাক এই দুটি রঙে পেতে পারবেন স্মার্টফোনটি। দেশের শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স সাইট ‘দারাজ’ ও ‘পিকাবো’তে ইনফিনিক্স ভক্তদের জন্য রয়েছে আগামী ২০ অক্টোবর থেকে ২২ অক্টোবর পর্যন্ত প্রিয় রঙ ও পছন্দের ভার্সনে স্মার্টফোনটি প্রি-অর্ডারের সুযোগ।

ইনফিনিক্স ‘হট ১১এস’ সিরিজ এর চমৎকার ফিচার, বাজেট সাশ্রয়ী ব্যবহার উপযোগিতা ও অনিন্দ্য সুন্দর ডিজাইন- সবমিলিয়ে বলা চলে এটি একটি সর্বাধুনিক প্রযুক্তির স্মার্টফোন।

*

*