Monday, May 20, 2024
spot_img
Homeগ্যাজেটসনতুন পন্য২৬০ ওয়াটের ফাস্ট-চার্জার আনল ইনফিনিক্স

২৬০ ওয়াটের ফাস্ট-চার্জার আনল ইনফিনিক্স

২৬০ ওয়াটের ফাস্ট-চার্জার বাজারে এনেছে বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড ইনফিনিক্স। মাত্র সাড়ে সাত মিনিটেই ফোনের চার্জ পূর্ণ করবে এই চার্জার। বৃহস্পতিবার (৯ মার্চ) প্রতিষ্ঠানটি একইসাথে তাদের ১১০ ওয়াটের ওয়্যারলেস ফাস্ট চার্জারও উন্মোচন করেছে। এর মাধ্যমে স্মার্টফোন চার্জিং প্রযুক্তিতে কয়েক ধাপ এগিয়ে গেল ইনফিনিক্স।

গ্রাহকদের অল-রাউন্ড ফাস্টচার্জ সমাধান দিতে আসন্ন নোট সিরিজে এই চার্জার অন্তর্ভুক্ত করবে ইনফিনিক্স। ২৬০ ওয়াটের এই অল-রাউন্ড ফাস্টচার্জার দিয়ে মাত্র ১ মিনিটেই ফোন চার্জ করা যাবে শূণ্য থেকে ২৫ শতাংশ পর্যন্ত। আর শূণ্য থেকে থেকে সম্পূর্ণ চার্জ হতে সময় লাগবে মাত্র ৭.৫ মিনিট। এছাড়াও, ১১০ ওয়াটের ওয়্যারলেস ফাস্টচার্জার দিয়ে মাত্র ১৬ মিনিটে পুরো চার্জ করা যাবে ইনফিনিক্সের ফোন।

ইনফিনিক্সের ডেপুটি জেনারেল ম্যানেজার লিয়াং ঝ্যাং বলেন, “গ্রাহকদের নিয়ত পরিবর্তনশীল চাহিদার সাথে সঙ্গতি রেখে চার্জিং প্রযুক্তিকে উন্নত করতে দীর্ঘদিন যাবত কাজ করছে ইনফিনিক্স। ২৬০ ওয়াট ও ১১০ ওয়াট ওয়্যারলেস অল-রাউন্ড ফাস্ট-চার্জ প্রযুক্তি বাজারে আনতে পেরে আমরা সত্যিই আনন্দিত। আমাদের অল-রাউন্ড ফাস্টচার্জ সল্যুশন, ফাস্ট চার্জিংয়ের ক্ষেত্রে একটি নতুন মানদণ্ড নির্ধারণ করে দিয়েছে। আমরা এই উদ্ভাবনের মাধ্যমে ইনফিনিক্স ব্যবহারকারীদের একটি সেরা চার্জিং অভিজ্ঞতা প্রদান করতে চেষ্টা করেছি।”

ইনফিনিক্সের অত্যাধুনিক এই অল-রাউন্ড ফাস্টচার্জ প্রযুক্তি যেকোনো পরিবেশে গ্রাহকদের চার্জিংয়ের প্রয়োজনীয়তা মেটাতে পারবে। ৫জি-র এই যুগে ফোন চার্জ নিয়ে সকল দুশ্চিন্তা থেকে গ্রাহকদের মুক্তি দেবে এই প্রযুক্তি।

ইনফিনিক্সের প্রথম প্রজন্মের অল-রাউন্ড ফাস্টচার্জ সল্যুশনে আছে দারুণ সব ফিচার। গ্রাহকরা এখন স্থানভেদে বিভিন্ন উপায়ে নিজেদের ফোন চার্জ দিতে পারবেন। দ্রুত, সহজ, স্মার্ট ও নিরাপদ চার্জিং সমাধান পাওয়া যাবে কোনো পাওয়ার সোর্সে আটকে না থেকেও।

উদ্ভাবনী এই সল্যুশনে তারযুক্ত ও তারহীন ফাস্ট চার্জিং ছাড়াও আছে রিভার্স চার্জিং, বাইপাস চার্জিং এবং মাল্টি-প্রটোকল চার্জিংয়ের মতো ব্যবস্থা। ফলে ফাস্ট চার্জিংয়ে

অনন্য অভিজ্ঞতা দেবে ইনফিনিক্স। রিভার্স চার্জিং ব্যবস্থা থাকায়, এখন থেকে ফোনই হবে পোর্টেবল চার্জার। একইসাথে নাইট চার্জিং ও বাইপাস চার্জিংয়ের মতো ইন্টিলিজেন্ট চার্জিং ব্যবস্থা এবং মনিটরিং ফিচারও থাকছে নিরাপদ চার্জিংয়ের জন্য। পাশাপাশি এই ফিচারগুলো ফোনের ব্যাটারির তাপমাত্রা কমিয়ে রাখে এবং ব্যাটারি লাইফ বাড়াতে সাহায্য করে।

ইনফিনিক্সের উদ্ভাবনী এই সমাধানে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পেয়েছে চার্জিংয়ের নিরাপত্তাব্যবস্থা। ব্যবহার করা হয়েছে ১৪০টির বেশি প্রোটেকশন মেকানিজম এবং ২০টির বেশি টেম্পারেচার সেন্সর। যার ফলে প্রতিকূল পরিবেশেও ব্যবহার করা যাবে ইনফিনিক্সের ফোন।

spot_img
আরও পড়ুন
- Advertisment -spot_img

সর্বাাধিক পঠিত

spot_img