কোড ছাড়াই অ্যাপ তৈরি

Appmaker+

দেশের একমাত্র কোডিংয়ের প্রয়োজনহীন অ্যান্ড্রয়েড অ্যাপ ডেভলপমেন্ট প্ল্যাটফর্ম অ্যাপমেকার+ চালু করল দেশের শীর্ষ ডিজিটাল সেবা প্রদানকারী কোম্পানি রবি। প্ল্যাটফর্মটির সাহায্যে যে কেউ কোডিংয়ের অভিজ্ঞতা ছাড়াই অ্যাপ তৈরি করতে পারবেন। টুলটি পাওয়া যাবে অ্যাপমেকার+’র ওয়েবসাইটে- www.appmakerplus.com ।

গতকাল রবিবার, এপ্রিল ২৫, ২০২১ এই টুলটি উদ্বোধন উপলক্ষে ‘দ্য ফিউচার ইজ নো-কোড’ শীর্ষক একটি ওয়েবিনার’র আয়োজন করা হয়।

অ্যাপমেকার+ হচ্ছে প্রচলিত অ্যাপ এবং সফটওয়্যার ডেভেলপমেন্টের একটি সহজ ও কার্যকর বিকল্প। এর ফলে নন-ডেভেলপাররাও তাদের ধারণাগুলো বাস্তবে রূপ দেয়ার সুযোগ পাবেন। সহজাত প্রতিভা দিয়েই অ্যাপ ডেভেলপ করার মতো এই টুলটিতে রয়েছে একটি সমৃদ্ধ টেমপ্লেট লাইব্রেরি। এর মাধ্যমে যে কেউ অ্যাপ ডেভেলপ করতে পারবেন এবং কোনও কোড অথবা কোডিংয়ের অভিজ্ঞতা ছাড়াই অ্যাপমেকার+’র মাধ্যমে মাত্র দশ মিনিটে একটি কার্যকর অ্যাপ্লিকেশন তৈরি করা সম্ভব।

ওয়েবিনার-এ অংশ নিয়েছেন রবি আজিয়াটা লিমিটেড’র চিফ কমার্শিয়াল অফিসার শিহাব আহ্মাদ, আইসিটি বিভাগের স্কিল ডেভেলপমেন্ট ফর মোবাইল গেম অ্যান্ড অ্যাপ্লিকেশন প্রজেক্টের প্রজেক্ট ডিরেক্টর মোহাম্মদ আনোয়ারুল ইসলাম, বেসিস’র প্রেসিডেন্ট সৈয়দ আলমাস কবীর, এসবিকে টেক ভেঞ্চারস’র ম্যানেজিং ডিরেক্টর সোনিয়া বশির কবির, এইচটিটিপুল’র কান্ট্রি ডিরেক্টর এবং স্পাইডার ডিজিটাল’র ফাউন্ডার কাজী মনিরুল কবির এবং অ্যামাজন ওয়েব সার্ভিস, যুক্তরাষ্ট্র’র সলিউশন আর্কিটেক্ট মোহাম্মদ মাহদী-উজ-জামান।

রবি’র চিফ কমার্শিয়াল অফিসার শিহাব আহ্মাদ বলেন, “একটি ডিজিটাল কোম্পানি হিসেবে সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে প্রতিনিয়ত উদ্ভাবনী পণ্য ও সেবা বাজারে আনছে রবি। অন্যদিকে দেশের তরুণ সমাজের অগ্রগতিতে বরাবরই সম্পৃক্ত আমরা। সেই ধারাবাহিকতায় কোডিং ছাড়া অ্যাপ তৈরির টুল আনল রবি। এর ফলে দেশের তরুণরা উপার্জনের একটি বিকল্প খুুঁজে পাবেন বলে আমার বিশ্বাস; পাশাপাশি তাদের প্রযুক্তিগত উদ্ভাবনে এগিয়ে যাবে দেশ।”

ডেভেলপারস ও ফ্রিল্যান্সার্স, এসএমই এবং বিভিন্ন ই-কমার্স পেইজসহ প্রাথমিক পর্যায়ের স্টার্টআপদের কাজে লাগবে অ্যাপমেকার+। এর মাধ্যমে দেশের শিক্ষার্থী, ডেভেলপার ও ফ্রিল্যান্সাররা খুব সহজে আয়ের সুযোগ তৈরি করতে পারবেন।

ডিজিটাল বাংলাদেশ গড়ে তোলার অগ্রগতিতে এটি এক মাইলফলক অর্জন। রবি’র উদ্যোগে গড়ে ওঠা বিডিঅ্যাপস’কে সম্প্রতি জাতীয় অ্যাপ স্টোর ঘোষণা এরই প্রতিফলন।

*

*