বিকাশ গ্রিটিংস কার্ড

bkash-01

ঈদের চাঁদ আকাশে ওঠার আগেই মুশফিক এর ফেসবুক প্রোফাইলে গেলে দেখা যায় – “ঈদের চাঁদ আকাশে – সালামী দিন বিকাশে”। সদ্য মা হওয়া তনুর মামা তাকে ম্যাসেজে লিখেছিলো – “তোর বাচ্চার জন্য টাকা বিকাশ করলাম, পছন্দ মত কিছু কিনে নিস”। প্রত্যুষ ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তির সুযোগ পাওয়ার পর ফুফু ফোন করে বলেছিলেন, “পরীক্ষায় এত ভালো রেজাল্ট করেছিস, টাকা বিকাশ করলাম একটা মোবাইল কিনে নিস”। প্রতিবছর জন্মদিনে বোনের কাছ থেকে বিকাশে টাকা উপহার পায় শোভন। এমনি করেই প্রতিদিন মুশফিক, তনু, প্রত্যুষ, শোভনের গল্পের মত এমন অসংখ্য উপহারের গল্প তৈরি হয় বিকাশের “সেন্ড মানি” সেবা দিয়ে।

সেই প্রাচীন কাল থেকেই উপহার হিসেবে টাকা বা সালামী কিংবা বখশিশ দেয়ার যে প্রচলন আছে আমাদের সমাজে, তা এখন সময়ের সাথে তাল মিলিয়ে পেয়েছে ভিন্ন মাত্রা। প্রযুক্তির সহায়তায় প্রিয়জনকে এখন সময় মত উপহার দেয়াটা হয়ে গেছে আরো সহজ, ঝামেলাবিহীন এবং ব্যবহারিক। তাই দেশের বৃহত্তম মোবাইল আর্থিক সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান বিকাশ দিয়ে টাকা পাঠিয়ে প্রিয়জনের বিশেষ মুহুর্তে পাশে থাকার ঘটনা এখন অহরহই ঘটছে।

এবার, প্রিয়জনের কোন বিশেষ উপলক্ষ্যে বিকাশ অ্যাপ থেকে সেন্ড মানি করে টাকা পাঠানোর পাশাপাশি পাঠানো যাবে ‘গ্রিটিংস কার্ড’। এই ডিজিটাল কার্ডের মাধ্যমে প্রিয়জনকে জানানো যাবে শুভকামনা, অনুভূতি, স্নেহ-ভালবাসার অভিব্যক্তি। গ্রাহক চাইলে এই “গ্রিটিংস কার্ড”-টিকে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শেয়ার করে নিজেদের বিশেষ মুহূর্তগুলোকে আরো স্মরণীয় ও আনন্দময় করে নিতে পারেন।

আর তা করতে, বিকাশ অ্যাপ থেকে যে নম্বরে সেন্ড মানি করা হবে তা নির্বাচন করার পরপরই নিচের অংশে ‘আপনার উদ্দেশ্য সিলেক্ট করুন’ ট্যাবটি দেখতে পাবেন গ্রাহক। সেখানে থাকা সেন্ড মানি, গিফট, জন্মদিন, বিয়ে, অ্যানিভার্সারি, অভিনন্দন, শুভকামনা এবং ধন্যবাদ অপশনগুলো থেকে যে কোন একটি নির্বাচন করা যাবে।

ধরা যাক, গ্রাহক বিয়ে উপলক্ষ্যে গিফট দিচ্ছেন, সেক্ষেত্রে- “বিয়ে” আইকনটি সিলেক্ট করতে হবে। টাকার অংক লিখে পরের ধাপে গেলে রেফারেন্স অংশের নিচে “কার্ডের ম্যাসেজ আপডেট করুন” আইকন দেখা যাবে। গ্রাহক চাইলে যে ম্যাসেজ লেখা আছে তা রাখতে পারেন অথবা নতুন ম্যাসেজ লিখে দিতে পারেন। স্বাক্ষরের অংশে নাম লিখে দিতে হবে। পরের ধাপে পিন দিলেই সেন্ড মানি সম্পন্ন হবে।

গ্রাহক, যিনি গ্রিটিংস কার্ড সহ উপহার পেয়েছেন, তিনি তার ডিভাইসের নোটিফিকেশনে একটি গিফট বক্স দেখতে পাবেন। বক্সে ক্লিক করে বিকাশ অ্যাপে ঢুকলেই উপহারের পরিমাণ এবং ম্যাসেজ দেখতে পাবেন। তিনি চাইলে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম সহ বিভিন্ন মাধ্যমে কার্ডটি শেয়ার করতে পারবেন যেখানে টাকার অংক দেখা যাবে না কেবল ম্যাসেজটি দেখা যাবে।

পহেলা বৈশাখ, ঈদ এর মত গুরুত্বপূর্ন উৎসবগুলোতে নিয়মিত নতুন কার্ড যোগ হবে গ্রিটিংস সেকশনে। আর যে গ্রাহক এগুলো ব্যবহার করতে চান না তিনি কেবল “সেন্ড মানি” অপশন নির্বাচন করলেই গ্রিটিংস কার্ড ছাড়াই টাকা পাঠাতে পারবেন।

উপহারের সাথে জমে স্মৃতি। সেই স্মৃতিকে ডিজিটাল মাধ্যমে ধরে রাখতে বিকাশ এর গ্রিটিংস কার্ড এক অনন্য সুযোগ তৈরি করেছে। অভিনন্দন, শুভকামনা বা ব্যক্তিগত অনুভূতির ছোঁয়া মাখানো এই ডিজিটাল কার্ডটি বিকাশে পাঠানো টাকার সাথে জুড়ে দিয়ে প্রিয়জনের বিশেষ মুহুর্তগুলোকে এখন আরো অর্থবহ করে তোলা যাচ্ছে।

*

*