ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর) এর কার্যক্রম পরীক্ষামূলক ভাবে চালু

NIER

মোবাইল ফোনের  নিবন্ধন সংশ্লিষ্ট ন্যাশনাল ইকুইপমেন্ট আইডেন্টিটি রেজিস্টার (এনইআইআর) এর কার্যক্রম  পরীক্ষামূলক ভাবে চালু করা হয়েছে।  বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি) এর চেয়ারম্যান জনাব শ্যাম সুন্দর শিকদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত ভার্চুয়াল অনুষ্ঠানে এর উদ্ধোধন করেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মাননীয় মন্ত্রী জনাব মোঃমোস্তাফা জব্বার। এনইআইআর চালুর ফলে অবৈধ হ্যান্ডসেটের ব্যবহার বন্ধের পাশাপাশি কমবে মোবাইল ফোন চুরি সংক্রান্ত অপরাধ। দেশীয় মোবাইন ফোন শিল্পের প্রসারের পাশাপাশি বাড়বে সরকারের রাজস্ব আয়।

এনইআইআর কার্যক্রমের অংশ হিসেবে বিগত ৩০ জুন ২০২১ তারিখের মধ্যে চালু থাকা সব মোবাইল হ্যান্ডসেট স্বয়ংক্রিয় ভাবে নিবন্ধিত হওয়ায় ০১ জুলাই ২০২১ তারিখের পরে সেগুলো বন্ধ হবে না এবং কোনো গ্রাহক নতুন মোবাইল ফোন চালু করলে তা বন্ধ না করেইএনইআইআর এর মাধ্যমে যাচাই করা হবে। হ্যান্ডসেটটি বৈধ হলে স্বয়ংক্রিয় ভাবে নিবন্ধিত হয়ে যাবে।

উদ্ধোধনী অনুষ্ঠানের  শুরুতে স্বাগত বক্তব্যে এনইআইআর বাস্তবায়নে নিজ অভিজ্ঞতার কথা তুলে ধরেন বিটিআরসির স্পেকট্রাম বিভাগের কমিশনার প্রকৌশলী এ.কে.এম.শহীদুজ্জামান।  তিনি আরো বলেন, এনআইআর সিস্টেমটি মাল্টিফাংশনাল। মুল সিস্টেমটি ঠিক রেখে সময়ের চাহিদার নিরিখে এর আপডেট করা যাবে। এরপর এনইআইআর এর কারিগরী বিভিন্ন বিষয় এবং পুরো সিস্টেম নিয়ে বিশদ উপস্থাপনা করেন একই বিভাগের মহাপরিচালক ব্রিগেঃজেনাঃমোঃশহীদুল আলম, পিবিজিএমএস।

এরপর মোবাইল অপারেটরগণ এনইআইআর কার্যক্রমের সাথে তাদের সম্পৃক্ত তার কারিগরী দিকগুলো প্রদর্শন করেন এবং পরবর্তীতে এনইআইআর সংক্রান্ত সিটিজেন পোর্টালে প্রবেশ করে গ্রাহক কিভাবে সেবা নিবে তার কারিগরী বিভিন্ন দিক উপস্থাপন করে বিটিআরসি কর্তৃক নিযুক্ত প্রযুক্তি প্রতিষ্ঠান সিনেসিস আইটি লিমিটেড।

অনুষ্ঠানে টেলিটকের ব্যবস্থাপনা পরিচালক প্রকৌশলী মো: সাহাবউদ্দিন বলেন, এনইআইআর চালুর ফলে টেলিকম খাতে শৃংখলা ফিরে আসবে। দেশে ফোরজি সেট ব্যবহারকারী মাত্র ২৮ ভাগ উল্লেখ করে স্মার্টফোন ব্যবহার বাড়াতে মোবাইল ফোনের দাম বিবেচনা করতে সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ জানান তিনি।

এনইআইআর সিস্টেম টেলিকম খাতের একটা মাইলফলক উল্লেখ করে গ্রামীণফোনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ইয়াসির আজমান বলেন, বর্তমান সরকারের ভিশন ২০৪১ বাস্তবায়নে টেলিকম প্রযুক্তি বড় ভূমিকা পালন করবে।

অনুষ্ঠানে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মাননীয় সচিব মোঃআফজাল হোসেন বলেন, এনইআইআর চালুর ফলে অবৈধ ও নকল হ্যান্ডসেট আমদানি ও বিক্রি বন্ধ হবে এবং সাইবার অপরাধ কমবে। গ্রামের সাধারণ মানুষ ও যাতে এনইআইআর সর্ম্পকে অবগত হয় সেল ক্ষ্যেব্যাপকপ্রচারণারওপরগুরুত্বারোপকরেনতিনি।

উদ্ধোধনী বক্তব্যে ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার দেশের সকল মোবাইল ফোন ব্যবহারকারীকে নিবন্ধনের আওতায় আনার পাশাপাশি গ্রাহক যাতে কোন ভাবে ভোগান্তি বা হয়রানির শিকার না হয়,  সে বিষয়ে নজর দেয়ার পরামর্শ দেন।বায়োমেট্রিক সিম নিবন্ধন চালুর ফলে অপরাধী দ্রুত সনাক্ত হচ্ছে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, সিমের সাথে হ্যান্ডসেট নিবন্ধন চালুর ফলে সমাজ ও রাষ্ট্র অধিকতর নিরাপদ হবে।

*

*