এন্ট্রি লেভেলের স্মার্টফোন আইটেল এস১৫ প্রো

itel_S15 Pro-1

সাশ্রয়ী বাজেটে ভালো ফোন এবং ভালো ফিচার অফার করায় আইটেল এন্ট্রি লেভেলের ক্রেতাদের কাছে খুব জনপ্রিয় একটি নাম।

তারই ধারাবাহিকতায়  আইটেল নিয়ে এলো নতুন ফোন আইটেল এস ১৫ প্রো। এটি আইটেলের প্রথম ডট নচ ডিসপ্লে ফোন আর সাথে আছে দারুন সব ফিচার।

২.৫ ডি কার্ভ এর ৬.১ “এইচডি + আইপিএস ওয়াটারড্রপ ফুলস্ক্রিন ডিসপ্লে ব্যবহারকারীকে দিবে নতুন এক অভিজ্ঞতা ,বড় ডিসপ্লে হওয়ার পরেও এটি তুলনামূলকভাবে যথেষ্ট স্লিম এবং ব্যবহার উপযোগী।

আইটেল এস ১৫ প্রো-এর সেলফি ক্যামেরা হচ্ছে ১৬ মেগাপিক্সেল। এর ৪ ইন ১ বিগ পিক্সেল প্রযুক্তি আপনার ছবি কে করবে আরও দুর্দান্ত। এর আরও কিছু আকর্ষণীয় দিক হ’ল এতে আছে এআই বিউটি মোড ৩.০ যা আপনার চেহারার আকর্ষণীয় দিক আরও ফুটিয়ে তুলবে। এর নাইট মোড অন্ধকারেও আপনাকে দিবে দারুন ছবি। ক্যামেরার সাথে নতুন এ আই স্টিকার ফিচারও যোগ করেছে আইটেল।

মোবাইলটির পিছনে আছে ট্রিপল এ আই ক্যামেরা। ৮ মেগাপিক্সেল ট্রিপল রিয়ার ক্যামেরা সাথে আছে ফ্ল্যাশলাইট,আর এর বিশেষ ‘প্রো মোড’ থাকার কারনে ছবি তোলার ক্ষেত্রে যোগ হয় নতুন মাত্রা। সিকিউরিটি হিসেবে পিছনে ফিঙ্গারপ্রিন্ট সেন্সর রয়েছে যা ফোনটি মাত্র 0.2 সেকেন্ডের মধ্যে আনলক করে। অতিরিক্ত সুরক্ষার জন্য, এতে আরও আছে ফেস আনলক সুবিধা। আইটেল এস ১৫ প্রো তে আছে লেটেস্ট অ্যানন্ড্রেয়েড ৯ পাই, এবং ২ জিবি র‌্যাম + ৩২ জিবি রম, যা ১২৮ গিগাবাইট পর্যন্ত এক্সটেন্ড করা যায়।

পারফরম্যান্স নিয়ে চিন্তা মুক্ত রাখতে ফোনটিতে ব্যবহার করা হয়েছে ১.৬ গিগাহার্জের অক্টাকোর প্রসেসর এটা মোটামুটি সব ধরনের ইউজার দের খুশি করতে পারবে। এছাড়া এতে রয়েছে ৩০০০

মিলিয়াম্পিার ব্যাটারি যা হেভি ইউসেজ এও দিবে ভাল ব্যাকআপ। অন্যান্য আপগ্রেডেড বৈশিষ্ট্যগুলির মধ্যে রয়েছে ৪ জি ইন্টারনেট সংযোগ এবং একটি এআই (কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা) পাওয়ার মাস্টার যা স্বয়ংক্রিয়ভাবে স্মার্টফোনে শক্তি সংরক্ষণ করে।

ওভারঅল লুক এর ব্যাপারে অবশ্যই বলতে হবে এস ১৫ প্রো একটি প্রিমিয়াম লুকিং গ্রেডিএন্ট পারপেল রঙের সুন্দর ফোন। এন্ট্রি লেভেল এর স্মার্টফোনে এই দারুন সব ফিচার দিয়ে ইতিমধ্যে বাজারে সাড়া ফেলেছে আইটেল এস ১৫ প্রো। ফোনটির অফিসিয়াল দাম ধরা হয়েছে ৭,৮৯০ টাকা।

*

*