শুরু হচ্ছে হ্যাকাথন

hakathon

দেশের ১০টি জন গুরুত্বপূর্ণ সমস্যার তথ্য-প্রযুক্তি ভিত্তিক উদ্ভাবনী সমাধানের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে “ন্যাশনাল হ্যাকাথন অন ফ্রন্টিয়ার টেকনোলজিস”। “Think. Hack. Solve.” স্লোগানটিকে সামনে রেখে আইসিটি বিভাগের “উদ্ভাবন ও উদ্যোক্তা উন্নয়ন একাডেমী প্রতিষ্ঠাকরণ প্রকল্প (iDEA)” তার “স্টার্টআপ বাংলাদেশ” ব্যনার নিয়ে “বাংলাদেশে অবস্থিত ভারতীয় হাই কমিশন” ও “টেক মাহিন্দ্রা লিমিটেড (TechM)” এর সহযোগিতায় আয়োজন করছে এই হ্যাকাথন। তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগের মাননীয় প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহ্‌মেদ পলক এমপি এর সঠিক ও সুস্পষ্ট নির্দেশনা ও তত্ত্বাবধানে বাংলাদেশে তথ্যপ্রযুক্তি খাতে স্টার্টআপ সংস্কৃতি গড়ে তুলতে কাজ করছে আইসিটি বিভাগ। এরই ধারাবাহিকতায় শুরু হচ্ছে এই হ্যাকাথন।

হ্যাকাথনকে সামনে রেখে ১৮ জানুয়ারি, ২০২০ (শনিবার) চট্টগ্রাম বিভাগের ক্যাম্পেইন অনুষ্ঠিত হয়। চট্টগ্রামের প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিতে অনুষ্ঠিত এই ক্যাম্পেইনের প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সম্মানিত সদস্য প্রফেসর ড. মোঃ সাজ্জাদ হোসেন। বিশেষ অতিথি হিসেবে ছিলেন iDEA প্রকল্পের পরিচালক (অতিরিক্ত সচিব) সৈয়দ মজিবুল হক। অনুষ্ঠানের সভাপতিত্ব করেন প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি চট্টগ্রামের সাইন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ডিন প্রফেসর ড. তৌফিক সাইদ।

প্রধান অতিথি বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরী কমিশনের সম্মানিত সদস্য প্রফেসর ড. মোঃ সাজ্জাদ হোসেন তাঁর বক্তব্যে বলেন যে মানব সম্পদ যে কোন দেশের জন্য বড় সম্পদ। একে সঠিকভাবে কাজে লাগাতে পারলে দেশকে খুব শীঘ্রই উন্নত দেশে রূপান্তর করা সম্ভব হবে। দেশের উন্নয়নে তরুণ সমাজের মেধা ও শক্তিকে কাজে লাগাতে হবে। তাই তরুণদের সোনার বাংলাদেশ গড়ার লক্ষ্যে এগিয়ে আসার জন্য তিনি অনুরোধ করেন।

বিশেষ অতিথি হিসেবে iDEA প্রকল্পের পরিচালক সৈয়দ মজিবুল হক বলেন যে চতুর্থ শিল্প বিপ্লব আমাদের তরুণ প্রজন্মের জন্য নতুন পথ উন্মোচন করছে। ইতোমধ্যে নতুন প্রযুক্তি উদ্ভাবন ও ব্যবহারের অত্যন্ত দক্ষতার পরিচয় দিচ্ছে আমাদের তরুনরা। এখন প্রয়োজন আমাদের সঠিক পরিকল্পনা গ্রহণ এবং স্টার্টআপ সংস্কৃতি গড়ে তোলা। ফলে খুব দ্রুতই একটি জ্ঞানভিত্তিক সমাজ গঠন করা সম্ভব হবে। এছাড়া আগ্রহী তরুনদের এই হ্যাকাথনে অংশ নেওয়ার মধ্য দিয়ে দেশের যে ১০টি জনগুরুত্বপূর্ণ সমস্যা চিহ্নিত করা হয়েছে তা সমাধানে তিনি সকলকে অংশ নিতে অনুপ্রানিত করেন।

অনুষ্ঠানের সভাপতি প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি চট্টগ্রামের সাইন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগের ডিন প্রফেসর ড. তৌফিক সাইদ এ আয়োজনে প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটিকে সঙ্গে রাখায় আইসিটি বিভাগকে ধন্যবাদ জানান। তিনি তরুনদের নিয়ে এধরণের আয়োজনের জন্য অত্যন্ত আনন্দ প্রকাশ করেন এবং সরকারের আইসিটি সেক্টরের উন্নয়নে এমন যুগোপযোগী আয়োজনকে সাধুবাদ জানান। ভবিষ্যতেও এধরনের উদ্যোগে প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটি পাশে থাকবে ও একই সাথে সরকারের সঙ্গে আইসিটি সেক্টরের উন্নয়নে কাজ করতে তিনি আগ্রহ প্রকাশ করেন।

অতিথিদের বক্তব্য শেষে হ্যাকাথন সম্পর্কিত একটি প্রেজেন্টেশন দেন প্রকল্পের সিনিয়র কনসালটেন্ট আর. এইচ. এম. আলাওল কবির। পরে উপস্থিত তরুণরা হ্যাকাথনের প্রশ্নোত্তর পর্বে অংশ নেয় । এই ক্যাম্পেইনে প্রায় ৩ শতাধিক শিক্ষার্থীসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক, কর্মকর্তাবৃন্দ এবং এলাকার গন্যমান্য ব্যক্তিগন উপস্থিত ছিলেন। হ্যাকাথনের বিস্তারিত তথ্য পাওয়া যাবে স্টার্টআপ বাংলাদেশ- iDEA প্রকল্পের ওয়েবসাইট www.startupbangladesh.gov.bd -এ। হ্যাকাথনে অংশগ্রহণের জন্য আবেদনের শেষ তারিখ ৩১ জানুয়ারি, ২০২০ (শুক্রবার)।

*

*