উদ্যোক্তাদের সক্ষমতা বাড়াতে ই-ক্যাবের ইনভেস্টমেন্ট রেডিনেস প্রোগ্রাম

e-CAB Investment Program

২৬ এপ্রিল সন্ধ্যা ৭টায় ই-ক্যাব ও ডেফোডিল গ্রুপের যৌথ আয়োজনে ই-কমার্স উদ্যোক্তাদের ঋণ পাওয়ার সক্ষমতা বাড়াতে ইনভেস্টমেন্ট রেডিনেস প্রোগ্রামের আয়োজন করা হয়।

ই-ক্যাব এবং ড্যাফোডিল গ্রুপের যৌথ আয়োজনে ‘‘ইনভেস্টমেন্ট রেডিনেস’’ বিষয়ক এই কর্মসূচীর আওতায় উদ্যোক্তাদের ঋণ ও বিনিয়োগ পাওয়া সংক্রান্ত দক্ষতা বৃদ্ধির প্রশিক্ষণ দেয়া হবে। এই প্রশিক্ষণের মাধ্যমে একজন উদ্যোক্তা বিনিয়োগকারীর সামনে নিজের উদ্যোগকে উপস্থাপন করা, সঠিক নিয়ম মেনে বিনিয়োগকারীর কাছ থেকে বিনিয়োগ পাওয়া এবং এসংক্রান্ত প্রস্তুতি নিতে পারবেন । এতে শুধুমাত্র ই-ক্যাবের সদস্যরা অংশ নিতে পারবে।
প্রধান অতিথি ওয়ার্ল্ড অ্যাঞ্জেল ইনভেস্টমেন্ট ফোরামের সিনেটর এবং ড্যাফোডিল গ্রুপের সিইও মোঃ নুরুজ্জামান বলেন, অ্যাঞ্জেলস এবং স্টার্টআপস সংযোগ বিভাগসমূহের জন্য অন্যতম এটা গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ হতে পারে ।

ই-ক্যাবের প্রেসিডেন্ট শমী কায়সার বলেন, ই-কমার্স ইন্ডাস্ট্রি যেভাবে বড়ো হচ্ছে এখানে কর্মীদের যেমন দক্ষতা বৃদ্ধি পাচ্ছে তেমনি উদ্যোক্তারও বিনিয়োগ পাওয়ার ব্যাপারে সক্ষমতা বাড়ানো দরকার। এই সক্ষমতার অভাবে দেশে বহু তরুদের বহু সৃজনশীল উদ্যোগ আলোর মুখ দেখছেনা। তাই এটি একটি সময়োপযোগী উদ্যোগ।

ওয়াল্ড এন্টারপ্রেনারশিপ নেটওয়ার্ক এর ডিরেক্টর আসিফ ইকবাল মূল আলোচনায় বলেন, উদ্যোক্তাদের কাছে শুনতে পাই তারা বিনিয়োগ পাচ্ছেন না। আবার বিনিয়োগকারীদের কাছে শুনি  তারা সেরকম উদ্যোক্তা পাচ্ছে না যাদেরকে  লগ্নি করা যায় । সহজ কথায় বিনিয়োগ পাওয়ার জন্য যে প্রকার সক্ষমতা বা  প্রস্তুতি দরকার সে ঘাটতিটা দূর হবে এই কার্যক্রমের মাধ্যমে।

উক্ত কার্যক্রমের টিম লিডার হিসেবে নেতৃত্ব দিচ্ছেন ই-ক্যাবের অর্থ সম্পাদক মোহাম্মদ আব্দুল হক অনু। তিনি বলেন, প্রথম পর্যায়ে ৩০জন ই-ক্যাব সদস্য নিয়ে  ওরিয়েন্টেশন প্রোগ্রামটি  শুরু করছি। আমরা আবেদনকারীদের মধ্য থেকে প্রথম ৩০ জনকে নির্বাচন করেছি। পর্যায়ক্রমে এভাবে ৩০ জন করে প্রতিটি সেশন অনুষ্ঠিত হবে। আমরা আশা করছি এই উদ্যোগের মাধ্যমে উদ্যোক্তারা উপকৃত হবেন এবং তাদের জন্য ঋণ ও বিনিয়োগ পাওয়া সহজ হবে।

বিডার ডিরেক্টর জনাব আরিফুল হক বলেন, তহবিল সংগ্রহ, বিজনেস মডেলিং, প্রজেক্ট ফাইলিং ও পিচিং এগুলো দিকে মনোযোগ দিলে উদ্যোক্তাদের জন্য বিনিয়োগ পাওয়া সহজ হবে। এই ধরনের প্রোগ্রাম ভবিষ্যত উদ্যোক্তাদের জন্য অনেক সহায়ক হবে এবং তিনি এ ধরনের কার্যক্রমে বিডা থেকে পাশে থাকার আশ্বাস দেন।

সমন্বয়কারী হিসেবে আছেন ই-ক্যাবের  ইনভেস্টমেন্ট স্ট্যান্ডিং কমিটির ভাইস চেয়ারম্যান  ফারহা মাহমুদ তৃণা। তিনি বলেন, বর্তমানে ই-কমার্স সেক্টরে বিনিয়োগ ঋণের যেমন সংকট রয়েছে তেমনি বিনিয়োগ পাওয়ার জন্য উদ্যোক্তাদের দক্ষতারও অভাব রয়েছে। অনেকেই এসংক্রান্ত প্রস্তুতি সম্পর্কে জানেন না। তাই ই-ক্যাব এই উদ্যোগ গ্রহণ করেছে।

সহযোগিতায় রয়েছেন ই-ক্যাব, প্রোগ্রাম সেক্রেটারি শাখাওয়াত হোসাইন শুভ, সদস্য হিসেবে আছেন মোহাম্মদ রুহুল কুদ্দুস ছোটন, চেয়ারম্যান ব্র্যান্ডিং এন্ড মার্কেটিং কমিটি, ই ক্যাব।

ড্যাফোডিল গ্রুপ থেকে এ বিষয়ে সহযোগিতা করছেন মোহাম্মদ নুরুজ্জামান , সিনেটর ওয়ার্ল্ড বিজনেস ইনভেস্টমেন্ট ফোরাম , গ্রুপ সি ই ও ড্যাফোডিল ফ্যামিলি এবং আসিফ ইকবাল , ডিরেক্টর গ্লোবাল এন্ট্রেপ্রেনিউরশিপ নেটওয়ার্ক বাংলাদেশ , কান্ট্রি ডিরেক্টর এন্ট্রেপ্রেনিউরশিপ ওয়ার্ল্ড কাপ বাংলাদেশ।

*

*