মেইড ইন বাংলাদেশ ট্যাগযুক্ত ওয়ালটনের ব্র্যান্ড পিসি

walton

বাজারে এসেছে ‘মেইড ইন বাংলাদেশ’ ট্যাগযুক্ত ৬ মডেলের ওয়ালটন ব্র্যান্ড পিসি এবং ২ মডেলের ফুল এইচডি মনিটর। উচ্চমানসম্পন্ন এসব ডেস্কটপ ও মনিটর তৈরি হয়েছে গাজীপুরের চন্দ্রায় ওয়ালটনের নিজস্ব কারখানায়।

এর আগে গত ১৮ জানুয়ারি ওয়ালটন কম্পিউটার কারখানার আনুষ্ঠানিক উদ্বোধন হয়। উদ্বোধন করেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্য প্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার এবং তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক। তারা এসময় দেশেই ল্যাপটপ ও ডেস্কটপ কম্পিউটারের মতো প্রযুক্তিপণ্য তৈরিতে ওয়ালটনের সাহসী উদ্যেগের ভূয়সী প্রশংসা করেন।

ওয়ালটন কম্পিউটার প্রজেক্ট ইনচার্জ মো. লিয়াকত আলী জানান, দেশে প্রযুক্তিপণ্যের গ্রাহক দিন দিন বাড়ছে। গ্রাহকচাহিদা মেটাতে ওয়ালটন দেশেই তৈরি করছে উচ্চমানের ব্র্যান্ড ডেস্কটপ পিসি। প্রাথমিকভাবে ৬ মডেলের ব্র্যান্ড ডেস্কটপ এবং ২ মডেলের মনিটর বাজারে ছাড়া হয়েছে। ক্রেতাদের চাহিদা, রুচি ও ক্রয়সক্ষমতা অনুযায়ী এসব পণ্যের রয়েছে ভিন্ন ভিন্ন দাম ও কনফিগারেশন। সহজ শর্তে কিস্তিতেও কেনা যাচ্ছে ওয়ালটন ডেস্কটপ ও মনিটর।

উল্লেখ্য, সব মডেলের ওয়ালটন ডেস্কটপে ব্যবহৃত হয়েছে ইন্টেলের শক্তিশালী প্রসেসর। রয়েছে বিল্ট-ইন স্পিকারযুক্ত কমপ্যাক্ট ডিজাইনের আকর্ষণীয় কেসিং। ডেস্কটপগুলো দেখতে সুন্দর। সহজে বহনযোগ্য এবং দীর্ঘ সময় কাজের জন্য উপযুক্ত। ওয়ালটন ডেস্কটপের দাম শুরু হয়েছে ২৩,৫৫০ টাকা থেকে। সর্বোচ্চ দাম ৪৪,৯৯০ টাকা।

ওয়ালটন কম্পিউটার সোর্সিং বিভাগের সহকারী পরিচালক রাকিব বিন কাদির জানান, ডব্লিউডিপিজি৪৪০০১ মডেলের ডেস্কটপে ব্যবহৃত হয়েছে ৩.৩০ গিগাহার্জ গতির ইন্টেল পেন্টিয়াম প্রসেসর। আছে ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স ৫১০। ৪ জিবি ডিডিআর৪ র‌্যাম। যা প্রয়োজনে বাড়ানো যাবে ৩২ জিবি পর্যন্ত। স্টোরেজ হিসেবে থাকছে ১ টেরাবাইট ৭২০০ সাটা হার্ডডিস্ক ড্রাইভ। এটির দাম মাত্র ২৩,৫৫০ টাকা।

ডব্লিউডিপি৭১০০০২, ডব্লিউডিপি৭১০০০৩ এবং ডব্লিউডিপি৭১০০০৪ মডেলে রয়েছে ৩.৯০ গিগাহার্জ গতির ইন্টেলের সপ্তম প্রজন্মের কোর আই থ্রি প্রসেসর। সঙ্গে থাকছে ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স ৬৩০। প্রতিটি ডেস্কটপে ব্যবহৃত হয়েছে ৪ জিবি ডিডিআর৪ র‌্যাম। যা প্রয়োজনে বাড়ানো যাবে ৩২ জিবি পর্যন্ত। স্টোরেজ হিসেবে থাকছে ১ টেরাবাইট ৭২০০ সাটা হার্ডডিস্ক ড্রাইভ। ডেস্কটপগুলোর দাম যথাক্রমে ২৯,৯৯০, ৩১,৫৫০ এবং ৩২,৫৫০ টাকা।

ডব্লিউডিপি৭৫০০০৫ এবং ডব্লিউডিপি৭৫০০০৬ মডেলের ওয়ালটন ডেস্কটপে ব্যবহৃত হয়েছে ৩.৮০ গিগাহার্জ গতির ইন্টেলের সপ্তম প্রজন্মের কোর আই ফাইভ প্রসেসর। রয়েছে ইন্টেল এইচডি গ্রাফিক্স ৬৩০। প্রতিটি ডেস্কটপে ব্যবহৃত হয়েছে ৪ জিবি ডিডিআর৪ র‌্যাম। যা প্রয়োজনে যথাক্রমে ৩২ এবং ৬৪ জিবি পর্যন্ত বাড়ানো যাবে। স্টোরেজ হিসেবে থাকছে ১ টেরাবাইট ৭২০০ সাটা হার্ডডিস্ক ড্রাইভ। এই ডেস্কটপ দুটির বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো এর দৃষ্টিনন্দন কেসিং ও কুলিং সিস্টেম। এতে ব্যবহৃত  হয়েছে স্বচ্ছ সাইড কভার এবং এলইডি ফ্যান। ফলে এই ডেস্কটপ দেখতে যেমন আকর্ষণীয়, তেমনি দীর্ঘক্ষণ কাজের জন্যও উপযুক্ত। দাম যথাক্রমে ৪১,৫৫০ এবং ৪৪,৯৯০ টাকা।

দেশে তৈরি কম্পিউটার মনিটরে ব্যবহৃত হয়েছে উন্নতমানের প্যানেল। উভয় মডেলের মনিটরে রয়েছে ফুল এইচডি (১৯২০ বাই ১০৮০ পিক্সেল) ডিসপ্লে। এই ২ মডেলের মনিটরের একটি ২৩.৮ ইঞ্চির। যার মডেল ডব্লিউডি২৩৮এ০১। এই মনিটরের বিশেষ বৈশিষ্ট্য হলো এর ৩ পাশের ফ্রেমলেস ডিজাইন। ফলে এটি দেখতে অত্যন্ত আকর্ষণীয়। রয়েছে বিল্ট-ইন স্পিকারও। অন্য মডেলের মনিটরটি ২১.৫ ইঞ্চির। দাম যথাক্রমে ১৩,৯৯০ এবং ৮,৫০০ টাকা।

বর্তমানে বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ২৪টি ভিন্ন মডেলের ওয়ালটন ল্যাপটপ। যার দাম শুরু হয়েছে মাত্র ২২ হাজার ৪৯০ টাকা থেকে। সর্বোচ্চ দাম ৮৩ হাজার ৫৫০ টাকা। খুব শিগগিরই বাজারে আসছে আরো ৬ মডেলের ল্যাপটপ। যার দাম শুরু হবে মাত্র ১৯ হাজার ৯৯০ টাকা থেকে।

এছাড়াও, রয়েছে বিভিন্ন ধরনের গেমিং এবং সাধারণ কিবোর্ড ও মাউস। সাশ্রয়ী মূল্যের এসব কিবোর্ডের দাম ৩৯০ টাকা থেকে ১৫৫০ টাকার মধ্যে। আর মাউসের দাম ২২০ টাকা থেকে ৫৬০ টাকার মধ্যে। দেশের সব ওয়ালটন আউটলেটে মিলবে এসব ডেস্কটপ, ল্যাপটপ, মনিটর, কিবোর্ড ও মাউস। পণ্যভেদে থাকছে বিভিন্ন মেয়াদের গ্যারান্টি ও ওয়ারেন্টির সুবিধা।

*

*