হুয়াওয়ের প্রযুক্তিতে স্মার্ট সিটি

huweai smart city

সম্প্রতি অনুষ্ঠিত দশম স্মার্ট সিটি এক্সপো ওয়ার্ল্ডে স্মার্ট সিটি গড়ার প্রত্যয়ে উদ্ভাবনী আইডিয়া ও দুর্দান্ত নৈপুণ্যের জন্য হুয়াওয়ের স্মার্টসিটি দু’টি ওয়ার্ল্ড স্মার্ট সিটি অ্যাওয়ার্ড ও চারটি ক্যাটাগরিতে মনোনয়ন পেয়েছে।

প্রাযুক্তিক সুবিধাসম্পন্ন চমৎকার শহর ব্যবস্থা গড়ার জন্য শেনঝেন এনাবলিং টেকনোলজিস অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে। অন্যদিকে, বিশ্ব মানসম্পন্ন স্মার্ট সিটির জন্য সাংহাই সিটি অ্যাওয়ার্ড’র স্বীকৃতি পেয়েছে। গুয়াংজুর ফোশানের নানহাই ডিস্ট্রিক্ট ইকোনমি অ্যাওয়ার্ড অর্জন করেছে। তিয়ানজিন ইকোনমিক-টেকনোলজিক্যাল ডেভেলপমেন্ট এরিয়া (টিইডিএ), হেনানের ঝ্যাংডং ডিস্ট্রিক্ট, আনহুই এর হুয়াংশাং যথাক্রমে ইনক্লুসিভ অ্যান্ড শেয়ারিং সিটিস অ্যাওয়ার্ড, ইনোভেটিভ আইডিয়া অ্যাওয়ার্ড, গভর্নেন্স অ্যান্ড সার্ভিস অ্যাওয়ার্ড এবং ইকোনমি অ্যাওয়ার্ড -এর জন্য মনোনীত হয়েছে।

এ অর্জন বিজয়ী শহরগুলোর ক্ষেত্রে শুধুমাত্র বিশেষ স্বীকৃতিকেই তুলে ধরে না, পাশাপাশি এ অর্জনের মাধ্যমে হুয়াওয়ের স্মার্ট সিটি নির্মাণের বিষয়ে খাত সংশ্লিষ্টদের মূল্যায়নের বিষয়টিও উঠে এসেছে। এক্সপো চলাকালীন সময়ে, ফিউচার সিটি গড়ার প্রত্যয়ে হুয়াওয়ে ‘এমপাওয়ারিং দ্য সিটি বিইং উইথ ইন্টেলিজেন্স অ্যান্ড ভাইটালিটি’ প্রতিপাদ্যে স্মার্ট সিটি সামিটের আয়োজন করে।

এ নিয়ে হুয়াওয়ের গ্লোবাল বিজনেস গভর্নমেন্ট ইউনিটের প্রেসিডেন্ট ইউ কুন বলেন, ‘স্মার্ট সিটি নির্মাণ ও বিকাশের মাধ্যমে আমরা সামনের দিকে পরিচালিত হচ্ছি; আমাদের অভিজ্ঞতা ও লক্ষ্যের মাধ্যমে স্মার্ট সিটি তৈরিতে নতুন অধ্যায়ের সূচনার জন্য আমাদের অবশ্যই নির্দিষ্ট ও প্রায়োগিক পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে। ফিউচার সিটি তৈরির জন্য স্মার্ট সিটিই হবে নতুন আঙ্গিক। আমাদের শহরের মূল সমস্যাগুলোর ওপর আলোকপাত করতে হবে, মানুষের সঙ্গে প্রাসঙ্গিক ধারণার সামঞ্জস্য নিশ্চিত করতে হবে, নগরায়ন সংক্রান্ত সেবার অ্যাকুইজিশন ও অভিজ্ঞতার বিষয়ে লক্ষ্য স্থির করতে হবে এবং হরাইজন্টাল কানেকশন ও প্রসেস রিইঞ্জিনিয়ারিং সম্পন্ন করতে হবে।’

সাংহাই ডিজিটাল যুগে হুয়াওয়ের উদ্ভাবনভিত্তিক ওয়ার্ল্ড ক্লাস স্মার্ট সিটি। এই সামিটে সাংহাই মর্যাদাপূর্ণ বৈশ্বিক সিটি অ্যাওয়ার্ড -এর স্বীকৃতি পেয়েছে।

‘অল-ইন-ওয়ান’ ম্যানারে ভবিষ্যত স্মার্ট ল্যান্ডস্কেপের জন্য শেনঝেন শহর নির্দিষ্ট পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করেছে। এগুলো হলো: শহরের জন্য একটি নির্দিষ্ট মানচিত্র, সেবার ক্ষেত্রে একটিই নাম্বার, এক ক্লিকেই অল-রাউন্ড ভিজিবিলিটি, সমন্বিত কার্যক্রম ও লিংকেজের জন্য একটি নির্দিষ্ট অবকাঠামো, ওয়ান-স্টপ ইনোভেশন অ্যান্ড এন্ট্রাপ্রেনিউরশিপ এবং স্মার্ট লিভিং -এর জন্য একটি নির্দিষ্ট স্ক্রিন। ডিজিটাল মাধ্যমে যুক্ত সরকারি সেবা ব্যবস্থার সকল ই-গভর্নমেন্ট সেবাগুলো ধারাবাহিকভাবে উন্নত করা হচ্ছে।

প্রথাগত সিস্টেম থেকে আধুনিক সিস্টেমে আসার জন্য ফোশানের নানহাই ডিস্ট্রিক্ট ইকোনমি অ্যাওয়ার্ডের স্বীকৃতি লাভ করেছে। ডিজিটাল নানহাই তৈরির জন্য নানহাই ডিস্ট্রিক্টে নতুন তথ্য প্রযুক্তির ব্যবহার করা হচ্ছে, যেখানে ডাটা ইন্টিগ্রেশন, অপারেশন মিনিটরিং, ডিসিশন-মেকিং অ্যানালাইসিস, কম্প্রিহেনসিভ এক্সিবেশন ও কমান্ড ও কোলাবোরেশনকে অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। এছাড়াও, শহরটিকে একটি সিঙ্গেল স্ক্রিনে স্মার্ট অপারেশন এবং একটি সিঙ্গেল ক্লাউডে ইউনিফাইড অ্যাপ্লিকেশনসহ একটি নির্দিষ্ট ম্যাপের মাধ্যমে দেখা যাবে।

স্মার্ট সিটি তৈরির জন্য একটি সুবিধাজনক পরিবেশ সৃষ্টির জন্য ইনক্লুসিভ অ্যান্ড শেয়ারিং সিটি অ্যাওয়ার্ড-এর চূড়ান্ত পর্বে অংশ নেয় তিয়ানজিন ইকোনমিক-টেকনোলজিক্যাল ডেভেলপমেন্ট এরিয়া। ইনোভেটিভ ল্যাবের জন্য ইনোভেটিভ আইডিয়া অ্যাওয়ার্ড-এর মনোনয়নের স্বীকৃতি লাভ করে ঝ্যাংজু স্মার্ট আইল্যান্ড। ডিজিটাল রূপান্তরের মাধ্যমে বিখ্যাত পর্যটন সিটিতে পরিণত হওয়ার কারণে হুয়াংশান সিটি গভর্নেন্স অ্যান্ড সার্ভিস অ্যাওয়ার্ডের স্বীকৃতির জন্য মনোনয়ন পেয়েছে।

*

*