যানজট এবং বর্জ্য ব্যবস্থাপনা স্মার্ট সিটির জন্য চ্যালেঞ্জ

smart city

উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে বাংলাদেশ দক্ষ নেতৃত্ব এবং সুনির্দিষ্ট নির্দেশনায় প্রতিনিয়ত উন্নয়নের মহাসড়কে উন্নতির দিকে দ্রুত এগিয়ে চলছে। যানজট নিরসনে রাজধানীতে মেট্রো রেল, এলিভেটেড এক্সপ্রেস হাইওয়ের কার্যক্রম এগিয়ে চলছে। রেপিড বাস ট্রানজিট সিস্টেমের কাজ চলমান রয়েছে। ইতোমধ্যে হাতিরঝিল প্রকল্প, কুড়িল ফ্লাইওভার, জিল্লুর রহমান উড়াল সড়ক, যাত্রাবাড়ি ফ্লাইওভারসহ প্রচুর রাস্তা সম্প্রসারণ করা হয়েছে। জনসংখ্যার সঙ্গে পাল্লা দিয়ে সড়ক ব্যবস্থাপনা নিয়ন্ত্রণ স্মার্ট সিটির জন্য অন্যতম চ্যালেঞ্জ।

মঙ্গলবার ভিয়েতনামের রাজধানী হ্যানয়ের হোটেল ইন্টার কন্টিনেন্টাল হ্যানয় ল্যান্ডমার্ক ৭২ তে অ্যাসোসিও এবং ভিনাসার যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত ‘২০১৮ অ্যাসোসিও স্মার্ট সিটি সামিট’ এর মেয়রস টক সেশনে একথা বলেন ময়মনসিংহ সিটি কর্পোরেশনের মেয়র মো. ইকরামুল হক টিটু। তিনি আরো বলেন, বর্জ্য ব্যবস্থাপনার জন্য নেয়া হয়েছে নতুন উদ্যোগ। সেকেন্ডারি ডাম্পিং স্টেশন চালু হয়েছে। রাজধানীর হাতিরঝিলে স্থাপন করা হয়েছে বর্জ্য পরিশোধনাগার। সুন্দর এবং পরিচ্ছন্ন নগরীর সঙ্গে আধুনিক সুযোগ সুবিধার সমন্বয় ঘটিয়ে বদলে যাচ্ছে রাজধানী ঢাকা। তবে এখনো পরিপূর্ণ বর্জ্য ব্যবস্থাপনা গড়ে তুলতে আরো সময়ের প্রয়োজন।

মেয়র বলেন, দেশে এখন স্মার্টফোন সবার হাতে। গুগল, জিপিএস এবং স্মার্ট ডিভাইসের সাহায্যে নগরীর মানুষ মুহূর্তেই বহির্বিশ্বের সঙ্গে সংযুক্ত হতে পারছে। যাতায়াতের জন্য দেশের প্রতিষ্ঠান ‘পাঠাও’ দেশের গন্ডি পেরিয়ে নেপালে সেবা দিচ্ছে। রাইড শেয়ারিং সেবা উবার ঢাকাসহ অন্য আরো ৩টি শহরে সেবার পরিধি বাড়িয়েছে। গৃহকর্মী সেবা পেতে চালু হয়েছে হ্যালোটাস্ক। চিকিৎসা ক্ষেত্রে তাৎক্ষণিক সেবা মিলছে ই-হেলথ সার্ভিসে। সারাদেশে দ্রুত গতির ব্রডব্যান্ড ইন্টারনেট সংযোগ স্থাপন করা হয়েছে। ঢাকার মতো পর্যায়ক্রমে এইসব সেবা দেশের সব শহরে পৌঁছে যাবে। আমরা শুধু স্মার্ট সিটিতেই সীমাবদ্ধ থাকবো না। ডিজিটাল সিটি হবে দেশের প্রতিটি শহর। ইতোমধ্যে ময়মনসিংহের দুইটি পার্কে ফ্রি ওয়াই ফাইয়ের মাধ্যমে ইন্টারনেট সেবা প্রদান করা হচ্ছে। নিরাপত্তার চাদরে ময়মনসিংহে স্থাপন করা হয়েছে অসংখ্য সিসি ক্যামেরা। পর্যটন নগরী কক্সবাজারে ৬৪ টি সিসি ক্যামেরার মাধ্যমে ৪ জন আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য ২৪ ঘণ্টা নিরাপত্তার নজরদারী করছেন।

এই সেশনে অ্যাসোসিওর ভাইস চেয়ারম্যান ও ভিনাসার চেয়ারম্যান ড. ত্রুয়ং গিয়া বিন, সুইডেনের রাষ্ট্রদূত পেরেরিক হোগবার, ফিনল্যান্ডের রাষ্ট্রদূত কেরি কাহিলুঅতো, কাঠমুন্ডুর নগর উন্নয়ন প্রধান রাম বাহাদুর থাপা, হ্যানয় পিপলস কমিটির চেয়ারম্যান এনগুয়েন ডাক চুং,  সাইবারজায়া মালয়েশিয়া এর ‍উদ্ভাবন ও বাণিজ্যবিষয়ক প্রধান রিচার্ড কারসহ অন্যান্য আলোচকরা উপস্থিত ছিলেন।

প্রসঙ্গত, স্মার্ট সিটি সামিটে ঢাকা সিটি কর্পোরেশনের কাউন্সিলর ওয়াহিদুল হাসান মিল্টন, বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি(বিসিএস) সভাপতি ইঞ্জি. সুব্রত সরকার, সহ-সভাপতি ইউসুফ আলী শামীম, বিসিএস ময়মনসিংহ শাখার চেয়ারম্যান শওকত সারোয়ার হোসেন বুলবুলসহ বাংলাদেশ দলের অন্যান্য প্রতিনিধিরা উপস্থিত ছিলেন।

*

*