প্রচারিত হচ্ছে ‘সময় এখন ডিজিটাল সাদাছড়ির’ ডকুমেন্টারি

Documentary2

তথ্যপ্রযুক্তি খাতে এগিয়ে চলছে বাংলাদেশ। সমাজের অন্যান্য খাতে উন্নয়নের মতো সরকারের আইসিটি ডিভিশনের মাধ্যমে যারা দৃষ্টি প্রতিবন্ধী তাদের জন্য সরকারের নানা উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। ‘ডিজিটাল সাদাছড়ি, নিরাপদে পথ চলি’—প্রতিপাদ্য নিয়ে এ বছর সারা বিশ্বের মতো বাংলাদেশেও পালিত হয়েছে বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস। বিশ্বে ২ কোটি ৫০ লাখ মানুষ পুরোপুরি অথবা আংশিকভাবে চোখে দেখে না। দেশের জনসংখ্যার একটি অংশ দৃষ্টিপ্রতিবন্ধকতার শিকার। বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস উপলক্ষে বাংলাদেশ টেলিভিশন (বিটিভি) ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে সরকারের বিভিন্ন উদ্যোগ ও দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের নানান সুযোগ নিয়ে ‘সময় এখন ডিজিটাল সাদাছড়ির’ একটি ডকুমেন্টারি প্রচারিত হচ্ছে। দৃষ্টিপ্রতিবন্ধীদের সামাজিক অধিকার ও তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে তাদের জীবনে যে পরিবর্তন এসেছে তারই বিভিন্ন বিষয় ডকুমেন্টারিতে প্রামাণ্য হিসেবে উপস্থাপন করা হয়েছে। ডকুমেন্টারির প্রযোজক মাহবুবা ফেরদৌস জানান, ‘এই ডকুমেন্টারির মাধ্যমে আমরা দৃষ্টি প্রতিবন্ধীরা সমাজের যেসব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করছে ও তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে কিভাবে সামনে এগিয়ে যাচ্ছে সে বিষয়গুলো তুলে ধরেছি।’ যুক্তরাষ্ট্রের স্টেট ডিপার্টমেন্টের প্রোফেশনাল ফেলো ও প্রামাণ্য চিত্রের গবেষক জাহিদ হোসেন খান আশা জানান, ‘জাতিসংঘ স্বীকৃত একটি দিবস বিশ্ব সাদাছড়ি নিরাপত্তা দিবস। দেশে ১৪ লাখের বেশি মানুষ দৃষ্টি প্রতিবন্ধকতার মুখোমুখি। এই প্রেক্ষিতে আসছে সময়ের ৪র্থ শিল্প বিপ্লব ও তথ্যপ্রযুক্তির মাধ্যমে আমাদের দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের কিভাবে কার্যকর সমাজে একীভূত করা যায় তা নিয়ে নানান কাজ চলছে। সেই সকল কাজের প্রেক্ষিতকেই এই প্রামাণ্য ডকুমেন্টারির মাধ্যমে তুলে ধরা হয়েছে।’

‘সময় এখন ডিজিটাল ছড়ির’ প্রামাণ্য অনুষ্ঠানটি প্রযোজনা করেছেন মাহবুবা ফেরদৌস। প্রামাণ্য এ আয়োজনের গবেষণা ও গ্রন্থনা করেছেন জাহিদ হোসাইন খান আশা এবং সম্পাদনা ও নির্মাণে যুক্ত আছেন ইকবাল মুন্না। উল্লেখ্য, গত এক দশকে তথ্যপ্রযুক্তি দৃষ্টি প্রতিবন্ধী মানুষের জীবনের নানান পরিবর্তন এনেছে। এখন দেশে ডিজিটাল সাদাছড়ি উৎপাদন করে দৃষ্টি প্রতিবন্ধীদের মাঝে সরকারিভাবে দেয়া হচ্ছে। ডিজিটাল হোয়াইট কেইন বা সাদাছড়িতের থাকে অটোমেটিক নাইট ভিশন ও সিকিউরিটি মুড। স্মার্ট সাদাছড়ি বাংলাসহ কয়েক ভাষায় কথা বলে ও ভাইব্রেশনের মাধ্যমে বুঝিয়ে দেয় প্রতিবন্ধকতার উপস্থিতি ও মাত্রা। সামনে ৯০ ও পাশে ৩০ ডিগ্রির মধ্যে কোন প্রতিবন্ধকতা পেলে ছড়ির মাধ্যমে জানা যায়। অন্ধকারে স্মার্ট সাদাছড়ি অটোমেটিক নাইটমুড অন্যদের বুঝিয়ে দিচ্ছে ব্যবহারকারীর উপস্থিতি।

বাংলাদেশ টেলিভিশন ও বিটিভি ওয়ার্ল্ডে প্রচারিত বিশেষ প্রামাণ্য অনুষ্ঠান ‘সময় এখন ডিজিটাল ছড়ির’ দেখার আইসিটি ডিভিশনের ইউটিউব লিংক: https://www.youtube.com/watch?v=NL-_C9QI-es

*

*