ডিজিটাল বাংলাদেশ সম্মাননা পেলেন আব্দুল্লাহ এইচ কাফি

Digital Bangladesh Kafi

দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতকে বর্হিবিশ্বে তুলে ধরার স্বীকৃতিস্বরূপ ‌’ডিজিটাল বাংলাদেশ সম্মাননা’ পেলেন আব্দুল্লাহ এইচ কাফি। গত শনিবার ‌’ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’র সমাপনি দিনে অর্থমন্ত্রী আ হ ম মোস্তফা কামালের হাত থেকে এশিয়ান ওশেনিয়ান কম্পিউটিং ইন্ডাস্ট্রি অ্যাসোসিয়েশনের (অ্যাসোসিও) সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল্লাহ এইচ কাফি এ পুরস্কার গ্রহণ করেন। এ সময় ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার উপস্থিত ছিলেন। ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের আয়োজনে তিন দিনের ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলার সমাপনি দিনে পাঁচ ব্যক্তি ও নয় প্রতিষ্ঠানকে এ পুরস্কার দেওয়া হয়।  দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের অন্যতম পথিকৃৎ সফল উদ্যোক্তা এবং সংগঠন আব্দুল্লাহ এইচ কাফি বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতির (বিসিএস) প্রতিষ্ঠাতা সভাপতি এবং এশিয়া ও ওশেনিয়া অঞ্চলের ২৪টি দেশের সংগঠন অ্যাসোসিওর সাবেক চেয়ারম্যান হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।  তিনি বর্তমানে জাতিসংঘের অঙ্গসংস্থা ইন্টারনেট গর্ভনেন্স ফোরামের সদস্য, উইটসার পরিচালক, অ্যাসোসিওর অ্যাওয়ার্ড কমিটির প্রধান বিচারক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন। পাশাপাশি বেশ কয়েকটি আন্তর্জাতিক সংস্থার সঙ্গেও যুক্ত রয়েছেন তিনি। তিনি বর্তমানে দেশে ক্যানন পণ্যের অনুমোদিত পরিবশেক জেএএন অ্যাসোসিয়েটসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক। এর আগে ২০১৮ সালে অ্যাসোসিও প্রতিষ্ঠার ৩৫ বছরে জাপানে আয়োজিত অনুষ্ঠানে তাকে সংগঠনটির পক্ষ থেকে সর্বোচ্চ সম্মাননা পুরস্কার প্রদান করা হয়। চতুর্থ ব্যক্তি হিসেবে অ্যাসোসিওর এ সম্মাননা অর্জন করেন তিনি। এছাড়া তথ্যপ্রযুক্তি খাতে অবদান রাখার জন্য বিভিন্ন সময় নানা পুরস্কারে ভূষিত হয়েছেন তিনি। এ পুরস্কার প্রাপ্তিতে তিনি ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার, প্রধানমন্ত্রীর তথ্যপ্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয় এবং প্রধানমন্ত্রীকে ধন্যবাদ জানিয়ে বলেন, ‘পুরস্কারের চেয়ে দেশের জন্য কাজ করাটাই আনন্দের। আজীবন দেশের তথ্যপ্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে ভূমিকা রেখে যেতে চাই। ডিজিটাল বাংলাদেশ বিনির্মাণের কর্মযজ্ঞটি বিশ্ব দরবারে ছড়িয়ে দিতে আমার সাধ্যের মধ্যে এখনও কাজ করছি আগামীতেও কারে যাব।’
উল্লেখ্য, গত ১৬ জানুয়ারি ডাক ও টেলিযোগাযোগ বিভাগের আয়োজেন রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলনে শুরু হয় তিন দিনের ‌ডিজিটাল বাংলাদেশ মেলা’। এ মেলা আয়োজনে সার্বিক সহযোগিতায় ছিল আইএসপিএবি।

*

*