বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের মর্যাদাপুর্ণ জীবিকা ও কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা

job fair

আজ সোমবার ১ জানুয়ারী, সকালে বাংলাদেশ কম্পিউটার কাউন্সিল (বিসিসি) অডিটোরিয়ামে আয়োজিত ‘বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের মর্যাদাপূর্ণ জীবিকা ও কর্মসংস্থান মেলা ২০১৮’র উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন  তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলক।   তিনি বলেন, দেশের শারীরিক প্রতিবন্ধীদেরকে আমরা যদি  মূল অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডের সাথে সম্পৃক্ত করতে না পারি তাহলে আমরা কীভাবে মধ্যম আয়ের দেশে রূপান্তরিত হবো, কীভাবে আমরা উন্নত দেশে রূপান্তরিত হবো?।   তিনি বলেন, ‘আর সেজন্যই প্রধানমন্ত্রীর সুযোগ্য কন্যা সায়মা ওয়াজেদ পুতুল আমাদেরকে নির্দেশ দিয়েছিলেন যে, আমাদের প্রত্যেকটা প্রজেক্টে যেমন দেশের ২৮টা সফটওয়্যার টেকনোলজি পার্কে সাধারণ মানুষের সাথে যেন একজন করে বিশেষভাবে সক্ষম ব্যক্তিদের সমানভাবে সুযোগ থাকে। আর তারা যেন ভালভাবে কাজ করতে পারেন সে অনুসারে প্রত্যেকটা পার্কে প্রয়োজনীয় ডিজাইন করা হয়েছে।’ এ সময় তিনি আরও বলেন, নতুন একটি প্রকল্প হাতে নেয়া হয়েছে। এ প্রকল্পের আওতায় আগামী ২ বছরের মধ্যে ৩ হাজার প্রতিবন্ধীকে চাকরি দেয়া সম্ভব হবে।

দেশে তথ্য-প্রযুক্তি নিয়ে কাজ করা প্রতিষ্ঠানগুলোই মূলত চাকরির ব্যবস্থা করছে। এর মধ্যে আছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস) সদস্যভুক্ত প্রযুক্তিপ্রতিষ্ঠান, বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব কল সেন্টার অ্যান্ড আউটসোর্সিং বা বাক্য, অ্যাকসেঞ্চার, মাই আউটসোর্সিং, ডিজকন, সাইবার ক্যাফে অনার্স অ্যাসোসিয়েশনসহ বেশ কিছু সংগঠন ও প্রতিষ্ঠান। এক্সিম ব্যাংকও চাকরি দিয়েছে কয়েকজনকে।  আর যাদেরকে চাকুরি দেওয়া হয়েছে তাদের সবাই বিশেষভাবে সক্ষম।

*

*