নেক্সট জেনারেশন ফোন- গ্যালাক্সি এ৩০এস ও এ৫০এস

samsung

রোমাঞ্চকর মুহূর্তগুলোকে ক্যামেরাবন্দি করতে যারা ভালোবাসেন তাদের জন্য স্যামসাং বাংলাদেশ দেশের বাজারে উন্মোচন করেছে গ্যালাক্সি এ৩০এস এবং গ্যালাক্সি এ৫০এস মডেলের দুটি স্মার্টফোন। এর ফলে স্যামসাং-এর ‘এএস সিরিজের’ পালে যুক্ত হলো নতুন দুটি হ্যান্ডসেট।  স্মার্টফোন দুটিতে রয়েছে বৈচিত্র্যপূর্ণ ক্যামেরা, উন্নতমানের ইনফিনিটি ডিসপ্লে এবং দীর্ঘস্থায়ী ব্যাটারির সুবিধা।

গ্যালাক্সি এ৩০এস হ্যান্ডসেটটিতে ছবি তোলার জন্য রয়েছে ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা। যার ক্যামেরা সেটআপ হচ্ছে – ২৫ মেগাপিক্সেল প্রাইমারি ক্যামেরা, ৮ মেগাপিক্সেলের ওয়াইড অ্যাঙ্গেল ক্যামেরা এবং ৫ মেগাপিক্সেল ডেপ্থ সেন্সর। ছবি তোলার ক্ষেত্রে ব্যবহারকারীরা গ্যালাক্সি এ৩০এস ডিভাইসটির ৫ মেগাপিক্সেল ডেপথ ক্যামেরার লাইভ ফোকাস অপশন নির্বাচন করে উন্নতমানের বোকেহ্ ইফেক্ট ব্যবহার করতে পারবেন এবং দ্রুততার সাথে অনবরত ছবি তুলতে পারবেন। নিখুঁতভাবে ছবি তোলার ক্ষেত্রে হ্যান্ডসেটটিতে ইন্টেলিজেন্ট ফ্ল ডিটেক্টর এবং সিন অপটিমাইজার টুল দুটি খুবই কার্যকর।

ফোনটিতে ৬.৪ ইঞ্চি সুপার ইনফিনিটি-ভি অ্যামোলেড ডিসপ্লে থাকছে। ডিভাইসটিতে এক্সিনোস ৭৯০৪ অক্টাকোর প্রসেসর, ৪জিবি র‌্যাম, ৬৪ জিবি (পরবর্তীতে ১২৮ জিবি সংস্করণ উন্মোচন করা হবে) ইন্টারনাল স্টোরেজ (৫১২ জিবি পর্যন্ত বর্ধিত করা যাবে) এবং অ্যান্ড্রয়েড পাই অপারেটিং সিস্টেম রয়েছে।

অন্যদিকে, ব্যবহারকারীরা গ্যালাক্সি এ৫০এস হ্যান্ডসেটটির শক্তিশালী ৪৮ মেগাপিক্সেল-এর প্রধান ক্যামেরা ব্যবহারের মাধ্যমে লাইভ কনসার্ট-এর ভিডিও রেকর্ডিং কিংবা দৃশ্যবস্তুর পুঙ্খানুপুঙ্খভাবে ক্যামেরাবন্দি করতে সক্ষম হবেন। পাশাপাশি সেলফি স্ন্যাপ নেয়ার ক্ষেত্রেও ফোনটি দেবে দুর্দান্ত অভিজ্ঞতা। হ্যান্ডসেটটির ১২৩ ডিগ্রি আল্ট্রাওয়াইড ক্যামেরাটি মানুষের চোখ যেভাবে দৃশ্যবস্তুকে দেখতে পায়, ঠিক তেমনিভাবে ছবি ধারণে সক্ষম। এছাড়া এর মাধ্যমে খুব সহজেই ল্যান্ডস্কেপ ও ওয়াইড প্যানারোমা ছবি তোলা যায় অনায়াসে। গ্যালাক্সি এ৫০এস ডিভাইসটির সুপার স্টেডি ফিচারের মাধ্যমে চলার পথে সহজেই ঝকঝকে ছবি তোলার পাশাপাশি দ্রুতগতিতে চলমান মুহূর্তগুলোকে ত্রুটিহীনভাবে ভিডিও ধারণ করতে পারবেন ব্যবহারকারীরা।

ফোনটিতে ৬.৪ ইঞ্চি সুপার অ্যামোলেড ইনফিনিটি-ইউ ডিসপ্লে রয়েছে। ডিভাইসটি অ্যান্ড্রয়েড পাই ওয়ানইউআই সমর্থিত এবং এতে ব্যবহার করা হয়েছে এক্সিনোস ৯৬১১ অক্টাকোর প্রসেসর, ৬ জিবি র‌্যাম ও ১২৮ জিবি ইন্টারনাল স্টোরেজ (৫১২ পর্যন্ত বৃদ্ধি করা যাবে)।

উল্লেখিত নতুন দুটি ডিভাইসেই রয়েছে ৪ হাজার মিলিঅ্যাম্পিয়ারের ব্যাটারি। দ্রুত গতিতে চার্জের জন্য থাকছে ১৫ ওয়াটের ফাস্ট চার্জিং সুবিধা, যা দুর্দান্ত গেমিং পারফরম্যান্স প্রদানে সক্ষম।

এ প্রসঙ্গে স্যামসাং বাংলাদেশের হেড অব মোবাইল মো. মূয়ীদুর রহমান বলেন, “প্রযুক্তিপ্রেমীদের স্মার্টফোন ব্যবহারের চাহিদা প্রতিনিয়ত পরিবর্তর্তিত হচ্ছে। তাই আমরা প্রতিনিয়ত উদ্ভাবনের মাধ্যমে ক্রেতাদের সেরা স্মার্টফোনের অভিজ্ঞতা প্রদানে সচেষ্ট। গ্যালাক্সি এ৩০এস এবং এ৫০এস ক্রেতাদের প্রতিদিনের প্রয়োজনীয় কাজ সম্পন্নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।”

নান্দনিক ডিজাইনসমৃদ্ধ স্যামসাং গ্যালাক্সি এ৩০এস এবং এ৫০এস হ্যান্ডসেটে রয়েছে অনন্য জিওম্যাট্রিক প্যাটার্ন এবং পেছনের অংশে রয়েছে ফিউচারিস্টিক হলোগ্রাফিক ইফেক্ট। প্রিজম ক্রাশ ব্ল্যাক, প্রিজম ক্রাশ হোয়াইট এবং প্রিজম ক্রাশ ব্লু- এই তিনটি রঙে পাওয়া যাচ্ছে ডিভাইগুলো। গ্যালাক্সি এ৩০এস পাওয়া যাবে ২২, ৯৯০ টাকায় এবং গ্যালাক্সি এ৫০এস পাওয়া যাবে ২৯, ৯৯০ টাকায়।

*

*