বিজ্ঞানচিন্তা-বিকাশ বিজ্ঞান উৎসব সিলেট পর্ব অনুষ্ঠিত

bKash-Biggan Chinta at Sylhet

ক্ষুদে বিজ্ঞানীদের দারুণ সব উদ্ভাবনী প্রকল্পসহ আরো নানান আয়োজনে আজ সিলেটের বর্ডার গার্ড পাব্লিক স্কুল এন্ড কলেজে অনুষ্ঠিত হ’ল ‘বিজ্ঞানচিন্তা-বিকাশ বিজ্ঞান উৎসব’ এর সিলেট পর্ব।

দেশের শীর্ষস্থানীয় মোবাইল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস প্রদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশ লিমিটেড ও বিজ্ঞান বিষয়ক ম্যাগাজিন বিজ্ঞানচিন্তার যৌথ উদ্দ্যোগে আয়োজিত এ উৎসবে শিক্ষার্থীদের বিজ্ঞান প্রজেক্ট, কুইজ প্রতিযোগিতা, প্রশ্নোত্তর পর্ব, বিজ্ঞানবিষয়ক আলোচনা, রোবট প্রদর্শনী, বিজ্ঞান ম্যাজিক, বিজ্ঞানের মজার বইয়ের সাথে পরিচিতি, সাংস্কৃতিক পর্ব সহ বিভিন্ন আয়োজন শেষে বিজয়ীদের পুরস্কৃত করা হয়। উৎসবে ষষ্ঠ থেকে দশম শ্রেণির শিক্ষার্থীরা দারুণ সব বিজ্ঞান প্রকল্প প্রদর্শন করে।

অনুষ্ঠানে অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিজ্ঞানচিন্তা’র সম্পাদক আব্দুল কাইয়ুম, বিকাশের হেড অফ রেগুলেটরি এন্ড কর্পোরেট এফেয়্যার্স হুমায়ুন কবির এবং সিলেটের বিভিন্ন স্কুল-কলেজের অধ্যাপকবৃন্দ।

বিজ্ঞানের প্রতি শিক্ষার্থীদের আগ্রহ আরও বাড়ানোর জন্য সারা দেশের সাতটি অঞ্চলেই আয়োজিত হচ্ছে এই বিজ্ঞান উৎসব। ঢাকায় শুরু হয়ে পরবর্তীতে চট্টগ্রাম, রংপুর, খুলনা ও বরিশালে এই উৎসব আয়োজিত হয়। সেই ধারাবাহিকতায় সিলেট অঞ্চলের উৎসব হয়ে গেলো। এরপর রাজশাহীতে শেষ উৎসব আয়োজনের পর অক্টোবর মাসে ঢাকার ভিকারুন্নিসা স্কুল এন্ড কলেজে অনুষ্ঠিত হবে গ্র্যান্ড ফাইনাল।

বিজ্ঞান উৎসব সম্পর্কে বিজ্ঞানচিন্তার সম্পাদক আবদুল কাইয়ুম বলেন বলেন, এই বিজ্ঞান উৎসব শিক্ষার্থীদের মাঝে বিজ্ঞানের প্রতি ভালোবাসা জন্মানোর পাশাপাশি তাদের আত্মবিশ্বাসও বৃদ্ধি করবে। মেধাবী শিক্ষার্থীদের আরও উদ্বুদ্ধ করতে ও পাশে থাকতে পেরে বিজ্ঞানচিন্তা গর্বিত। শিক্ষার্থীদের চিন্তাশক্তির বিকাশ ঘটিয়ে এই বিজ্ঞান উৎসব ভবিষ্যতের বিজ্ঞানীদের গড়ে তুলবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন। বিকাশ লিমিটেডকে এই উদ্যোগের পাশে থাকার জন্য আন্তরিকভাবে ধন্যবাদ জানান।

ব্র্যাক ব্যাংক, যুক্তরাষ্ট্র ভিত্তিক মানি ইন মোশন, বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের অন্তর্গত ইন্টারন্যাশনাল ফিন্যান্স কর্পোরেশন, বিল অ্যান্ড মেলিন্ডা গেটস ফাউন্ডেশন এবং অ্যান্ট ফিনান্সিয়াল-এর যৌথ মালিকানাধীন প্রতিষ্ঠান বিকাশ, ২০১১ সাল থেকে বাংলাদেশ ব্যাংক নিয়ন্ত্রিত পেমেন্ট সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হিসেবে বিভিন্ন ধরনের মোবাইল/ডিজিটাল ফিনান্সিয়াল সার্ভিস দিয়ে আসছে।

*

*