ই-কমার্স লজিস্টিক প্রতিষ্ঠান পেপারফ্লাই

paperfly

নিজস্ব কর্মী ও বাহনের মাধ্যমে দেশের ৬৪ জেলায় ডোর-টু-ডোর ডেলিভারি সেবা ও ক্যাশ অন ডেলিভারি সেবা দিচ্ছে দেশের দ্রুত বর্ধনশীল ই-কমার্স লজিস্টিক প্রতিষ্ঠান পেপারফ্লাই। পেপারফ্লাইয়ের এ উদ্যোগ দেশের লজিস্টিক খাতের জন্য খুবই সময়োপযোগী ও কার্যকরী একটি উদ্যোগ। এর মাধ্যমে প্রতিষ্ঠানটি ই-কমার্স খাতে ভবিষ্যতের সম্ভাবনাময় বাজার, দেশের শহর ও প্রত্যন্ত অঞ্চলে ই-কমার্স গ্রাহকদের সক্রিয় করার ক্ষেত্রে নিজেদের অঙ্গীকারের বাস্তবায়ন ঘটিয়েছে।

বর্তমানে ইন্টারনেটের যুগে সেবাগ্রহণের ক্ষেত্রে ভোক্তাদের নতুন ধরনের প্রয়োজন, প্রত্যাশা ও চাহিদা তৈরি হয়েছে। অফলাইন থেকে অনলাইনে উত্তরণের সময়ে তাদের আচরণেও পরিবর্তন আসছে। সেবাদান খাতে অনলাইন সবার জন্য বিস্তৃত ধরনের সুযোগ নিয়ে আসছে এবং এর ফলে, দেশে বিভিন্ন ধরনের ডিজিটাল সেবারও প্রচলন ঘটছে। বাংলাদেশে ৭০ মিলিয়নের বেশি মানুষ ইন্টারনেট ব্যবহার করে। তাই স্বাভাবিকভাবেই, ই-কমার্সের ক্ষেত্রেও এখানে অনেক গ্রাহক রয়েছেন। এর মধ্যে যদি ১ শতাংশ গ্রাহকও যদি প্রতিদিন ই-কমার্স খাতে সক্রিয় হয় সেক্ষেত্রেও, এ খাতের অসীম সম্ভাবনা রয়েছে।

বাংলাদেশে ই-কমার্স খাতের এ বিশাল সম্ভাবনা অনুধাবন করেই পেপারফ্লাই দুই বছর আগে নিজেদের যাত্রা শুরু করে। প্রথমদিকে, ঢাকা শহরে নিজেদের সেবাদান কার্যক্রম নিয়ে যাত্রা শুরু করে প্রতিষ্ঠানটি। ধীরে ধীরে, প্রতিষ্ঠানটি চট্টগ্রাম ও সিলেটেও নিজেদের সেবাদান কার্যক্রম বিস্তৃত করে। বর্তমানে, গ্রাহক চাহিদার ওপর ভিত্তি করে প্রতিষ্ঠানটি এ বছরের জানুয়ারি মাস থেকে ৬৪ জেলায় নিজেদের কার্যক্রমের সম্প্রসারণ ঘটিয়েছে।

বাংলাদেশে পেপারফ্লাই একমাত্র ই-কমার্স লজিস্টিক প্রতিষ্ঠান যাদের দেশের ৬৪ জেলায় ‘ডোর-টু-ডোর’ ডেলিভারি সেবা এবং এর সাথে সিওডি সেবা ও এসব সেবার সঠিক ব্যবস্থাপনায় নিজস্ব কর্মী ও বাহন রয়েছে। এখন প্রতিদিন গড়ে পেপারফ্লাই ৫০টিরও বেশি জেলায় প্যাকেজ সরবরাহ করে।

এ নিয়ে পেপারফ্লাই লিমিটেডের প্রধান বিপণন কর্মকর্তা রাহাত আহমেদ বলেন, ‘সমগ্র বাংলাদেশে সেবাদান বিশেষ করে, প্রত্যন্ত অঞ্চলে গ্রাহকদের ই-কমার্স সেবাগ্রহণে সক্রিয় করার ওপর জোর দিয়ে দেশের শক্তিশালী ডেলিভারি ইকোসিস্টেম বিনির্মাণে অগ্রগামী ভূমিকা পালন করছে পেপারফ্লাই। এখনই সময় এ সেবার বিস্তৃত ঘটানোর এবং এ সেবাখাতের বেশিরভাগই আসবে দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে। আমরা আমাদের গ্রাহকদের নিয়ে গর্বিত। তারা একদম শুরু থেকেই সবসময় সহায়তা দিয়ে আসছেন এবং আমরা একসাথে অনলাইনে কেনাকাটায় সর্বোত্তম অভিজ্ঞতা নিশ্চিতের মাধ্যমে এ খাতের সমৃদ্ধিতে ধারাবাহিকভাবে প্রচেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছি। প্রাতিষ্ঠানিকভাবে আমরা দেশের ই-কমার্স লজিস্টিক ভ্যালু চেইনে সংযুক্ত হতে চাই। এ খাতে উন্নতির যথেষ্ট সুযোগ ও সম্ভাবনা রয়েছে এবং আমরা সবক্ষেত্রেই উন্নয়নে আমাদের সামগ্রিক প্রচেষ্টা অব্যাহত রাখবো। আমাদের লক্ষ্য, এ ইকোসিস্টেমের সবক্ষেত্রে সম্পৃক্ততার মাধ্যমে সবচেয়ে বিশ্বস্ত লজিস্টিক

ব্র্যান্ড তৈরি করা। যাতে করে, আমাদের গ্রাহকরা তাদের প্রত্যাশা সম্পর্কে জানতে পারবে এবং ই-কমার্সের ক্ষেত্রে তাদের আস্থার জায়গা খুঁজে পাবেন।’

বাংলাদেশে আনুমানিক প্রায় ১ হাজার ই-কমার্স ও ১০ হাজার এফ-কমার্স অনলাইন ব্যবসা প্ল্যাটফর্ম রয়েছে এবং এর সংখ্যা প্রতিনিয়তই বৃদ্ধি পাচ্ছে। পেপারফ্লাই বর্তমানে নিন্মোক্ত সেবাগুলো দিচ্ছে: ৬৪ জেলায় ডেলিভারি সেবা, ৬৪ জেলায় ক্যাশ অন ডেলিভারি সেবা, সর্বোত্তম পেমেন্ট সেবা (সপ্তাহে দু’বার ব্যাংক ট্রান্সফার), পণ্য ফেরত ব্যবস্থাপনা (সপ্তাহে দু’বার রিটার্ন), ওয়্যারহাউজিং, ফুলফিলমেন্ট সেবা: কিউসি ও প্যাকেজিং, ইলেকট্রনিক রশিদ ও পেমেন্ট ট্রান্সফার, নিবেদিত রিলেশনশিপ ম্যানেজার, ট্র্যাকার- পেপারফ্লাই উইংস এবং ঢাকার বাইরে সবগুলো বিভাগীয় শহরের (চট্টগ্রাম, খুলনা, সিলেট, ময়মনসিংহ, রাজশাহী, বরিশাল ও রংপুর) প্রধান কার্যালয়ে পিক-আপ সেবা।

ডেলিভারি সেবা:

আড়ং, আজকেল ডিল, বাগডুম, কিকশা, ক্যাটস আই, স্যামসাং, রোহটো, ম্যারিকো, বাংলাশপারস, মোন্নো সিরামিকস, দর্পণ, এটুআই-একশপ, ড্যান কেক ও প্লাস ৪০০ ফেসবুক মার্চেন্টস। ওয়েবসাইট: www.paperfly.com.bd ফেসবুক: https://www.facebook.com/paperfly123/?ref=bookmarks

*

*