বাংলাদেশ ফিনটেক সামিট ২০১৯ অনুষ্ঠিত

Fintech Summit

জনগণ, সম্প্রদায় ও সমাজের জন্য বাংলাদেশকে আর্থিক সম্ভাব্যতা অর্জনে সহায়তা করতে গার্ডিয়ান লাইফ ইনস্যুরেন্সের পৃষ্ঠপোষকতায় গতকাল প্রথবারের মতো অনুষ্ঠিত হলো ‘বাংলাদেশ ফিনটেক সামিট ২০১৯’। বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরাম আয়োজিত এ সম্মেলনে সারাদেশ থেকে প্রায় তিন শতাধিক’ আর্থিক পেশাদার অংশগ্রহণ করেন।

এ সম্মেলনের প্রতিপাদ্য ছিলো ‘জনগণের জন্য অর্থের ভবিষ্যৎ রূপদান’। সম্মেলনের উদ্দেশ্য ছিল ফিনটেক প্রতিষ্ঠানগুলোর জন্য এমন একটি মঞ্চ তৈরি করা যেখানে তারা তাদের সাফল্য, ব্যর্থতা ও উঠে দাঁড়ানোর গল্পগুলো ভবিষ্যৎ উদ্যোক্তাদের সাথে শেয়ার করতে পারবেন এবং তাদেরকে উদ্বুদ্ধ করতে পারেন। পাশাপাশি, সংলাপের মাধ্যমে ভবিষ্যৎ ফিনটেক কোম্পানিগুলোর জন্য সঠিক কাঠামো গঠন ও নীতি নির্ধারণ করে বাংলাদেশের ফিনটেক ইন্ডাস্ট্রিকে আরও স্বয়ংসম্পূর্ণ করা যাতে বিশ্বব্যাপী ফিনটেক প্রসারের সকল সুবিধা পায় বাংলাদেশ।

বাংলাদেশ ফিনটেক সামিটের প্রথম সংস্করণে দেশীয় ও আন্তর্জাতিক ফিনটেক বিশেষজ্ঞদের দ্বারা চারটি মূল প্রবন্ধ উপস্থাপন করা হয় পাশাপাশি, সম্মেলনে পাঁচটি প্যানেল আলোচনা, একটি ইনসাইট সেশন, একটি কেস স্টাডি প্রেজেন্টেশন এবং দু’টি ব্রেকআউট সেশন অনুষ্ঠিত হয়। সম্মেলনের উদ্বোধনী বক্তব্যে সম্মেলনের উদ্বোধনী বক্তব্যে ডেলয়েট সাউথ এশিয়ার আর্থিক পরিষেবা শিল্পের প্রধান সঞ্জয় দত্ত বলেন, ‘কীভাবে আর্থিক পরিষেবাগুলি কাঠামোবদ্ধ, প্রস্তুত এবং ভোগ করা হচ্ছে, তারা ভবিষ্যত উদ্ভাবনের ভিত্তি স্থাপন করেছে এবং গতিবেগ স্থাপন করেছে তার ওপর ভিত্তি করে ফিনটেকগুলি পরিবর্তিত হয়েছে। ফলে, এ অনুযায়ী, আগত আর্থিক সংস্থাগুলি গ্রাহকের প্রত্যাশা মিলিয়ে সাড়া দিতে হবে।’ সম্মেলনের স্বাগত বক্তৃতায় বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক শরিফুল ইসলাম বলেন, ‘ফিনটেক এবং আর্থিক উদ্ভাবন বাংলাদেশের জন্য সর্বোপরি এবং টেকসই অগ্রগতি অর্জনে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে।’

এদিন মূলপ্রবন্ধ উপস্থাপন করেন ডেলয়েট সাউথ এশিয়ার আর্থিক পরিষেবা শিল্পের প্রধান সঞ্জয় দত্ত; অ্যান্ট ফাইনান্সিয়ালের সল্যুশন আর্কিটেক্ট শিলিন উ; ডিজিটাল ট্রান্সফরমেশন ও ব্লকচেইন বিশেষজ্ঞ ও টেক হুইস্পারারের লেখক জসপ্রীত বিন্দ্র এবং মেটলাইফ ইনোভেশন সেন্টারের লুমেনল্যাবের হেড অব স্ট্রাটেজিক পার্টনারশিপ লরেন লিয়াং।

এছাড়াও, সম্মেলনের বক্তাদের মধ্যে ছিলেন মো. আবুল কালাম আজাদ, প্রিন্সিপাল কো-অর্ডিনেটর, সাসটেইনেবেল ডেভলপমেন্ট গোলস (এসডিজি) কার্যক্রম, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়, গণপ্রজাতন্ত্রী

বাংলাদেশ সরকার; অনুব্রত চক্রবর্তী, পার্টনার ডেলয়েট টুশ, তোহমাতসু, ভারত এলএলপি; রাহেল আহমেদ,

ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও, প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড; মাশরুর আরেফিন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও, সিটি ব্যাংক লিমিটেড; মো. আরফান আলী, সভাপতি ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ব্যাংক এশিয়া লিমিটেড; আলী রেজা ইফতেখার, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও, ইস্টার্ন ব্যাংক লিমিটেড; দাইপায়ান কার চৌধুরী, ডিরেক্টর, ডেলয়েট শেয়ারড সার্ভিসেস ইন্ডিয়া এল এল পি; সাজিদ অমিত, সিনিয়র উপদেষ্টা বাংলাদেশ তালা.কম; সহযোগী অধ্যাপক ও পরিচালক, সিইএস ও ইএমবিএ, ইউনিভার্সিটি অফ লিবারেল আর্টস বাংলাদেশ (ইউল্যাব); সৈয়দ মোহাম্মদ কামাল, কান্ট্রি ম্যানেজার, মাস্টারকার্ড বাংলাদেশ, ইরেশ যাকের, বোর্ড সদস্য, ডিজিটাল ট্রি বাংলাদেশ; আরেফ আর বশির, সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও ব্যবস্থাপনা পরিচালক, ডি মানি বাংলাদেশ; আদিল ইসলাম, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, মেঘনা ব্যাংক লিমিটেড, বাংলাদেশ; মো. আনোয়ারুল ইসলাম, মহাব্যবস্থাপক আর্থিক অন্তর্ভুক্তি বিভাগ, বাংলাদেশ ব্যাংক; মো. আশরাফুল আলম, কান্ট্রি প্রজেক্ট কো-অর্ডিনেটর শিফট-সার্ক, ইউএনসিডিএফ, ডিএফসিজির সচিবালয়, সেলিম আরএফ হুসেন, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ব্র্যাক ব্যাংক লিমিটেড, বিকাশ; রেজাউল হোসেন, সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও পরিচালক, নগদ; তানিয়া শারমিন, সিনিয়র টিম লিডার , জানো, কেয়ার বাংলাদেশ; অনির্বাণ ভৌমিক, কান্ট্রি ডিরেক্টর, সুইসকন্ট্যাক্ট বাংলাদেশ; ফারজানা চৌধুরী, চার্টার্ড ইনস্যুরার, ম্যানেজিং ডিরেক্টর ও সিইও, গ্রীন ডেল্টা ইন্স্যুরেন্স কোম্পানি লিমিটেড; এম এম মনিরুল আলম, গার্ডিয়ান লাইফ ইন্স্যুরেন্স লিমিটেড; মাহবুবুল মতিন, চেয়ারম্যান, সিস্টেমস সলিউশন অ্যান্ড ডেভেলপমেন্ট টেকনোলজিস লিমিটেড; অনির চৌধুরী, নীতি উপদেষ্টা, এটুআই, গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকার; মোঃ আরাফাত হোসেন, টিম লিডার এফএইচআই থ্রিসিক্সটি; মোহাম্মদ এ (রুমী) আলী, চেয়ারম্যান এবি ব্যাংক লিমিটেড এবং প্রাক্তন ডেপুটি গভর্নর, বাংলাদেশ ব্যাংক; সৈয়দ মাহবুবুর রহমান, ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা, ঢাকা ব্যাংক লিমিটেড এবং রাজা দেবনাথ, ব্যবস্থাপনা অংশীদার, কোজেন্স ল্যাব।

এছাড়াও, সামিটে একটি ইনসাইট সেশন সঞ্চালনা করেন ওয়ান ব্যাংক লিমিটেডের এমএফএস এবং এজেন্ট ব্যাংকিংয়ের প্রধান ইভিপি গাজী ইয়ার মোহাম্মদ। এ সেশনের ম‚ল বিষয় ছিল, ‘ডিজিটাল লেন্ডিং: অ্যান এক্সপোনেনশিয়াল গ্রোথ ইঞ্জিন ফর ব্যাংকস অ্যান্ড ফিনটেক’। সম্মেলনে আর একটি কেস স্টাডি প্রেসেন্টেশন সম্পাদন করে হয়েছিল। এর বিষয়বস্তু ছিল ‘ফিউচার অব রিটেইল ব্যাংকিং: হাউ আমারটাকা.কম ইজ লেভারেজিং ফিনটেক টু এমপাওয়ার দ্য ইকোনোমি, কেসটি সঞ্চালনা করেন মারুফ তৌফিক, সিইও ও ফাউন্ডার, আমারটাকা.কম। সম্মেলনে পরবর্তীতে আরও দু’টি ব্রেকআউট সেশন অনুষ্ঠিত হয়।

‘আর্থিক খাত যেকোনো দেশের সম্ভাবনাময় ভবিষ্যৎ ও প্রবৃদ্ধিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বাংলাদেশের জন্যও ফিনটেক খাত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে। কীভাবে এটা শিল্পখাতকে নতুন

আকৃতি দেয় এবং সংলাপের ভিত্তিতে আর্থিক খাত বিস্তৃত হয়’, এ আলোচনার মধ্য দিয়ে শেষ হয় দিনব্যাপী অনুষ্ঠিত ‘বাংলাদেশ ফিনটেক সামিট ২০১৯’।

‘বাংলাদেশ ফিনটেক সামিট ২০১৯’ আয়োজনটি পৃষ্ঠপোষকতা করে গার্ডিয়ান লাইফ ইনস্যুরেন্স এবং আয়োজনে ছিল অ্যাকসেস টু ইনফরমেশন (এটুআই) ও সিটি ব্যাংক লি., সহযোগিতায় – প্রাইম ব্যাংক লিমিটেড ও ডিজিটাল ট্রি, স্ট্র্যাটেজিক পার্টনার- বাংলাদেশ ইনোভেশন কনক্লেভ, নলেজ পার্টনার- ডেলয়েট, ইভেন্ট পার্টনার- লা মেরিডিয়ান ঢাকা, টেকনোলজি পার্টনার- আমরা এবং পিআর পার্টনার- ব্যাকপেজ পিআর। বাংলাদেশ ফিন্টেক ফোরামের উদ্যোগে ও বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের আয়োজনে অনুষ্ঠিত হয় ‘বাংলাদেশ ফিনটেক সামিট ২০১৯’।

*

*