ক্রাফের তৃতীয় বর্ষপূর্তি

CRAF

নিরাপদ সাইবার স্পেসের জন্য প্রযুক্তিগত সহায়তাদানকারী প্রতিষ্ঠান ক্রাইম রিসার্চ অ্যানালাইসিস ফাউন্ডেশন (ক্রাফ) তৃতীয় বছরে পদার্পন করলো। ক্রাফের তৃতীয় বর্ষপূর্তি উদযাপন উপলক্ষে মঙ্গলবার (১২ ফেব্রুয়ারি) আগারগাঁও আইসিটি টাওয়ারে কেক কাটেন ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তি মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন ক্রাফের সভাপতি জেনিফার আলম, মহাসচিব মিনহার মহসিন, পরিচালক এম. মিজানুর রহমান সোহেল, হেড অব অপারেশনস মেহনাজ তাবাসসুম, জাতীয় জরুরী সেবা ৯৯৯ বিভাগের এএসপি মিজানুর রহমান পাটোয়ারী প্রমুখ। বর্ষপূর্তির সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়েছে, ক্রাফ একটি গবেষণাধর্মী ও সামাজিক আন্দোলনরত অলাভজনক প্রতিষ্ঠান, যা প্রধানত সচেতনতা সৃষ্টি এবং বাংলাদেশ এবং বিশ্বব্যাপী নিরাপদ সাইবার স্পেসের জন্য প্রযুক্তিগত সহায়তা ও সমাধান প্রদান করে থাকে। গবেষণা, কারিগরি সহায়তা ও জনশিক্ষার মাধ্যমে ক্রাফ শান্তিপূর্ণ উপায়ে বাংলাদেশে অন্যায়, অগণতান্ত্রিক ও ঝুঁকিপূর্ণ আচরণের বিরুদ্ধে প্রতিপক্ষ হয়ে নিরাপত্তার ঢাল হয়ে কাজ করছে। ক্রাফ এখন পর্যন্ত সরকারের বিভিন্ন আইন শৃঙ্খলা বাহিনী, জাতীয় ও আন্তর্জাতিক প্রতিষ্ঠান, বিশ্ববিদ্যালয় ও কমিউনিটির হয়ে বেশ কয়েকটি গবেষণা ও জনসচেতনামূলক প্রকল্প সফলভাবে সমন্বয় ও পরিচালনা করেছে এবং নিরাপদ সাইবার স্পেস বজায় রাখার জন্য সরকারি ও বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধি স্বরূপ প্রযুক্তিগত সমাধান প্রদান করছে। এ ব্যাপারে ক্রাফের প্রেসিডেন্ট জেনিফার আলম বলেন, বিগত বছরগুলোতে ক্রাফ জনগণ এবং বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানকে সেবা প্রদান করে এসেছে। নতুন বছরের শুরুতে ক্রাফ তার সক্ষমতা দ্বিগুণ বৃদ্ধি করেছে। এখন থেকে ক্রাফ আরও ব্যাপক পরিসরে কার্যক্রম পরিচালনা করবে। ক্রাফ মহাসচিব মিনহার মহসিন বলেন, সময়ের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে কীভাবে কাজ করা যায় সেই পরিকল্পনা নিয়েই আমরা তিন বছর কাজ করেছি। আমাদের বর্তমান সক্ষমতা আগের চেয়ে অনেক বেশি। আগামী দিনগুলোতে আমরা সচেতনতা সৃষ্টিমূলক কাজ হতে শুরু করে সাধারণ জনগনকে সাহায্যে আরও আগ্রাসী ভূমিকায় থাকবো।

*

*