শিশুদের জন্য স্যামসাং’র জুনিয়র সফটওয়্যার একাডেমি

Samsung brings tech academy for children

‘জুনিয়র সফটওয়্যার একাডেমি’ নামে একটি আইটি একাডেমি চালু করেছে স্যামসাং বাংলাদেশ। প্রথম সেশনের কার্যক্রম শুরু হয়েছে গত ৮ মার্চ, ২০১৯ তারিখ থেকে। স্যামসাং আরএন্ডডি ইন্সিটিটিউট বাংলাদেশ (এসআরবিডি)-তে সকাল ১০টা থেকে ১২টা পর্যন্ত চলবে উক্ত সেশনটি। উল্লেখ্য, এসআরবিডি-তে বর্তমানে প্রায় ৪০০ জন প্রকৌশলী কর্মরত আছেন।

কোডিং, প্রোগ্রামিং, মাইক্রোসফট অফিস, কম্পিউটার ও ইন্টারনেট সংক্রান্ত প্রাথমিক শিক্ষাসহ অন্যান্য আরো অনেক প্রযুক্তিগত বিষয় নিয়ে শিক্ষার্থীরা প্রশিক্ষণ গ্রহণ করতে পারবে। এছাড়া স্যামসাং-এর ইতিহাস, স্যামসাং পণ্য সম্পর্কে জ্ঞান এবং অ্যান্ড্রয়েড ওপেন সোর্স সিস্টেম সম্পর্কে জানতে পারবে শিক্ষার্থীরা। সফটওয়্যার ডেভলপ করতে বেসিক কোডিং ব্যবহার করে শিক্ষার্থীরা তাদের শিক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে পারবে। প্রশিক্ষণ শেষে শিক্ষার্থীদের সার্টিফিকেট প্রদান করা হবে।

স্যামসাং বাংলাদেশের ব্যবস্থাপনা পরিচালক স্যাংওয়ান ইয়ুন বলেন, “বাংলাদেশী শিক্ষার্থীদের জন্য এই সফটওয়্যার একাডেমির উদ্বোধন করতে পেরে আমরা অত্যন্ত আনন্দিত। এখান থেকে অর্জন করা জ্ঞান ভবিষ্যত শিক্ষা গ্রহণে শিক্ষার্থীদের সহায়তার পাশাপাশি তাদের মাঝে প্রযুক্তি ও উদ্ভাবনী ধারণা নিয়ে কাজ করার ইচ্ছাশক্তি তৈরি করবে। ভবিষ্যতে বাংলাদেশকে টেক জায়ান্ট হিসেবে পরিচিতি পেতে সহায়তা করতে চাই আমরা যার শুরু শিশুদেরকে নিয়ে। আজকের শিশুরাই ভবিষ্যতে দেশের সার্বিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে বলে আমরা বিশ্বাস করি।”

৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেনীর মোট ৩০জন শিক্ষার্থী জুনিয়র সফটওয়্যার একাডেমিতে অংশ নিয়েছে। উল্লেখ্য, গত ৮ মার্চ, ২০১৯ থেকে শুরু হয়ে আগামি ২৬ এপ্রিল, ২০১৯ পর্যন্ত সপ্তাহের প্রতি শুক্রবার ক্লাস নেয়া হবে। গত ১৫ ফেব্রুয়ারি থেকে ২৬ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ পর্যন্ত শিক্ষার্থীরা এই সেশনের জন্য আবেদন করেছে, অতঃপর গত ২৮ ফেব্রুয়ারি, ২০১৯ তারিখ নির্বাচিত শিক্ষার্থীদের নাম ঘোষণা করা হয়।

*

*