১১ নভেম্বর ঢাকায় অনুষ্ঠিত হবে কাজী আইটি ক্যারিয়ার বুট ক্যাম্প

KITC_02

একসাথে ৬ হাজার চাকুরি প্রত্যাশির অংশগ্রহন। সবাই তাকিয়ে দেখছে দেশসেরা করপোরেট ট্রেইনারদের বিভিন্ন বিষয়ের উপর আলোচনা। ট্রেনিং শেষ এবার কি শিখেছেন তা জানাতে তৈরি করতে হবে একটা প্রেজেন্টেশন। আর তাতেই আপনি চাকুরি পাওয়ার প্রথম ধাপটি শেষ করে ফেললেন। প্রশ্ন হতে পারে শুধু কি ৬ হাজারই সুযোগ পাবে। না আপনি চাইলে দেশের যে কোন প্রান্ত থেকে ফেসবুক ফ্যান পেজে (facebook.com/kaziitbd) সরাসরি দেখে একই কাজ করতে পারেন। তাতে আপনিও পাচ্ছেন চাকরি পাওয়ার সমান সুযোগ। ঠিক এমন আয়োজনই করতে যাচ্ছে দেশের শীর্ষস্থানীয় আইটি প্রতিষ্ঠান কাজী আইটি সেন্টার। প্রতিষ্ঠানটি যুক্তরাষ্ট্রের হলেও বাংলাদেশে নিজেদের কার্যক্রম বাড়াতে ব্যাপক প্রস্তুতি নিয়েছে। রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আর্ন্তজাতিক সম্মেলন কেন্দ্রের (বিআইসিসি) হল অব ফেমে আগামী ১১ নভেম্বর শনিবার অনুষ্ঠিত হবে কাজী আইটি ক্যারিয়ার বুটক্যাম্প। এই আয়োজনে সহযোগিতায় রয়েছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট এন্ড গর্ভন্যান্স (এলআইসিটি) প্রকল্প।

গত ১ নভেম্বর বুধবার কাজী আইটির প্রধান কার্যালয়ে সাংবাদিকদের সাথে এক মত বিনিময় সভায় কাজী আইটির প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও মাইক কাজী এসব কথা বলেন। তিনি জানান, ঠিক কতো জনবল নেওয়া হবে তার কোন সীমাবদ্ধতা নেই। মোট তিনটি শাখার জন্য এনালিস্ট বিজনেস ডেভেলপমেন্ট, টিম লিডার, এ্যাসিটেন্ট ম্যানেজার, ম্যানেজার সহ বিভিন্ন পদে জনবল নেয়া হবে। অংশগ্রহনকারিদের মধ্যে যাদেরকে যোগ্য মনে হবে নিয়োগ পাবে সবাই। রাজধানীর নিকুঞ্জে প্রধান অফিস, ধানমন্ডির শাখা অফিস ও রাজশাহী অফিসের জন্য ডে এবং নাইট শিফটে এদেরকে নিয়োগ দেয়া হবে। মাইক আরো বলেন, কাজী আইটিতে কাজ করতে প্রথমত থাকতে হবে ইংরেজীতে ভালো দক্ষতা। এর বাইরে ভালো প্রেজেন্টেশন স্কিল, নেগোসিয়েশন স্কিল এসব দরকার হয়। এর কারন হলো কাজী আইটি মূলত যুক্তরাষ্ট্রের বিভিন্ন ব্যাংকের কাজ করে। এর জন্য ইংরেজির কোন বিকল্প নাই।

দিনব্যাপী এই আয়োজনে অংশগ্রহনের জন্য এরই মধ্যে প্রচুর চাকুরিপ্রার্থী রেজিষ্ট্রেশন শেষ করেছে বলে জানালেন মাইক কাজী। তিনি বলেন, বাংলাদেশে এত বিশাল জনশক্তিকে কাজে লাগাতে দেশে আমাদের কার্যক্রম বাড়ানোর পরিকল্পনা হাতে নিয়েছি। অংশগ্রহনকারিদের মাইক কাজী পরামর্শ দিলেন পুরো ট্রেনিং মনোযোগ দিয়ে দেখতে এবং নোট তৈরি করতে। যা পরবর্তীতে তাদের প্রেজেন্টেশন তৈরিতে সহায়ক হবে। তিনি বলেন, আমরা আশা করছি কাঙ্খিত জনবল পাবো। বুট ক্যাম্পের দিনই আমরা কয়েকজনকে নিয়োগ দিবো। বাকিরা আমাদের স্বাভাবিক নিয়মে আসবে। সাংবাদিকদের সাথে মত বিনিময় সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন কাজী আইটির চিফ অপারেটিং অফিসার জন রিডেল, মানব সম্পদ বিভাগের প্রধান সাদিকুর রহমান ও সিনিয়র এক্সিকিউটিভ জয়ন্ত পাল প্রমুখ।

অনুষ্ঠানে জানানো হয়, কাজী আইটি ক্যারিয়ার বুটক্যাম্প আয়োজনে যারা অংশগ্রহন করতে ইচ্ছুক তারা https://goo.gl/haex9P এই লিংকে গিয়ে এখনই রেজিস্ট্রেশন করতে পারবেন। রেজিস্ট্রেশনের জন্য কোন ফি লাগবে না। রেজিস্ট্রেশন করা যাবে ৮ নভেম্বর পর্যন্ত। প্রাথমিক বাছাইয়ের পর কাজী আইটির এইচ আর টিম ইনভাইটেশন লেটার পাঠাবে।

ইনভাইটেশন লেটারের প্রিন্ট কপি ও এসএমএসের মাধ্যমে কনফার্ম হয়ে অংশগ্রহন করার অনুরোধ জানিয়েছে কাজী আইটি কর্তৃপক্ষ। কাজী আইটি ক্যারিয়ার বুট ক্যাম্পে ফিউচার লিডারের লিড কনসালটেন্ট ও সিইও কাজী এম আহমেদ, মোটিভেশনাল স্পিকার জি. সামদানি ডন, রবি-টেনমিনিট স্কুলের উদ্যোক্তা আয়মান সাদিক, হিউম্যান ক্যাপাসিটি ডেভেলপমেন্ট ও হসপিটালিটি ম্যনেজমেন্ট বিশেষজ্ঞ জিশু তরফদার, বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন ফর লার্নিং এন্ড ডেভেলপমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা রুশদিনা খানসহ অরো অনেকে রিসোর্স পার্সন হিসাবে থাকবেন।

*

*