মাইক্রোসফট পার্টনার পুরষ্কৃত

microsoft partner

সম্প্রতি রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাও হোটেলে ‘মাইক্রোসফট ইন্সপায়ার পার্টনার ফোরাম এন্ড অ্যাওয়ার্ডস’ আয়োজন করেছে মাইক্রোসফট বাংলাদেশ। অনুষ্ঠানে দেশের বাজারে মাইক্রোসফটের বাজার সম্প্রসারণে ভূমিকা রাখায় দেশীয় পার্টনার প্রতিষ্ঠানগুলোকে মূল্যায়নের পাশাপাশি পুরষ্কৃত করা হয়েছে।

মাইক্রোসফট ইন্সপায়ার পার্টনার ফোরাম এন্ড অ্যাওয়ার্ডস-এ ২০১৯ অর্থবছরে ‘কান্ট্রি পার্টনার অব দ্যা ইয়ার’ পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছে কর্পোরেট প্রযুক্তি লিমিটেড। অন্যদিকে ‘মডার্ন ওয়ার্কপ্লেস পার্টনার অব দ্যা ইয়ার’ ও ‘মাইক্রোসফট ক্লাউড সল্যুশন পার্টনার অব দ্যা ইয়ার’ ক্যাটাগরিতে পুরষ্কৃত হয়েছে আমরা টেকনোলজিস লিমিটেড। বাংলাদেশ থেকে ফ্লোরা লিমিটেড জিতে নিয়েছে ‘ডাটা মডার্নাইজেশন পার্টনার অব দ্যা ইয়ার’ পুরষ্কার এবং ‘মাইক্রোসফট মডার্ন লিঁয়াজো সল্যুশন পার্টনার অব দ্যা ইয়ার’-এ ভূষিত হয়েছে ইজেনারেশন। এছাড়া ‘অ্যাজুর অ্যাপ্লিকেশন এন্ড ইনফ্রাস্ট্রাকচার পার্টনার অব দ্যা ইয়ার’ ক্যাটাগরিতে কর্পোরেট প্রযুক্তি লিমিটেড জিতে নিয়েছে নিজেদের দ্বিতীয় পুরষ্কারটিও।

এ বছর জটিল ব্যবসায়িক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য সম্মানিত গ্রাহকদের কাটিং-এজ সল্যুশনস সংক্রান্ত সেবা প্রদান এবং ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশনের সুযোগ করে দেয়ার ক্ষেত্রে মোট ছয়টি ক্যাটাগরিতে পার্টনারদের পুরষ্কৃত করেছে মাইক্রোসফট। মূলত, মাইক্রোসফট পার্টনার নেটওয়ার্কের সঙ্গে যুক্ত দেশীয় পার্টনার প্রতিষ্ঠান বা সদস্যরা গত বছর উদ্ভাবনী মাইক্রোসফটভিত্তিক সল্যুশন প্রদানের জন্যই ‘পার্টনার অব দ্যা ইয়ার’ পুরষ্কারে ভূষিত হয়েছে।

মাইক্রোসফটের সাউথইস্ট এশিয়া নিউ মার্কেটস-এর জেনারেল ম্যানেজার সুক হুন চেহ বলেন, “বাংলাদেশে শক্তিশালী পার্টনার নেটওয়ার্কের মাধ্যমে বৈচিত্রময় ব্যবসায়িক খাতের ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন নিয়ে কাজ করছে। চলতি বছর অভাবনীয় ভূমিকা রাখায় আমরা সম্মানিত পার্টনারদের মূল্যায়ন করতে পেরে আনন্দিত।”

এ প্রসঙ্গে মাইক্রোসফট বাংলাদেশ, ভূটান, ব্রুনাই ও নেপালের কান্ট্রি ম্যানেজার আফিফ মোহাম্মদ আলী বলেন, “এ অঞ্চলে বুদ্ধিদীপ্ত সল্যুশনস প্রস্তুত করার পাশাপাশি গ্রাহকদের জন্য জটিল ব্যবসায়িক চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করার মধ্য দিয়ে পুরষ্কৃত প্রতিষ্ঠানগুলো সংশ্লিষ্ট খাতের শীর্ষস্থানে সফলভাবে অবস্থান করছে। এমনভাবেই ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশনে ভূমিকা রাখার পাশাপাশি ভালো কাজগুলো ভবিষ্যতেও বয়ে নিয়ে যাওয়ার ক্ষেত্রে পার্টনারদের উদ্বুদ্ধ করাই উক্ত ফোরামের লক্ষ্য।”

*

*