বাংলাদেশি স্টার্টআপদের আমন্ত্রণ

metlife

মেটলাইফ তাদের গ্লোবাল ইনোভেশন প্লাটফর্ম কোলাব ৩.০ ইএমইএ-তে স্থানীয় শিল্পোদ্যক্তা ও স্টার্টআপদেরকে আমন্ত্রণ জানিয়েছে। ইউরোপ, মধ্যপ্রাচ্য ও আফ্রিকা জুড়ে বিমা সেবা গ্রহণকারীদের নানা প্রকার ইনোভেশন ধারণা ও সমস্যা সমাধানের উদ্যেগেই এই আয়োজন।

গোটা বিশ্বের সব নতুন উদ্যোক্তাদের সঙ্গে বাংলাদেশ থেকেও প্রতিযোগীরা অংশ নিতে পারবেন এই প্রোগ্রামে। গ্রাহকদের সঙ্গে যোগাযোগ, বিমা ব্যবসার মডেল ও বিপণন প্রক্রিয়া নির্ভর অভিনব সমাধানের এই প্রোগ্রামে বিজয়ী স্টার্টআপ আইডিয়া বাস্তবায়নে পাবেন ১০০,০০০ মার্কিন ডলার চুক্তি সহায়তা।  মেটলাইফ এশিয়ার ইনোভেশন সেন্টার লুমেন ল্যাব ‘কোলাব’ শীর্ষক এই স্টার্টআপ ঘোষণা দিয়েছে। ২০১৬ সালে সিঙ্গাপুর এবং ২০১৭ সালে জাপানে এই লক্ষ্যে দুটি অনুষ্ঠান আয়োজন করা হয়েছে যেখানে ৩৫টি দেশ থেকে ২৫০ জন প্রতিযোগীর আবেদন জমা পড়ে।

এ প্রসঙ্গে মেটলাইফ এশিয়ার প্রধান ইনোভেশন অফিসার এবং লুমেন ল্যাবের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জিয়া জামান বলেন, ‘ইন্স্যুরেন্স শিল্পখাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন আনতে আমরা খুবই আগ্রহী এবং আমরা এটাও জানি একা চেষ্টা করে সেটা সম্ভব না। গ্রাহকদের সঙ্গে সম্পর্ক স্থাপন এবং তাদের কাছ থেকে ধারণা নিয়ে ইন্স্যুরেন্সের নানা প্রযুক্তি খাত উন্নয়নে কাজ করছি আমরা। কোলাবের মত আয়োজন দিয়ে আমরা ভবিষ্যতের জন্য শক্তিশালী ইকোসিস্টেম তৈরী করছি।’

দীর্ঘ বাছাই প্রক্রিয়া শেষে শীর্ষ আটজনকে নির্বাচিত করা হবে। এবং তাদেরকে মেটলাইফ ইএমইএ’র চ্যাম্পিয়ন কর্মীদের সঙ্গে যুথবদ্ধ করে দেয়া হবে। এখন পর্যন্ত এশিয়ায় কোলাবের মাধ্যমে প্রায় ৫০০,০০০ মার্কিন ডলার সমমূল্যের চুক্তি সম্পন্ন করেছে মেটলাইফ। এই সকল চুক্তির মাধ্যমে বিমা খাতের বিভিন্ন দিক নির্দেশনা থেকে শুরু করে ব্যবসার মান উন্নয়নে মেটলাইফের পথচলা সহজ করেছে বলেই মনে করছে কোম্পানিটি।

এই প্রতিযোগিতার ফাইনালিস্টদের কোলাব সামিট ইএমইএ এবং ডেমো ডে প্রোগ্রামের জন্য লন্ডনে নিমন্ত্রণ দেয়া হবে, যেটি অনুষ্ঠিত হবে জুলাইয়ের ১১-১২ তারিখ। সেখানেই ঘোষণা করা হবে চূড়ান্ত বিজয়ীর নাম। ইচ্ছুক আবেদনকারীদের জন্য কোলাব ওয়েবসাইট খোলা রয়েছে এবং এপ্রিলের ২০ তারিখ পর্যন্ত আবেদন করা যাবে। কোলাব ৩.০ ইএমইএ-তে আবেদন করতে এবং বিস্তারিত আরো জানতে ভিজিট কক্তুন: collab.lumenlab.sg

*

*