বাংলাদেশের পেপারফ্লাইয়ে একশো কোটি টাকা বিনিয়োগ করল ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ইকম এক্সপ্রেস

paper fly

বাংলাদেশের পেপারফ্লাইয়ে একশো কোটি টাকা বিনিয়োগ করেছে ভারতের প্রযুক্তিখাতের অন্যতম বিপণন প্রতিষ্ঠান ইকম এক্সপ্রেস। মঙ্গলবার এক বিবৃতিতে ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ওয়ারবার্গ পিনকাস এবং সিডিসি গ্রুপের আওতাধীন পণ্য সরবারহ প্রতিষ্ঠানটির সাথে বিনিয়োগ প্রক্রিয়া শেষ হবার খবর জানায় পেপারফ্লাই।

স্বদেশের বাইরে প্রথম বিনিয়োগ করলো ইকম এক্সপ্রেস। ভারতে জূড়ে ২৯০০ ডেলিভেরি পয়েন্টের মাধ্যমে দৈনিক ১০ লক্ষ মানুষের কাছে পণ্য পৌছে দিচ্ছে উদ্ভাবনী প্রযুক্তি ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানটি। বিদেশী বিনিয়োগ এবং অংশীদারিত্ব প্রসঙ্গে পেপারফ্লাইয়ের প্রধান নির্বাহী শাহরিয়ার হোসেন বলেন, বাংলাদেশের প্রযুক্তিখাতের প্রসারের সাথে সাথে ইকমার্স পণ্য সরবারহ সেবা কয়েকগুন বেড়ে যাবে।

প্রযুক্তি এবং উদ্ভাবনের সমন্বয়ে আমরা পণ্য ব্যবস্থাপনা গতানুগতিক ধারনা পাল্টে দিতে ইকম এক্সপ্রেসের সাথে অংশীদারিত্ব সহায়ক হবে বলে মন্তব্য করেন এই সহ-প্রতিষ্ঠাতা। প্রধান পরিচলন কর্মকর্তা রাজিবুল ইসলাম বলেন, স্থানীয়ভাবে গড়ে ওঠা প্রতিষ্ঠান হিসেবে দেশে জূড়ে পেপারফ্লাই গত পাঁচ বছরে বিপণন ব্যবস্থাপনা গড়ে তুলেছে। প্রসারমান ই-কমার্স খাতে অবদান রাখতে বিদেশী প্রতিষ্ঠানের সাথে অংশীদারিত্ব ব্যবসায় প্রসারে সাহায্য করবে।

পেপারফ্লাইয়ের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা রাহাত আহমেদের মতে – শুধুমাত্র ইকমার্স খাতে নয়, প্রযুক্তি ব্যবহারের মাধ্যমে প্রচলিত কুরিয়ার প্রতিষ্ঠানের গ্রাহক কেন্দ্রিক সেবা উন্নয়ন সম্ভব। ভারতীয় প্রতিষ্ঠান ইকমের অভিজ্ঞতা পেপার ফ্লাইয়ের মাধ্যমে বাংলাদেশে পণ্য সরবারহ সেবায় ভূমিকা রাখবে বলে আশা প্রকাশ করেন প্রধান প্রযুক্তি কর্মকর্তা শামসুদ্দিন আহমেদ।

ইকম এক্সপ্রেসের সহ-প্রতিষ্ঠাতা এবং প্রধান নির্বাহী টিএ কৃষনান বলেন, পণ্য ব্যস্থাপনায় অভিজ্ঞতা এবং উদ্যোক্তাদের নেতৃত্বের মাধ্যমে অনলাইন ব্যবসায় প্রতিষ্ঠিত হয়েছে পেপারফ্লাই। আমাদের বিনিয়োগ হল ডেলিভারি স্পেসে দ্রুত প্রবৃদ্ধি সরবরাহকারী সংস্থার সাথে অংশীদার হওয়ার একটি সুযোগ, যখন দীর্ঘ মেয়াদে একটি শক্তিশালী এবং টেকসই অপারেশন তৈরি করার সময়। ই-কমার্স, লজিস্টিক এবং প্রযুক্তি বাস্তুসংস্থানের মাধ্যমে সাপ্লাই চেইন দ্বারা উচ্চতর গ্রাহক অভিজ্ঞতা প্রদানে আমরা পেপারফ্লাইয়ের সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচনের প্রত্যাশায় রয়েছি।

*

*