এডিআইপিইসি-তে তেল-গ্যাসে প্রযুক্তিগত সল্যুশন প্রদর্শন করল হুয়াওয়ে

Huawei Demonstrates Safe and Efficient Oil and Gas ICT Solutions at ADIPEC (1)

হুয়াওয়ে আবু ধাবিতে গ্লোবাল এনার্জি সামিট আয়োজন করে যার মূল বিষয়বস্তু ছিল -আধুনিক তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি পরিচালনার মাধ্যমে তেল এবং গ্যাস খাতের উচ্চ পর্যায়ের নিরাপত্তা ও দক্ষতা নিশ্চিত করা। উক্ত সামিটটি তেল এবং গ্যাস খাত থেকে আগত প্রায় ২০০ জনেরও বেশি ক্রেতা, অংশীদার, এবং উর্ধ্বতন বিশেষজ্ঞদের বিশেষভাবে আকৃষ্ট করে। কিভাবে খরচ কমানো যায়, নিরাপত্তা নিশ্চিত করা যায়, টেকসই উন্নয়ন অর্জন করা যায়, এবং তেল এবং গ্যাস ইন্ডাস্ট্রিকে স্মার্ট অপারেশনসে রূপান্তর করা যায় ইত্যাদি বিষয় নিয়ে তারা আলোচনা করেন।

২০তম আবু ধাবি আন্তর্জাতিক পেট্রোলিয়াম এবং কনফারেন্সে (এডিআইপিইসি), হুয়াওয়ের সাথে স্লামবার্জেই, হানিওয়েল, এসএপি, এবং রিচফিট উদ্ভাবনী তথ্য ও প্রযুক্তিগত সমাধানের এক সিরিজ প্রদর্শন করে যা সম্পূর্ণ ইন্ডাষ্ট্রি চেইনের গবেষণা, উৎপাদন, সংরক্ষণ, এবং পরিবহন থেকে বন্টন পর্যন্ত সবকিছুই সম্পন্ন করে। তেল-গ্যাস প্রতিষ্ঠান এবং বিনিয়োগকারীদের জন্য খরচ কমানো এবং নিরাপদ অপারেশন নিশ্চিত করার ক্ষেত্রে সর্বাধুনিক তথ্য প্রযুক্তি ও ব্যবস্থাপনা প্রক্রিয়া ব্যবহার করা জরুরি হয়ে পড়েছে। এই পটভূমির প্রতিকূলতা থেকে তেল-গ্যাস খাতকে ডিজিটালে রূপান্তর করতে উদ্ভাবনী তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তির ভূমিকা অনেক।

হুয়াওয়ে এন্টারপ্রাইজ বিজি-এর এনার্জি বিভাগের প্রেসিডেন্ট জেরি জি প্রধান বক্তব্য রাখেন। তিনি বলেন, সামিটে উপস্থিত সকল অতিথিদের দেখে আমি সম্মানিত বোধ করছি। তেল-গ্যাস সেবা বিষয়ে গভীর উপলদ্ধির উপর ভিত্তি করে হুয়াওয়ে কর্পোরেট খাতের আরও অংশীদারদের সাথে নিয়ে উচ্চ কর্মদক্ষতা কম্পিউটিং (এইচপিসি), তেল-গ্যাস আইওটি, ডিজিটাল পাইপলাইন, এবং এন্টারপ্রাইজ অপারেশনস ব্যবস্থাপনার জন্য একটি উদ্ভাবনী তথ্য ও যোগাযোগ সমাধান নিয়ে আসছে। এই সমাধানগুলো তেল-গ্যাস খাতের ডিজিটাল রূপান্তর, নিয়মিত খরচ কমিয়ে দক্ষতা বৃদ্ধির উদ্যোগ বাস্তবায়ন এবং দ্রুতকরণে সাহায্য করবে যা নিরাপদ উৎপাদন এবং অপারেশনস ব্যবস্থাপনা বাড়াবে।

পৃথিবীজুড়ে ৪৫টি দেশ এবং অঞ্চলে হুয়াওয়ের তেল-গ্যাস প্রযুক্তি ব্যবহিত হচ্ছে, এবং বিশ্বব্যাপী ৭০ শতাংশ সেরা ২০টি প্রতিষ্ঠানকে সেবা দিয়ে যাচ্ছে। এডিআইপিইসি-তে প্রদর্শিত হুয়াওয়ের এই সমাধানের আয়তায় রয়েছে গবেষণা এবং রিজারভয়ের এইচপিসি, ভূকম্পীয় ডাটা সংরক্ষণ, গবেষণা এবং উৎপাদন ক্লাউড, ডিজিটাল তেলক্ষেত্র উৎপাদন, ডিজিটাল তেল এবং গ্যাস পাইপলাইন, ডিজিটাল শোধনাগার, এবং ক্লাউড ডাটা সেন্টার। যেমন, হুয়াওয়ের উদ্ভাবনী একত্রিত এইচপিসি সমাধান তেল-গ্যাস প্রতিষ্ঠানগুলোকে আরো দক্ষ এবং সঠিক অপটিমাইজেশন দ্রুততর করতে এবং তেল-গ্যাস অঞ্চল সনাক্তকরণে সাহায্য করে তেল-গ্যাস প্রতিষ্ঠানগুলোকে উৎপাদনশীলতা বাড়াতে সহায়তা করছে।

ডিজিটাল তেলক্ষেত্র, এবং ম্যাককিন্সে, এশিয়া গ্যাস পাইপলাইন (এজিপি) এবং কামার এনার্জি সংক্রান্ত বিশেষজ্ঞ, ড. হাতেম নাসের তার বক্তব্যে জানান, ডিজিটাল রূপান্তর কিভাবে তেল-গ্যাস খাতে বৈপ্লবিক পরিবর্তন পরিচালনা করতে পারে। তেল-গ্যাস সংরক্ষণ ও পরিবহনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জ হচ্ছে তেল-গ্যাস পাইপলাইন অপারেশনের পাইপলাইনের নিরাপত্তা নিশ্চিত করা। তেল-গ্যাস প্রতিষ্ঠানগুলো দূরবর্তী পাইপলাইন রিমোট কন্ট্রোল এবং দক্ষ অপারেশন বাস্তবায়নের নতুন পদ্ধতি খুঁজছে। এখন পর্যন্ত ফরচুন গ্লোবাল ৫০০-এর ১৯৭টি প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়েকে ডিজিটাল রূপান্তরের জন্য অংশীদার হিসেবে বেছে নিয়েছেন যার মধ্যে ৪৫টি প্রতিষ্ঠান শীর্ষ ১০০টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে অবস্থান করে।

*

*