প্যানটোনের কালার অব ইয়ার ২০২১-এ রিয়েলমি’র ভিজ্যুয়াল আইডেন্টিটির প্রতিফলন

realmee

প্রফেশনাল কালার ইনস্টিটিউট প্যানটোন হলুদ (ইয়েলো) ও ধূসর (গ্রে) রঙকে কালার অব দ্য ইয়ার ২০২১ (বর্ষসেরা রঙ ২০২১) হিসেবে ঘোষণা দিয়েছে। তরুণদের পছন্দের ব্র্যান্ড রিয়েলমি’র সিগনেচার ভিজ্যুয়াল আইডেন্টিটি ’রিয়েলমি গ্রে’ এবং ’রিয়েলমি ইয়েলো’-তে প্যানটোনের বর্ষসেরা দু’টি রঙের প্রতিফলন ঘটেছে। এটি কোন কাকতালীয় ব্যাপার নয় বরং বিষয়টি গত বছরের শুরুতে বৈশ্বিকভাবে প্রশংসিত পেন্টাগ্রাম পার্টনার ও চিফ ডিজাইনার এডি অপারা’র সহযোগিতায় রিয়েলমি ভিজ্যুয়াল আইডেন্টিটির ক্ষেত্রে যে আপডেট নিয়ে এসেছিলো, এটি তারই ফলাফল।

ট্রেন্ডসেটিং প্রযুক্তি ব্র্যান্ড হিসেবে, রিয়েলমি সবসময় তরুণদের পছন্দ ও প্রয়োজনীয়তার বিষয়টিকে অগ্রাধিকার দিয়ে আসছে। এরই ধারাবাহিকতায়, বিশ্বব্যাপী তরুণ স্মার্টফোন ব্যবহারকারীদের জন্য রিয়েলমি সবসময় ট্রেন্ডসেটিং ডিজাইন ও দুর্দান্ত পারফরমেন্সের পণ্য নিয়ে আসতে সচেষ্ট।

সম্পূর্ণরূপে ভিআই ভিজ্যুয়াল ডিজাইন নিয়ে আসতে রিয়েলমি’র ডিজাইন দল ‘রিয়েলমি ডিজাইন স্টুডিও’র নেতৃত্বে ছিলো বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় ডিজাইন স্টুডিও পেন্টাগ্রাম; যা ব্র্যান্ডটিকে করেছে আরো ট্রেন্ডি এবং এর পণ্যগুলোতে যুক্ত করা হয়েছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি।

ভাইব্রেন্ট গোল্ডেন ইয়েলো’র ওপর ভিত্তি করে এর ভিজ্যুয়াল আইডেন্টিটি সিস্টেম ও লোগো তৈরি করা হয়েছে। এই রঙটি’র নাম দেয়া হয়েছে ‘রিয়েলমি ইয়েলো’ – যা শক্তি, আধুনিকতা, তারুণ্য ও স্টাইলের প্রতিনিধিত্ব করে; একইসঙ্গে প্রাচ্য ও পশ্চিমা সংস্কৃতির ইতিবাচক বিষয়গুলোকেও সম্পৃক্ত করে। এর মধ্যে ইতিবাচকতা, আশাবাদ, বন্ধুত্ব, প্রাণচাঞ্চল্য, প্রজ্ঞা, ঐক্য, সমৃদ্ধি উল্লেখযোগ্য। এর প্রধান সাহায্যকারী রঙ গ্রে বা ধূসর – পেশাদারিত্ব, প্রশান্তি ও অন্তর্ভূক্তির বিষয়গুলোকে প্রতিনিধিত্ব করে এবং এগুলো রিয়েলমি’র সামগ্রিক ব্র্যান্ড ভিআইতে অন্যান্য সাহায্যকারী রঙ ক্ল্যাসিক ব্ল্যাক ও হোয়াইট এবং লাইট গ্রে টোনেও ব্যবহার করা হবে। ইন্ডাস্ট্রিয়াল ডিজাইন মাস্টার নাওতো ফুকাসাওয়ার ডিজাইনে তৈরি রিয়েলমি এক্স২ প্রো মাস্টার এডিশনটিতে ‘রিয়েলমি গ্রে’র ব্যবহার করা হয়, যা প্যানটোনের কালার অব দ্য ইয়ার ২০২১ ‘আল্টিমেট গ্রে’ এর সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ।

বাজারে বিস্তৃত পরিসরের ট্রেন্ডি স্মার্টফোন নিয়ে আসার ক্ষেত্রে রিয়েলমি বিশ্বব্যাপী খ্যাতি অর্জন করে নিয়েছে। একইসঙ্গে বিশ্বজুড়ে তরুণদের জন্য অত্যাধুনিক প্রযুক্তির ডিভাইসের সাথে তরুণ প্রযুক্তিপ্রেমীদের সম্মিলন ঘটানোর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি তাদের জীবনের সাথে ওতোপ্রোতভাবে মিশে গেছে। এরই ধারাবাহিকতায়, রিয়েলমি তাদের পণ্যসীমার পরিধি বিস্তৃত করছে এবং ট্রেন্ডি পণ্যের পোর্টফোলিওতে আইকনিক কুল ‘রিয়েলমি গ্রে’ এবং লাইভলি ‘রিয়েলমি ইয়েলো’ যুক্ত করেছে; যা ব্যবহারকারীদের রিয়েলমি’র ট্রেন্ডি পণ্য ব্যবহারের দুর্দান্ত অভিজ্ঞতার সুযোগ তৈরি করবে।

চলতি বছরের প্রথম প্রান্তিকে রিয়েলমি বিস্তৃত পরিসরের স্মার্টফোন ও আইওটি পণ্য উন্মোচন করার পরিকল্পনা নিয়েছে। এই পণ্যগুলো ব্যবহারকারীর স্মার্টফোন ব্যবহারের দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা প্রদান করবে এবং তরুণ ব্যবহারকারীদের জীবনধারায় ইতিবাচক পরিবর্তন নিয়ে আসবে।

*

*