অনলাইনে পশুর হাট

COW

জমে উঠছেে অনলাইন কোরবানরি পশুর হাট। ঘরে বসেই কোরবানির গরু কেনার সুযোগ দিচ্ছে  অনলাইন মার্কেটপ্লেস ও অনলাইন ভিত্তিক কিছু প্রতিষ্ঠান। ঈদ-উল আযহা উপলক্ষে গতানুগতকি কোরবানির পশুর হাটের পাশাপাশি অনলাইনেও পশু কেনা-বেচা বেশ জমজমাট। নাগরিক জীবনের ব্যস্ততার ভীড়ে এ ধরনের উদ্যোগকে অনেকে সম্ভবনাময় খাত হিসেবেই দেখছেন। তবে প্রশ্ন রয়ইে যায় হাটে গিয়ে দেখে শুনে পছন্দ করে গরু কেনার যে তৃপ্তি তা কতটুকু পূরণ হয় অনলাইনে? কিংবা অনলাইনে গরু কেনা কতটুকুই বা নিরাপদ? আবার কেউ কেউ অনেকটাই বিভ্রান্ত- কোরবানির পশু কোথা থেকে কিনবে? অনলাইনে নাকি  হাটে?। অনলাইনে প্রচলতি হাটের মতোই গরু বিক্রি করছে অনকে খামারী। উদাহরন হিসেবে বলতে হয় সাদেক অ্যাগ্রোর কথা।  খামারির স্বত্ত্বাধিকারী মো. সাদরুদ্দীন জানান, বেশিরভাগ গরু খামার থেকেই বিক্রি হয়। এখন আমরা কিছু গরু বিক্রয় -সহ বিভিন্ন অনলাইন মাধ্যমগুলোতে দিয়ে থাকি। সেখান থেকেও বেশ ভালো সাড়া পাওয়া যাচ্ছে। অনলাইনে পশু বিক্রির অন্যতম একটি বড় সুবিধা হচ্ছে এখানে ক্রেতা-বিক্রেতার মধ্যে দামাদামি নিয়ে কোনো বিব্রত হতে হয় না। পশু বিক্রির ব্যাপারে  মার্কেটপ্লেস ও অনলাইনে গবাদি পশু কেনা-বেচার জনপ্রিয় মাধ্যম বিক্রয়-এর মার্কেটিং ডিরেক্টর ইয়াসের নূর বলেন, বিক্রয়-এ আমরা সম্মানিত গ্রাহকদের সবচেয়ে ভালো মানে সেবা ও পণ্য তুলে দিতে প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। তারই অংশ হিসেবে কোরবানির ঈদকে কেন্দ্র করে সবচেয়ে ভালো মানের অর্গানিক গরু গ্রাহকদের হাতে তুলে দিতে আমরা খামার বাছাইয়ের কাজ করে থাকি। আমরা আশা করি, ক্রেতারা বিক্রয়-এর মাধ্যমে এসব খামারের গরু কিনে সত্যিই উপকৃত ও লাভবান হবেন।

অনলাইনে কোরবানির গরু বিক্রি জমজমাট হলেও সেটি মুষ্ঠিমেয় কিছু মানুষের মাঝে সীমাবদ্ধ। সামগ্রিকভাবে দেশব্যাপি সচরাচর কোরবানির হাটের মতো এটি মানুষের মনে ততোটা স্থান দখল করতে পারেনি। এটি হতে পারে যে, বিক্রেতারাও হয়তো চান হাটে গিয়ে বাজার যাচাই করে তার প্রিয় পশুটিকে বিক্রি করতে। অন্যদিকে, ক্রেতাদের ক্ষেত্রেও একই ঘটনা ঘটতে পারে। এর বাইরেও, অনলাইনে পশু বেচাকেনা নিয়ে বিশ্বাসযোগ্যতারও প্রশ্ন তুলে থাকেন অনেকেই। তবে, বর্তমান প্রেক্ষাপটে এই মাধ্যমটি একটি সম্ভাবনায় খাত। যথাযথ ব্যবস্থাপনার মাধ্যমে অনলাইনে কোরবানির পশুর হাটকে করা যেতে পারে আরও ক্রেতাবান্ধব, বিশ্বাসযোগ্য এবং জনপ্রিয়।

*

*