এমআরপি নীতি বাস্তবায়নে যৌথভাবে কাজ করবে বিসিএস এবং ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর

M R P

বাংলাদেশ কম্পিউটার সমিতি (বিসিএস) চলতি মাসের প্রথম থেকে এমআরপি নীতি বাস্তবায়নের উদ্যোগ নিয়েছে। ৭ জুলাই থেকে চূড়ান্তভাবে বাস্তবায়ন হবে এমআরপি (সর্বোচ্চ খুচরা মূল্য) নীতি। এই নীতি বাস্তবায়নে বিসিএস কে পূর্ণ সহযোগিতা দেবার আশ্বাস দেন জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম লস্কর।

সোমবার সকালে রাজধানীর কাওরান বাজারে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষন অধিদপ্তরের কার্যালয়ে দপ্তরটির মহাপরিচালক ও উর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে বিসিএস কার্যকরী কমিটির সদস্য এবং কম্পিউটার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে এক মতবিনিময় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

মতবিনিময় সভায় মহাপরিচালক মো. শফিকুল ইসলাম লস্কর বলেন, এই প্রথম কোন একটি সংগঠন নিজেদের উদ্যোগে আমাদের সঙ্গে মত বিনিময় করতে এসেছে। এজন্য আমরা বিসিএস কে সাধুবাদ জানাই। এমআরপি নীতি এবং ওয়ারেন্টি পলিসি বাস্তবায়ন করতে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের ক্ষমতা অনুযায়ী সকল ধরণের সহযোগিতা বিসিএস কে করা হবে। ভোক্তাদের অধিকার বাস্তবায়নে ইতিবাচক সব পদক্ষেপকেই স্বাগত জানায় জাতীয় এই অধিদপ্তরটি। জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর এবং বিসিএস যৌথভাবে ব্যবসায়ী এবং ভোক্তাদের অধিকার বাস্তবায়নে কাজ করবে।

তিনি আরো বলেন, ব্যবসায়ীরা আমাদের প্রতিপক্ষ নন। আমরা চাই, ব্যবসায়ীদের সঙ্গে সঙ্গে ভোক্তাদেরও স্বার্থ সংরক্ষিত হোক। তথ্যপ্রযুক্তি বিষয়ে আমাদের কর্মকর্তাদের অনেক কিছু জানার রয়েছে। সঠিক সেবা প্রদান করার জন্য তথ্যপ্রযুক্তির পণ্যগুলো সম্পর্কে  শেখারও রয়েছে। আমরা আশা করবো, তথ্যপ্রযুক্তির জ্ঞান এবং পণ্য সম্পর্কে আমাদের কর্মকর্তাদের সঠিক এবং সম্যক জ্ঞান দিতে প্রশিক্ষণ, কর্মশালা এবং বিশেষজ্ঞ মতামত দিয়ে বিসিএসও পাশে থাকবে।

বিসিএস সভাপতি ইঞ্জি. সুব্রত সরকার বলেন, ৭ জুলাই পর্যন্ত আমরা কম্পিউটার এবং এ সম্পর্কিত সকল প্রযুক্তি পণ্যে এমআরপি লেভেল যুক্ত করার সময় বেঁধে দিয়েছি। ওয়ারেন্টি পলিসি নিয়েও আমাদের প্রস্তুতি সম্পন্ন। এখন শুধু বাস্তবায়নের পালা। এসময় ভোক্তা অধিকার অধিদপ্তরকে পাশে পেয়ে আমরা এই অধিদপ্তরের মহাপরিচালকসহ সকল কর্মকর্তাদের প্রতি কৃতজ্ঞ। কম্পিউটার ব্যবসায়ী এবং ভোক্তাদের পূর্ণ অধিকার বাস্তবায়িত হোক এই নীতিতেই আমরা বিশ্বাসী।

বিসিএস মহাসচিব মোশারফ হোসেন সুমন বলেন, ১৯৮৭ সাল থেকে বিসিএস দেশের তথ্যপ্রযুক্তি নিয়ে কাজ করে আসছে। সারাদেশে তথ্যপ্রযুক্তিতে এত বড় সংগঠন একমাত্র বিসিএস। আমরা বিশ্বাস করি, বিসিএস এর সদস্যদের মাধ্যমে সারাদেশে কম্পিউটার মার্কেটগুলো ব্যবসায়ী এবং গ্রাহকদের জন্য একটি আদর্শ মডেল হবে যেখানে উভয় পক্ষের স্বার্থ পরিপূর্ণভাবে বাস্তবায়িত হবে। আমরা শুরু করেছি এবং আশা করছি এই ব্যবসায় শিগগিরই ইতিবাচক পরিবর্তন পরিলক্ষিত হবে।

কম্পিউটার, কম্পিউটার যন্ত্রাংশ এবং কম্পিউটারের সঙ্গে সম্পর্কিত সব পণ্যে এমআরপি প্রদর্শন করা, রিফাবলিশড বা ফেইক পণ্য বিক্রি বন্ধকরণ এবং ওয়ারেন্টি পলিসি বাস্তবায়ন করতে জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর নিয়মিত নজরদারীর পাশাপাশি কম্পিউটার মার্কেটগুলোতে অভিযান চালাবেন বলে আশ্বস্ত করেন অধিদপ্তরের মহাপরিচালক  মো. শফিকুল ইসলাম লস্কর।

*

*