Friday, June 21, 2024
spot_img
Homeগ্যাজেটসসর্বসেরা স্মার্টফোনের পুরস্কার পেলো অপো ফাইন্ড এন২

সর্বসেরা স্মার্টফোনের পুরস্কার পেলো অপো ফাইন্ড এন২

সাংঘাইয়ের এমডব্লিউসিতে আয়োজিত ‘২০২৩ এশিয়া মোবাইল অ্যাওয়ার্ডস’ অনুষ্ঠানে অপো ফাইন্ড এন২-কে এশিয়ার সর্বসেরা স্মার্টফোন ঘোষণা করা হয়। এর অসাধারণ পারফর্ম্যান্স এবং উদ্ভাবনী ইউজার এক্সপিরিয়েন্সের কারণে সুপরিচিত ফাইন্ড এন২ একটি প্রতিযোগিতামূলক বাছাই তালিকা থেকে নির্ধারিত হয়েছে এবং এই সম্মানজনক পুরস্কার লাভ করেছে।

সংযোগ খাতের সবচেয়ে সম্মানজনক স্বীকৃতি হিসেবে সুপরিচিত জিএসএমএ’র এশিয়া মোবাইল অ্যাওয়ার্ডস। ‘এশিয়ার সর্বসেরা স্মার্টফোন’ পুরস্কারটি জিএসএমএ থেকে এই ইন্ডাস্ট্রির উল্লেখযোগ্য বিশেষজ্ঞদের মাধ্যমে পারফর্ম্যান্স, উদ্ভাবন, এবং ইন্ডাস্ট্রি লিডারশিপ এর মতো মাপকাঠির মধ্য দিয়ে নির্ধারিত হয়। এ বছরের পুরস্কার শুধু অপো ফাইন্ড এন২ এর একক সামর্থ্যকেই স্বীকৃতি দেয় না, বরং বিস্তৃত পরিসরে অপোর স্বীকৃতি ও এ ইন্ডাস্ট্রিতে এর নেতৃস্থানীয় অবস্থানকেও তুলে ধরে।

ফাইন্ড এন২ হচ্ছে অপোর দ্বিতীয় প্রজন্মের ফ্ল্যাগশিপ ফোল্ডেবল ফোন। আলট্রা-লাইট এবং দীর্ঘস্থায়ী ফ্লেক্সিওন হিঞ্জ, ইন্ডাস্ট্রির প্রথম অ্যারোস্পেস-গ্রেড কার্বন ফাইবার স্ক্রিন সাপোর্ট ফ্রেমসহ ফাইন্ড এন২-তে দীর্ঘস্থায়িতা বা নির্ভরযোগ্যতার সাথে কোনোরকম আপোস না করেই এক অবিশ্বাস্য লাইট ফোল্ডেবল অভিজ্ঞতা পাওয়া সম্ভব। এই ডিভাইসে অরিজিনাল ‘ফাইন্ড এন’ এর একই রকম ‘গোল্ডেন ফোল্ডিং রেশিও’ রয়েছে এবং এতে বাইরের ও ভেতরের উভয় পর্দাতেই ই৬ ১২০ হার্জ ডিসপ্লে রয়েছে। দারুণ চার্জিং ও ব্যাটারি লাইফ, মোবাইলের জন্য হ্যাসেলবাল্ড ক্যামেরা ও ফ্লেক্সফর্ম মোডের সমন্বয়ে অপো ফাইন্ড এন২ একটি সহজে বহনযোগ্য, স্বতস্ফূর্ত ফোল্ডেবল, যা কিনা প্রতিদিন ব্যবহারের জন্য উপযোগী।

২০২২ সালের শেষের দিকে এটি বাজারে আসার পর থেকে, ফোল্ডেবল ফোনের জগতে এক নতুন যুগের সূচনার মাধ্যমে অপো ফাইন্ড এন২ এর উদ্ভাবনী অভিজ্ঞতা উপহার দিয়ে বিশ্বব্যাপী বহু ব্যবহারকারীর কল্পনাকে ক্যামেরাবন্দী করেছে। আইডিসি থেকে প্রাপ্ত তথ্য অনুযায়ী, ২০২৩ সালের প্রথম প্রান্তিকে অপো ফাইন্ড এন২ সিরিজ ৩৫.০ শতাংশ মার্কেট শেয়ারসহ চীনের ফোল্ডেবল ফোনের বাজারে প্রথম স্থান অধিকার করে, যা একই সময়ে সামগ্রিক ফোন শিপমেন্টের ক্ষেত্রেও অপোর জন্য সহায়ক ভূমিকা রাখে।

বিস্তৃত পরিসরে প্রোডাক্ট ইকোসিস্টেমের মধ্য দিয়ে ‘স্মার্ট লাইফ এক্সপিরিয়েন্স’ উপভোগের সাথে সাথে অপো বিশ্ব জুড়ে উদ্ভাবনী খাতের উন্নয়ন এবং ব্যবহারকারীদের ক্ষমতায়নের অনুকূলে প্রচার চালাচ্ছে। সাম্প্রতিক বছরগুলোতে এই প্রচেষ্টাগুলো আন্তর্জাতিক পর্যায়ে দিন দিন আরো বেশি স্বীকৃতি পাচ্ছে। ২০২৩ সালে, অপোকে ‘ফাস্ট কোম্পানি’ দ্বারা ঘোষিত ১০টি সবচেয়ে উদ্ভাবনী এশিয়া প্যাসিফিক কোম্পানির একটি বিবেচনা করা হয় এবং অপো, আইএফ তথা ইন্টারন্যাশনাল ফোরাম ডিজাইন কর্তৃক ১৫টি পুরস্কার লাভ করে– যার মধ্যে রয়েছে অপো এয়ার গ্লাস এবং অপো ব্যাটারি হেলথ ইঞ্জিনের জন্য যথাক্রমে প্রাপ্ত ‘২০২৩ এডিসন বেস্ট নিউ প্রোডাক্ট অ্যাওয়ার্ডস’ এবং ‘২০২৩ এসইএএল সাস্টেইনেবল প্রোডাক্ট অ্যাওয়ার্ড’। এই পুরস্কারগুলো অপো’র যুগান্তকারী প্রযুক্তি ও টেকসই চর্চার প্রতি এর অবদানের প্রতি স্বীকৃতির প্রতিফলন ঘটায়।

‘মানবসভ্যতার জন্য প্রযুক্তি, বিশ্বের জন্য উদারতা’ – এই লক্ষ্যে উজ্জীবিত হয়ে অপো বিশ্বব্যাপী এর ব্যবহারকারীদের জন্য যুগান্তকারী সব উদ্ভাবনের অভিজ্ঞতা নির্মাণ করতে থাকবে।

spot_img
আরও পড়ুন
- Advertisment -spot_img

সর্বাাধিক পঠিত

spot_img