কাজী আইটির নিয়োগপত্র ২০ তরুনের হাতে

KITC_02(1)

রাজধানীর আগারগাঁওয়ের বঙ্গবন্ধু আন্তজার্তিক সম্মেলন কেন্দ্র (বিআইসিসি) এর হল অব ফেমে  সারা দেশ থেকে  আগত ৬ হাজার চাকরী প্রার্থীর মিলন মেলার মধ্য দিয়ে শেষ হলো কাজী আইটি ক্যারিয়ার বুটক্যাম্প। আয়োজক ছিল দেশের শীর্ষস্থানীয় আইটি সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান কাজী আইটি সেন্টার লিমিটেড।  সহযোগিতায় ছিল তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) বিভাগের লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট এন্ড গর্ভন্যান্স (এলআইসিটি) প্রকল্প।

দিনব্যাপি কাজী আইটি ক্যারিয়ার বুটক্যাম্পে দুই ভাগে সকাল ৯টা  থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত ৬ হাজার চাকরী প্রার্থীকে বিভিন্ন বিষয়ের উপর প্রশিক্ষণ প্রদানের মাধ্যমে সরাসরি ২০ তরুনকে কাজী আইটিতে চাকরির সুযোগ দেওয়া হয়। সারাদেশ থেকে প্রায় ১৫ হাজার প্রতিযোগি এই আয়োজনে অংশগ্রহনের জন্য রেজিষ্ট্রশন করে। কয়েক ধাপে বাছাই প্রক্রিয়া শেষে ৬ হাজার প্রতিযোগিকে কাজী আইটি ক্যারিয়ার বুটক্যাম্পে আমন্ত্রন জানানো হয়েছিল।

আয়োজনের সমাপনি অনুষ্ঠানে  তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) প্রতিমন্ত্রী জুনায়েদ আহমেদ পলক ক্যারিয়ার বুট ক্যাম্প থেকে সরাসরি নিয়োগ প্রাপ্ত ২০ জনের হাতে কাজী আইটির পক্ষ থেকে নিয়োগপত্র তুলে দেন। এ সময় তিনি বলেন, কাজী আইটি ও আইসিটি বিভাগের লিভারেজিং আইসিটি ফর গ্রোথ, এমপ্লয়মেন্ট এন্ড গর্ভন্যান্স (এলআইসিটি) প্রকল্পের সমন্বয়ে আয়োজিত এই ক্যারিয়ার বুট ক্যাম্পে আমি তরুণদের মাঝে নতুন উদ্দীপণা অনুভব করছি।  তিনি বলেন, আজকের বুট ক্যাম্পের প্রশিক্ষনের বিষয়টি আমাকে মুগ্ধ করেছে। আমার বিশ্বাস, আজকের প্রশিক্ষন একজনকে সারাজীবনের জন্য সমৃদ্ধ করবে। কাজী আইটিতে কাজ করার সুযোগ পাক বা না পাক, এ প্রশিক্ষণ তরুনদের অনেক দূর যেতে সাহায্য করবে। তিনি আরও বলেন, আগামী ২০২১ সালের মধ্যে আইটি-আইটিইএস খাতে রপ্তানি আয় ৫ বিলিয়ন ডলারে উন্নীত করা এবং ২০ লক্ষ্য তথ্যপ্রযুক্তি পেশাজীবি তৈরির যে লক্ষ্যমাত্রা আমরা ঠিক করেছি, আমি আশা করি এই ক্যারিয়ার বুট ক্যাম্প সেই লক্ষ্য পূরনে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করবে।

দিনব্যাপী ক্যারিয়ার বুট ক্যাম্পে ফিউচার লিডারের লিড কনসালটেন্ট ও সিইও কাজী এম আহমেদ ‘বিল্ডিং কনফিডেন্স এন্ড পজিটিভিটি ফর সাকসেস অ্যাট ওয়ার্কপ্লেস’ বিষয়ে, মোটিভেশনাল স্পিকার জি. সামদানি ডন ‘হোয়াই কোলাভেরশন মেটারস’ বিষয়ে, রবি-টেনমিনিট স্কুলের উদ্যোক্তা আয়মান সাদিক ‘প্রফেশনাল গ্রুমিং ফর ড্রিম ক্যারিয়ার’ বিষয়ে, হিউম্যান ক্যাপাসিটি ডেভেলপমেন্ট ও হসপিটালিটি ম্যনেজমেন্ট বিশেষজ্ঞ জিশু তরফদার ‘ক্রিয়েটিভ প্রবলেম সলভিং’ বিষয়ে, বাংলাদেশ অর্গানাইজেশন ফর লার্নিং এন্ড ডেভেলপমেন্টের প্রতিষ্ঠাতা রুশদিনা খান ‘ইফেক্টিভ কমিউনিকেশন অ্যাট ওয়ার্ক’ বিষয়ে এবং সোসাইটি ফর লিডারশীপ স্কিলস ডেভেলপমেন্ট এর সিইও মঈনউদ্দীন চৌধুরী ‘সেভেন সিক্রেটস টু লার্নিং ইংলিশ’ বিষয়ে প্রশিক্ষণ প্রদান করে। এছাড়াও কাজী আইটির প্রতিষ্ঠাতা ও সিইও মাইক কাজী এবং কাজী আইটি’র চীফ অপারেটিং অফিসার জন রিডেল অনুষ্ঠানে রিসোর্স পার্সন হিসাবে ছিলেন। দুইটি সেশনে বক্তরা চাকরি প্রার্থীদের চাকরি পাওয়ার ক্ষেত্রে যেসব বিষয়ের উপর মনোযোগ দিতে হবে তার উপর আলোচনা করেন।

অনুষ্ঠানে আরো উপস্থিত ছিলেন বাক্য এর সভাপতি ওয়াহিদ শরীফ, বাংলাদেশ ওপেন সোর্স নেটওয়ার্ক (বিডিওএসএন) এর সাধারন সম্পাদক মুনির হাসান ।

*

*