নকিয়ার নতুন ফোন

nokia

আজ থেকে দেশের বাজারে পাওয়া যাচ্ছে ‘নোকিয়া ২.৩’ মডেলের স্মার্টফোন ও নোকিয়া ৮০০ টাফ মডেলের হ্যান্ডসেটটি। গতকাল বৃহস্পতিবার বিকালে ঢাকা আন্তর্জাতিক বাণিজ্য মেলায় নোকিয়ার ফোন স্টলে নতুন স্মার্টফোনটির উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্রের জনপ্রিয় অভিনেতা ও প্রযোজক ফেরদৌস আহমেদ। অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন এইচএমডি গ্লোবাল বাংলাদেশ-এর হেড অব মার্কেটিং, ইফফাত জহুর; এইচএমডি গ্লোবাল-এর হেড অব সেলস অপারেশন, মোজাম্মেল খানসহ এইচএমডি গ্লোবাল ও সিএমপিএল-এর উচ্চ পদস্থ কর্মকর্তারা।

‘নোকিয়া ২.৩’ মডেলের স্মার্টফোনটিতে রয়েছে আর্টিফিশিয়াল ইন্টেলিজেন্স দ্বারা নিয়ন্ত্রিত ক্যামেরা, যা ব্যাবহারকারীকে সেরা ছবি তোলার অভিজ্ঞতা দিবে। পাশাপাশি স্মার্টফোনটির দু’দিনের ব্যাটারি লাইফ এবং ৬.২ ইঞ্চির এইচডি+ স্ক্রিন বহুমাত্রিক বিনোদনও দীর্ঘস্থায়ী করার সুযোগ করে দিবে। আর সময়ের সাথে সাথে স্মার্টফোনটিকে আরো অত্যাধুনিক করে তুলতে অ্যান্ড্রয়েড™১০ ব্যাবহার করা ‘নোকিয়া ২.৩’তে গ্রাহকরা পাচ্ছেন তিন বছরের মাসিক সিকিউরিটি আপডেট এবং দুই বছরের অপারেটিং সিস্টেম(ও এস)আপডেট-এর প্রতিশ্রুতি। দেশের বাজারে আগামীকাল থেকে মাত্র ১০,৯৯৯ টাকায় তিনটি ভিন্ন কালারে (সায়ান গ্রীন, স্যান্ড ও চারকোল) পাওয়া যাবে নোকিয়ার নতুন এ স্মার্টফোনটি।

গত বছরের সেপ্টেম্বর মাসের শুরুর দিকে ‘নোকিয়া ৮০০ টাফ’ বাজারে আনার ঘোষণা দিয়েছিল এইচএমডি গ্লোবাল। শীর্ষস্থানীয় ফিচার ফোন পোর্টফোলিওতে যোগ হতে যাওয়া ‘নোকিয়া ৮০০ টাফ’ হলো এইচএমডি গ্লোবাল-এর প্রথম মজবুত ফিচার ফোন। স্থায়িত্ব ও ব্যাটারি লাইফের দিক থেকে ‘বেঞ্চমার্ক’ বলে দাবিকৃত এই ফোনটিতে ব্যবহারকারীদের জন্যে সংযুক্ত করা হয়েছে অত্যাবশ্যকীয় আধুনিক ফিচার যেমন গুগল অ্যাসিস্ট্যান্ট, ৪জি ব্যবহারের সক্ষমতা এবং ফেইসবুক, হোয়াটসঅ্যাপসহ বেশ কয়েকটি জনপ্রিয় অ্যাপ। ‘নোকিয়া ৮০০ টাফ’ ফোনটি ডেসার্ট স্যান্ড কালারে আগামীকাল থেকে মাত্র ১০,২৫০ টাকায় সারদেশে পাওয়া যাবে।

বাংলাদেশের এইচএমডি গ্লোবাল বাংলাদেশ-এর হেড অব মার্কেটিং, ইফফাত জহুর বলেন, “বিশ্বজুড়েই ‘নোকিয়া ২’ সিরিজের ফোনগুলো গ্রাহকদের প্রশংসা কুড়িয়েছে। আমরা বিশ্বাস করি, আমাদের গ্রাহকরা ‘নোকিয়া ২.৩’ ফোনটিও ভীষণ পছন্দ করবেন এর এআই, বড় স্ক্রিন এবং দুই দিনের ব্যাটারি লাইফের প্রতিশ্রুতি সাশ্রয়ীমূল্যে পাবার কারণে। সর্বোপরি দুই বছরের ও এস আপগ্রেড এবং তিন বছরের মাসিক সুরক্ষা আপডেটের সুবিধার কারণে এই ফোনটি বাজারের সেরা ফোনগুলোর একটি হিসেবে বিবেচ্য হবে”।

বিশেষ অতিথির বক্তব্যে জনাব ফেরদৌস আহমেদ বলেন, “আমি সবসময়ই নোকিয়া ফোনের একজন ভক্ত। এই অনুষ্ঠানের অংশ হতে পেরে আর সেইসাথে বাংলাদেশের গ্রাহকদের জন্য, আকর্ষণীয় এই নতুন ফোনটি উন্মোচন করার সুযোগ দিয়ে আমাকে সম্মানিত করায় আমি ভীষণ আনন্দিত”।

*

*