কাল থেকে যশোরে কৃষি-প্রযুক্তি মেলা

আগামীকাল থেকে  যশোরে শুরু হতে যাচ্ছে কৃষি-প্রযুক্তি মেলা । কৃষি নির্ভর এই বাংলাদেশের কৃষক ও কৃষি উদ্যোক্তাদের মধ্যে কৃষি প্রযুক্তি, উদ্ভাবন এবং পরিবেশবান্ধব চাষাবাদের জ্ঞান ছড়িয়ে দিতে এই মেলা-প্রদর্শনী আয়োজন করা হয়েছে। এসিআই এগ্রিবিজনেস এর পৃষ্ঠপোষকতায়, যুক্তরাষ্ট্ররে আর্ন্তজাতকি উন্নয়নসংস্থা ইউএসএআইডি এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর যৌথ উদ্যোগে এই মেলা গত মার্চ মাসে খুলনা ও ঝিনাইদহে অনুাষ্ঠিত হয় তারই ধারাবাহিকতায় এবার যশোরের কালেকটোরেট চত্ত্বরে কৃষি-প্রযুক্তি মেলা অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে।

যুক্তরাষ্ট্ররে আর্ন্তজাতকি উন্নয়নসংস্থা ইউএসএআইডি এবং কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর এর যৌথ উদ্যোগে এই মেলার আয়োজন করছে ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট প্রতিষ্ঠান ক্রসওয়াক কমিউনিকেশন্স লিমিটেড। এসিআই এগ্রিবিজনেস এই মলোর প্রধান পৃষ্ঠপোষক । এসিআই এগ্রিবিজনেসের ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) ড. এফ এইচ আনসারী বলেন, “আমাদের জমির স্বল্পতা রয়েছে। তাই কৃষি জমির সর্বোত্তম ব্যবহার এবং প্রযুক্তিগত কৌশল ব্যবহার করতে হবে। এই মেলার মাধ্যমে কৃষক ও উদ্যোক্তারা কৃষি-প্রযুক্তির গুরুত্ব এবং সেগুলোর যথাযথ ব্যবহার সম্পর্কে জানতে পারবেন। সর্বোচ্চ ফলন-উৎপাদন নিশ্চিত করার জন্য এটি জরুরি।’’

বৃহস্পতিবার বিকাল ৩ টায় মেলার উদ্বোধনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হবে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন মোহাম্মদ আব্দুল আওয়াল, জেলা প্রশাসক ও জেলা ম্যাজিস্ট্রেট, যশোর; বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবে কৃষিবিদ কাজী হাবীবুর রহমান, উপ পরিচালক, কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর, যশোর এবং অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করবেন মোহাম্মদ হোসাইন শওকত, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক), যশোর। আগামী ১০, ১১ ও ১২ মে এই মেলা যশোর শহরের কালেকটোরেট চত্ত্বরে অনুষ্ঠিত হবে। মেলা প্রতিদিন সকাল ১০টায় শুরু হবে। মেলায় মোট ১৫ টির ও বেশি স্টল থাকছে এবং মেলা উপভোগ করতে কৃষাণ-কৃষাণির পাশাপাশি বিভিন্ন স্তরের লোকজনের সমাগম আশা করা যাচ্ছে। মেলায় স্থানীয় শিল্পীদের অংশগ্রহণে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান এবং র‌্যাফেল ড্র অনুষ্ঠিত হবে।

দেশের কৃষি শিল্প দ্রুত বেড়ে উঠলেও এ খাতের সাথে সংশ্লষ্টিরা বৈশি^ক প্রযুক্তির উন্নতির সাথে তাল মিলিয়ে এগিয়ে যাবার ক্ষত্রেে বাধার সম্মুখীন হচ্ছ।ে টিস্যু কালচার থেকে শুরু করে নার্সারি পরিচর্যা, জমি তৈরি, চাষাবাদ, ফসল তোলার পর সংরক্ষণ ও পরিবহন পর্যন্ত কাজগুলো সম্পন্ন করতে কৃষির সাথে জড়িত সকলেই দ্রুতবর্ধনশীল বাজারের সাথে সমানতালে চলতে লড়ে যাচ্ছে। এই মেলার মাধ্যমে দর্শনার্থীরা প্রয়োজনীয় প্রযুক্তি ও সেবা সম্পর্কে জানতে পারবে এবং সেবা প্রদানকারীদরে সাথে সরাসরি যোগাযোগ করতে পারবে। কৃষি যন্ত্রপাতি, সার ও বীজের সর্বোত্তম ব্যবহারসহ আরও নানা বিষয়েও তারা জানতে পারবে।

*

*