আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্পে সফলতার গল্প শুনতে শিক্ষার্থীদের ঢল

basis soft expo

আজ বেসিস সফটএক্সপোর ৩য় দিনে দুই হাজারেরও বেশি শিক্ষার্থীদের নিয়ে অনুষ্ঠিত হয় আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্প।

বেসিস স্টুডেন্টস ফোরামের যৌথ উদ্যোগে অনুষ্ঠিত আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যাম্পকে তিনটি সেশনে ভাগ করা হয়। দুটি সেশনে সফল ব্যক্তিত্বরা ইন্ডাস্ট্রি এবং একাডেমিয়ার মধ্যে সংযোগ সৃষ্টির লক্ষ্যে শিক্ষার্থীদের সাথে খোলামেলা কথা বলেন। সেশন দুটি সভাপতিত্ব করেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর ও বেসিস পরিচালক দিদারুল আলম।

অনুষ্ঠানের শুরুতে জাতীয় সঙ্গীতের পর স্বাগত বক্তব্য রাখেন বেসিস পরিচালক ও বেসিস স্টুডেন্টস ফোরামের আহ্ববায়ক  দিদারুল আলম এবং পরিচিতি বক্তব্য রাখেন বেসিস সফটএক্সপো ২০২০ এর আহ্ববায়ক মুশফিকুর রহমান।

প্রথম সেশনে বক্তব্য রাখেন, অগমেডিক্সের কান্ট্রি ডিরেক্টর রাশেদ মুজিব নোমান, রবি আজিয়াটা লিমিটেডের প্রধান কর্পোরেট ও নিয়ন্ত্রক কর্মকর্তা মোহাম্মদ শাহেদুল আলম, গ্রামীণফোন লিমিটেডের চিফ বিজনেস অফিসার- সিবিও মাহমুদ হোসেন, ব্রেনস্টেশন ২৩ এর সিওও এম জে ফেরদৌস।

দ্বিতীয় সেশনে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশ ব্র্যান্ড ফোরামের প্রতিষ্ঠাতা জনাব শরিফুল ইসলাম, মাইটি বাইটের নির্বাহী পরিচালক নওশের রহমান, আইসিটি বিভাগের দক্ষতা উন্নয়ন প্রকল্পের প্রকল্প পরিচালক মোঃ নুরুজ্জামান, নগদ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর তানভীর এ মিশুক এবং ডিওয়াইডিএফের নির্বাহী কাউন্সিলের নির্বাহী পরিচালক অমিয় প্রাপণ চক্রবর্তী।

অনুষ্ঠানে বেসিস সফটএক্সপোর সার্বিক আয়োজন এবং সফটএক্সপোতে আইসিটি ক্যারিয়ার ক্যা¤প উপলক্ষ্যে আয়োজিত ক্যাম্পাস অ্যাক্টিভিশনের বিভিন্ন দিক তুলে ধরেন বেসিসের জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি এবং বেসিস সফটএক্সপো ২০২০ এর আহ্ববায়ক ফারহানা এ রহমান। অনুষ্ঠানে একক সেশনে বক্তব্য রাখেন ফিউচার সিটি সাবমিটের সিইও সাদমান সাদাব।

মেগা এই ইভেন্টে বক্তারা বলেন, তথ্য ও প্রযুক্তি এমন একটি বিষয় যেটাতে দক্ষতা অর্জন করলে শুধু বাংলাদেশেই নয় পৃথিবীর যেকোন দেশেই এটা কাজে লাগবে এবং চাকরি পাওয়া সহজ হবে। আমরা চতুর্থ শিল্প বিপ্লবের যুগে প্রবেশ করেছি। এই শিল্প বিপ্লবের সাথে আইওটি, রোবোটিক্স, বøক চেইনও এসে গেছে। আগামীতে এই সেক্টরে অনেক কর্মসংস্থানের সুযোগ রয়েছে। ভবিষ্যতে চাকরির নিশ্চয়তা পেতে হলে তরুণ তরুণীদের এখন থেকে যে কোন একটি বিষয় ভাল মত দক্ষ হতে হবে। ভালো চাকরির জন্য মানসম্মত ইংরেজি, যোগাযোগ স্থাপনে দক্ষতা বৃদ্ধিসহ সফটস্কিলে নিজেদের পারদর্শী করে তুলতে হবে, সমসাময়িক বিষয়ে নিজেদের হালনাগাদ রাখতে হবে। প্রাতিষ্ঠানিক শিক্ষার পাশাপাশি কারিগরি বিষয়েও সমান তালে দক্ষ হতে হবে।

সবশেষে প্যানেলিস্টদের হাতে সম্মাননা ক্রেস্ট তুলে দেন বেসিস সভাপতি সৈয়দ আলমাস কবীর, বেসিস জেষ্ঠ্য সহ সভাপতি ফারহানা এ রহমান, বেসিসের সহ-সভাপতি (অর্থ) জনাব মুশফিকুর রহমান এবং পরিচালক দিদারুল আলম ।

*

*