চালু হলো প্রযুক্তিনির্ভর অত্যাধুনিক চিকিৎসাকেন্দ্র

Dhaka Pain & Spine Center

শরীরের বিভিন্ন স্থানে ব্যথা বর্তমানে সবার জন্য সাধারণ একটি সমস্যা হয়ে উঠেছে। বিশেষ করে বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে এ ধরনের ব্যথা বেড়ে যায়। সঙ্গে বাড়ে তীব্রতাও। নারীদের ক্ষেত্রে এই সমস্যায় আক্রান্ত হওয়ার হার অনেক বেশি।

ব্যথায় আক্রান্তদের মধ্যে অনেকেই বিভিন্ন ধরনের চিকিৎসা নিয়ে থাকেন। এর মধ্যে আছে ফিজিওথেরাপি, অপারেশন কিংবা অন্য কোনো ধরনের ওষুধ গ্রহণ করা। কিন্তু এসবেও দীর্ঘমেয়াদি কোনো উপকার মেলে না। দিনশেষে তাই ব্যথার সঙ্গে সংগ্রাম করেই দিন কাটাতে হয়।

ব্যথা যাদের নিত্যসঙ্গী তাদের হয়তো কষ্টের দিন শেষ হওয়ার পথে। কারণ, বাংলাদেশেই এখন সম্পূর্ণ ভিন্ন পদ্ধতিতে ব্যথার চিকিৎসা শুরু হয়েছে। এতে রোগীরাও স্বস্তি পাওয়ায় মিলেছে অকল্পনীয় সাড়া। ব্যথার জন্য ভিন্নধর্মী সম্পূর্ণ অত্যাধুনিক এই চিকিৎসা চালু করেছেন স্বপ্নবাজ একদল চিকিৎসক।

তারা ব্যথা নিরাময়ের এই চিকিৎসাকেন্দ্রের নাম দিয়েছেন ‘ঢাকা পেইন অ্যান্ড স্পাইন সেন্টার’। ঢাকার বনানীতে চালু হওয়া এই ব্যথা নিরাময়কেন্দ্রে সব ধরনের ব্যথারই চিকিৎসা দেওয়া হয়। কোনও ব্যথার রোগী সেখানে যাওয়ার পর প্রথমেই তাকে দেখেন কয়েকজন বিশেষজ্ঞ চিকিৎসক। এরপর ঠিক কোন জায়গায় ব্যথা এবং কী কারণে এই ব্যথার সৃষ্টি তা খুঁজে পেতে চলে আধুনিক যন্ত্রপাতির সাহায্যে পরীক্ষা-নিরীক্ষা।

ব্যথার কারণ খুঁজে পাওয়ার পর সেটি সারানোর জন্য সর্বাধুনিক পদ্ধতি অবলম্বন করা হয়, যেখানে অপারেশনকে এড়িয়ে যাওয়া হয় সম্পূর্ণভাবে। এছাড়া সবচেয়ে কম ওষুধ ব্যবহারে কীভাবে ব্যথাটি থেকে মুক্তি মিলবে সেই পথও দেখিয়ে দেন এখানকার অভিজ্ঞ চিকিৎসকরা।

ঢাকার এই প্রয়োজনীয় সেবাকেন্দ্রটির স্লোগান হলো- ‘রিসলভ পেইন, রিগেইন লাইফ’। যার বাংলা অর্থ করলে দাঁড়ায় অনেকটা এরকম- ব্যথামুক্ত হোন, নতুন জীবন শুরু করুন। দীর্ঘদিনের অসহ্য ব্যথা থেকে মুক্তি পাওয়া মানে তো নতুন জীবনেরই শুরু।

শরীরের যেকোনও জায়গার দীর্ঘদিনের ব্যথা বা ক্রনিক পেইন নিরাময়ে এ প্রতিষ্ঠানে রয়েছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তি। বাংলাদেশের শতকরা ৫ থেকে ১০ ভাগ মানুষ কোনও না কোনও দীর্ঘস্থায়ী ব্যথা যেমন- কোমর, ঘাড়, হাঁটু, পায়ের গোড়ালির ব্যথা ইত্যাদি সমস্যায় ভোগেন। তারা হয়তো বিভিন্ন ওষুধ, ফিজিওথেরাপি বা অপারেশন করেছেন, কিন্তু তারপরও প্রত্যাশিত ব্যথা নিরাময় হয়নি।

তাদের জন্য এই সেন্টার নিয়ে এসেছে পিআরপি (প্লাটিলেট রিচ্ প্লাজমা) চিকিৎসা, ওজন চিকিৎসা, স্টেম সেল চিকিৎসা, রেডিও ফ্রিকোয়েন্সি অ্যাবোলেশন ও বিভিন্ন পেইন ইন্টারভেনশন। এখানে রয়েছে সর্বাধুনিক মাসকুলোস্কেলেটাল আলট্রাসনোগ্রাফি যার মাধ্যমে ব্যথার কারণ নির্ণয় করা হয়। ব্যথার চিকিৎসায় আলট্রাসনোগ্রাফি মেশিনের সাহায্যে সুনির্দিষ্ট জায়গায় প্রয়োজনীয় চিকিৎসা পদ্ধতি প্রয়োগ করা হয়।

দু’জন তরুণ উদ্যমী ব্যথা বিশেষজ্ঞের তত্ত্বাবধানেই মূলত এই সেন্টার পরিচালিত হচ্ছে। এখানে বিশেষজ্ঞ কনসালটেন্ট হিসেবে আছেন ডাক্তার মোহাম্মদ আনিসুর রহমান এবং ডাক্তার মো. জোবায়ের হোসেন। যুক্তরাষ্ট্র, থাইল্যান্ড, সিঙ্গাপুর ও ভারতসহ পৃথিবীর বিভিন্ন দেশে ব্যথা চিকিৎসার ওপর উন্নত প্রশিক্ষণ নিয়ে তারা বাংলাদেশে এই সেন্টার চালু করেছেন।

এই পেইন সেন্টারের বিশেষত্ব কী- এমন প্রশ্নের জবাবে চিকিৎসকদ্বয় বলেন, ব্যথার চিকিৎসা হিসেবে অনেক রোগী অপারেশনের পরামর্শ পান। কিন্তু অনেকেই আছেন যারা অপারেশন করাতে চান না। তারা চলে যান দেশের বাইরে। সেখানে অপারেশন ছাড়াই পেইন ইন্টারভেনশন নিয়ে সুস্থ হয়ে ফেরেন। আমরা সেই বিদেশের সুবিধাই এখন দেশে নিয়ে এসেছি।

তারা আরও বলেন, উন্নত বিশ্বে ব্যথা সংক্রান্ত জটিল অপারেশন এড়াতে যেসব পেইন ইন্টারভেনশন খুব জনপ্রিয় সেসব ইন্টারভেনশন এতদিন আমাদের দেশে প্রচলিত ছিল না। এই ইন্টারভেনশনগুলো আমাদের সেন্টারে রয়েছে। ফলে ব্যথা মুক্তির জন্য আর হাজার কিলোমিটার পথ পাড়ি দিতে হবে না। দেশেই এখন বিশ্বমানের চিকিৎসা দেওয়া শুরু করেছি আমরা। এরই মধ্যে অনেক রোগী সুস্থ হওয়ায় আমরা যথেষ্ট সাড়াও পাচ্ছি। যোগাযোগ:০১৭৩৩৮৮৮৩৮৮।

*

*