আস্থা সমাজ উন্নয়ন সংস্থার উদ্যোগে রিকশা উপহার পেলো প্রতিবন্ধী রুবেল

rikshaw

প্রতিবন্ধী রুবেল রিকশা চালিয়ে তার দুই সন্তান ও স্ত্রীর ভরণপোষণ জোগাড় করত। হঠাৎ করেই গত ২৮ ডিসেম্বর রাজধানীর গেন্ডারিয়ার লোহারপুলের পূর্ব পাশে আস্থা সমাজ উন্নয়ন সংস্থার কার্যালয়ের সামনে থেকে তার রিকশা হারিয়ে যায়।

রুবেল অসহায় হয়ে পড়ে সেখানে বসে কান্নাকাটি করতে থাকে। শাহাদত হোসেন ঘটনাটি দেখে তার নিজের বাসার সিসি ক্যামেরায় দেখে বুঝতে পারে বিষয়টি তাদের বাসার সামনে থেকে একটি সংঘবদ্ধচক্র চুরি করে নিয়েছে।

শাহাদত হোসেন রুবেলের রিকশাটি উদ্ধার করতে পারবে না কিন্তু অসহায় রুবেলকে দেখে তার মনে কিছু করার জন্য মনে হয় এবং প্রতিশ্রুতি বদ্ধ হয় সেই প্রতিজ্ঞা থেকেই সিদ্ধান্ত নেয় যেভাবেই হোক রুবেলকে একটা রিকশা কিনে দেবে। যাতে করে রুবেল ছোট ছোট দুটি সন্তানও স্ত্রী বেঁচে থাকতে পারে।

শাহাদাতের সেই মহৎ আকাঙ্ক্ষার থেকেই তার প্রবাসীর দুই বন্ধু মোনালিসা ও সিফাত জামাল জিসানের সাথে বিষয়টি নিয়ে কথা বলে। প্রবাসী বন্ধুরা তাকে আশ্বস্ত করে তারা সহযোগিতা করবে।

এরই ধারাবাহিকতায় শাহাদতের বড় ভাই আস্থা সমাজ উন্নয়ন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম সাথে যোগাযোগ করে এবং জাহাঙ্গীর আলম ও আবুল হোসেনের সহযোগিতা তারা রুবেলের জন্য একটি ব্যাটারি চালিত রিকশা কিনে। এলাকার অন্যান্য সংগঠন মিলে অনুষ্ঠানের আয়োজন করে রুবেলের কাছে রিকশা হস্তান্তর করা হয়।

আস্থা সমাজ উন্নয়ন সংস্থার আয়োজনে পুরান ঢাকার কচি-কাঁচার মেলার মাঠে অসহায় প্রতিবন্ধী রুবেলের রুবেলের পাশে আমরা সুহৃদ এই স্লোগানকে সামনে রেখে একটি আলোচনা সভার আয়োজন করে।

আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন আস্থা সমাজ উন্নয়ন সংস্থার সভাপতি রাবেয়া বশির রুমি। অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন কচি-কাঁচার মেলার পরিচালক বীর মুক্তিযোদ্ধা শফিউর রহমান রহমান দুল।

এ সময় আরো উপস্থিত ছিলেন, শহর সমাজসেবা ১ এর সমন্বয় পরিষদের সভাপতি জাকির হোসেন, জাতীয় কন্যা শিশু অ্যাডভোকেসি ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি অ্যাডভোকেট রাশেদা আক্তার শেলী, সুজনের সাবেক বিভাগীয় সমন্বয়কারী মুশফিকুল ইসলাম শিমুল।

আরো উপস্থিত ছিলেন, শাহাদাত হোসেন ও গেন্ডারিয়া গ্রুপের অ্যাডমিন হিমেল ও রুম্পা এবং স্বপ্ন কারিগরের অ্যাডমিন আতিকুর রহমান ওরনি, রজনীগন্ধা ব্যাচ ৯৫ এর অ্যাডমিন নুরুল আমিন খান তপু এবং আস্থা সমাজ উন্নয়ন সংস্থার সাধারণ সম্পাদক জাহাঙ্গীর আলম।

আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন মানুষ হিসাবে একজন মানুষের পাশে দাঁড়ানো আমাদের নৈতিক কর্তব্য তারা বলেন শাহাদত সেই মানবিক দিক থেকেই পালন করেছেন। বক্তারা শাহাদতের বন্ধু মোনালিসা ও সিফাত জামাল ধন্যবাদ জানায় তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন পরিবারের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন।

*

*