সিভিট আসিয়ান থাইল্যান্ড ২০২০- বেসিস সদস্যদের অংশগ্রহণ

civit

বিশ্বের টেকনোলজি ও ডিজিটাল কমিউনিটিগুলোর আন্তর্জাতিক উৎসব সিভিট আসিয়ান থাইল্যান্ড ২০২০-এর ৭টি ক্যাটাগরিতে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)-এর ১১টি সদস্য প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে। বিগত দুই বছর বাংলাদেশী প্রতিষ্ঠানগুলো সরাসরি এই উৎসবে অংশ নিলেও গত ২৫ থেকে ২৯ নভেম্বর ব্যাপী অনুষ্ঠিত এবারের উৎসবে অংশগ্রহণকারীরা যোগ দিয়েছেন অনলাইনে।

আর্টিফিসিয়্যাল ইন্টেলিজেন্স, এন্টারপ্রাইজ সফটওয়্যার, সাইবার সিকিউরিটি, ই-কমার্স অ্যান্ড ডিজিটাল মার্কেটিং, ডাটা অ্যান্ড ক্লাউড, স্মার্ট সল্যুশন্স অ্যান্ড আইওটি এবং ৫জি এই ৭টি ক্যাটাগরিতে বেসিসের ১১টি সদস্য প্রতিষ্ঠান এই উৎসবে অংশ নিয়েছে। প্রতিষ্ঠানগুলো হলো ফোরএক্সিস আইটি লিমিটেড, বিটলস, বিজেআইটি, জেডএস সল্যুশন্স লিমিটেড, অ্যামেজিংসফট লিমিটেড, ডায়নামিক সল্যুশন্স ইনোভেটরস লিমিটেড, এরা ইনফোটেক লিমিটেড, মিডিয়াসফট ডাটা সিস্টেমস লিমিটেড, মিসফিট টেকনোলোজিস লিমিটেড, মাই অফার ৩৬০ ডিগ্রি এবং লিডসফট বাংলাদেশ লিমিটেড। উৎসবে বাংলাদেশের মোট ৩টি প্যাভিলিয়ন ছিল, যার প্রত্যেকটিতে গড়ে ৪ টি করে প্রতিষ্ঠান অংশ নিয়েছে।

বিশ্বের টেকনোলজি ও ডিজিটাল কমিউনিটিগুলোর মধ্যে সম্পর্ক গড়ে তোলার লক্ষ্যে বিশ্বের বিভিন্ন দেশের টেকনোলজি ও ডিজিটাল প্রতিষ্ঠানসমূহের অংশগ্রহণে প্রতিবছর সিভিট আসিয়ান থাইল্যান্ড উৎসব অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে। বিগত বছরগুলোতে থাইল্যান্ডে এই উৎসব অনুষ্ঠিত হলেও, করোনার কারণে এবার তা অনুষ্ঠিত হয় অনলাইনে।

বাংলাদেশের সফটওয়্যার এবং তথ্যপ্রযুক্তি সেবা খাতের বাণিজ্য সংগঠন বেসিস স্থানীয় তথ্যপ্রযুক্তি প্রতিষ্ঠানের সক্ষমতা প্রদর্শনের লক্ষ্যে বিভিন্ন সময়ে স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিকভাবে বিভিন্ন অনুষ্ঠান, মেলা ও সম্মেলন আয়োজন করে থাকে। এ ছাড়া সদস্যদের প্রাতিষ্ঠানিক দক্ষতা বাড়াতে প্রশিক্ষণ, কর্মশালা আয়োজন এবং আন্তর্জাতিক মেলা, সম্মেলন ও অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণের সুযোগ তৈরি করে দেওয়াও বেসিসের কাজ।

*

*